সংবাদ শিরোনাম
মাধবপুরে ফেনসিডিলসহ গ্রেপ্তার ২  » «   জগন্নাথপুরে এক রিকশা চালককে চুরির অভিযোগে বেঁধে রেখে হত্যা  » «   মাধবপুরের ডাকাত এরশাদ সিলেট থেকে গ্রেপ্তার  » «   ছাতকে গলায় ফাঁস লাগিয়ে যুবতীর আত্মহত্যা  » «   জৈন্তাপুর থেকে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   কানাইঘাটে শিশু ধর্ষণের চেষ্টায় ইমাম গ্রেপ্তার  » «   সুনামগঞ্জে নদী থেকে নিখোঁজ যুবকের লাশ উদ্ধার  » «   হুজুরের বেশ ধারণ করে ধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেপ্তার করেছে জৈন্তাপুর থানা পুলিশ  » «   বড়লেখায় ভারতীয় মদসহ একজন গ্রেপ্তার  » «   পিকনিক করতে এসে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে দুর্ঘটনায় ৩ শিক্ষার্থীসহ নিহত ৪  » «   নগরীর চারাদিঘীর পাড় ঘুড়ি উড়াতে গিয়ে প্রাণ হারালেন পুলিশ কর্মকর্তা  » «   সিলেটে কখন কোথায় ঈদের জামাত-ঈদগাহ মাঠ থেকে দূরে পার্কিং করে রাখার নির্দেশ  » «   কুলাউড়ায় বড় ভাইয়ের দায়ের কোপে ছোট ভাই রাজিব খুন  » «   অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি লুৎফুর রহমানের ঈদ শুভেচ্ছা  » «   এরশাদের কুলখানি সিলেটে ২৩ আগস্ট  » «  

ইসলামী ব্যাংকে টাকা রেখে লাভ নেওয়া যাবে না কেন?

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::প্রশ্ন: আসসালামু আলাইকুম। শীর্ষস্থানীয় অনেক সম্মানিত মুফতিগণ বলেন, ইসলামী ব্যাংকে টাকা রেখে লাভ নেওয়া যাবে না। কারণ, তা সুদ মুক্ত নয়। কিন্তু কেন? যতদূর জানি, ইসলামী ব্যাংকে তো দেশের শীর্ষস্থানীয় কোন কোন আলেমও আছেন!

উত্তর:

ওয়া আলাইকুমুস সালাম।

ইসলামী ব্যাংক প্রতিষ্ঠা উদ্দেশ্যের বিচারে অত্যন্ত কল্যাণমুখী ও মহৎ একটি উদ্যোগ ছিল। আমরা অবশ্যই তাদেরকে স্বাগত জানাই যদি এখনও তারা সঠিক মাসায়েল জেনে সত্যিকার অর্থেই সে অনুযায়ী ব্যাংক পরিচালনা করে থাকেন। তবে, এর জন্য সবচে জরুরী বিষয় হল ব্যাংকের সর্বপ্রকার লেনদেন সত্যনিষ্ঠ মুফতিয়ানে কেরামের তত্ত্বাবধানে হওয়া চাই এবং প্রত্যেক ব্রাঞ্চে কমপক্ষে একজন বিজ্ঞ মুফতী থাকা চাই যিনি সর্বপ্রকার লেনদেনের তদারকি করবেন।

কিন্তু অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্য যে, আমাদের দেশের ইসলামী ব্যাংকগুলো পরিপূর্ণ ইসলাম অনুযায়ী পরিচালিত হচ্ছে না। বড় বড় ইসলামী ব্যক্তিত্ব তাদের মজলিসে শূরার মধ্যে থাকলেও লেনদেনে তাদের কোন কার্যকারী ভূমিকা থাকে না। বরং তারা নিষ্ক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। শুধুমাত্র ব্যাংকের AGM এ পুতুল সদৃশ তাদেরেকে রাখা হয়। অথচ শুধু এতটুকু দ্বারাই ব্যাংকের ইসলামীকরণ হতে পারে না।

ইসলামী ব্যাংকগুলো মূলত কয়েকটি পদ্ধতিতে অর্থায়নে (financing) আসতে পারে।

১। মুশারাকাহ

২। মুযারাবা

৩। মুরাবাহা

৪। ইজারাহ(Lease)

৫। সলম

৬। ইস্তেসনা

উপরোক্ত প্রতিটি লেনদেনের শরঈ রূপরেখা ও বিস্তারিত আহকাম রয়েছে। যেগুলো সম্পর্কে  বিজ্ঞ ওলামাগণ অবগত। এগুলো পরিচালনার জন্য শরীয়তের ভাসা ভাসা জ্ঞান যথেষ্ট নয়। বিশেষভাবে লেনদেন ও ব্যবসা বাণিজ্যের মাসায়েল অন্যান্য মাসায়েল থেকে একটু জটিলও হয়ে থাকে।

উপরোক্ত অধিকাংশ লেনদেনের ক্ষেত্রে তারা খাতা কলমে ইসলামী ব্যাংকিং দেখালেও বাস্তবে তারা সূদী কারবার করে। অনেক ক্ষেত্রে তারা অপর্যাপ্ত জনবলের অজুহাতে সূদী কারবারে জড়িয়ে পড়ে। বিশেষকরে বাইয়ে মুরাবাহার ক্ষেত্রে অধিকাংশ সময় তারা পন্যের বদলে টাকা আদান-প্রদান করে থাকে। যা স্পষ্ট সূদ। এছাড়াও অধিকাংশ ক্ষেত্রে তারা শরীআতের শর্তাবলী রক্ষা করতে পারে না। প্রচলিত সকল ইসলামী ব্যাংকের স্বতসিদ্ধ একটি সূদী কারবার হল বাইয়ে মুরাবাহা মুয়াজ্জলাহ ( দীর্ঘমেয়াদী কিস্তির ভিত্তিতে বিক্রি)। এক্ষেত্রে কেউ যদি কোন একটি কিস্তি (Instalment) দিতে অপারগ হয় বা দেরি করে তবে ঐ পরিমাণের বিপরীতে সময়ের অনুপাতে চার্জ বা মুনাফার নামে একটি পরিমাণ ধার্য করে দেয়। অথচ পণ্যের চুক্তি একটি নির্দিষ্ট পরিমাণের উপর পূর্বেই হয়ে গিয়েছে। এখন সময়ের বিপরীতে যে পরিমাণ ধার্য করা হল তা নিঃসন্দেহে সূদ।

আমার জানা মতে কোন ইসলামী ব্যাংকই এক্ষেত্রে ছাড় দেয় না। আমি নিজে একবার হাউস ফাইন্যান্সের ব্যাপারে দেশের একটি প্রতিষ্ঠিত ইসলামী ব্যাংকের ২টি ব্রাঞ্চের ম্যানেজারের সাথে কথা বলেছিলাম। দুজনের কেউই আমাকে শরীআতসম্মত পদ্ধতিতে লেনদেনটির সমাধান দিলেন না। একজনতো বলে বসলেন হুজুর আপনারা প্রদেয় টাকার বেশি নেওয়াকেই সূদ মনে করেন যা ঠিক নয়। এরপর তিনি তার বক্তব্য চালিয়ে গেলেন। আমি উঠে চলে এলাম।

সারকথা, বর্তমানে আমাদের দেশের ইসলামী ব্যাংকগুলো সূদমুক্ত নয়। যার কারনে তাতে ফিক্সড ডিপোজিট বা সেভিংস একাউন্ট খোলা অন্যান্য ব্যাংকের মত নাজায়েয, যতক্ষণ না তারা তাদের সার্বিক কার্যক্রম ইসলামী পদ্ধতিতে পরিচালনা না করে। উক্ত একাউন্টদ্বয় থেকে কারো নিকট মুনাফার নামে কোন কিছু এসে থাকলে তাও সাওয়াবের নিয়ত ছাড়া ছদকাহ করে দেওয়া ওয়াজিব। তবে প্রয়োজনের ক্ষেত্রে ইসলামী ব্যাংকগুলোতে কারেন্ট একাউন্ট খোলা জায়েয। আমার জানা মতে আমাদের দেশের গ্রহণযোগ্য দারুল ইফতাগুলোর তাহক্কীক ও ফাতওয়া এটিই।

উত্তর প্রদান করেছেন – মুফতি আবুল হুসাইন, প্রধান মুফতি ও মুহাদ্দিস, আল-জামেয়াতুল ইসলামিয়া আশরাফুল উলূম মাদরাসা, নড়াইল।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.