সংবাদ শিরোনাম
দিরাইয়ের উদির হাওর বিলে বাধঁ দেয়া নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত,৪০ জন আহত  » «   রাষ্ট্র ধর্ম নিয়ে তথ্য প্রতিমন্ত্রীর মন্তব্যের কড়া জবাব দিলেন সাঈদ খোকন  » «   শান্তিগঞ্জে জয়কলস গ্রামে প্রতিপক্ষের রামদার কোপে একজন নিহত,একজন আহত  » «   পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের এই বছরের প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বাতিল  » «   সিলেটে দুই কেন্দ্রে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ৮ হাজার শিক্ষার্থী  » «   সিলেটে আজ মনোনয়নপত্র দাখিল করছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা  » «   জননেত্রী শেখ হাসিনা একজন স্ট্রং ক্লাইমেট ফাইটার- পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি  » «   অনুসন্ধান কল্যান সোসাইটি সিলেট এর সভা অনুষ্টিত  » «   কুমিল্লার ঘটনায় জকিগঞ্জে পুলিশ ও বিক্ষুব্ধ জনতার সংঘর্ষ:পুলিশসহ অন্তত অর্ধশত আহত  » «   তৃতীয় ধাপে ইউপি ও পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা  » «   সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জে যাত্রীবাহি বাসের ধাক্কায় তিন মোটর সাইকেল আরোহী নিহত  » «   নগরীর বনকলাপাড়া এলাকায় ফ্যানের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগিয়ে এক তরুনের আত্মহত্যা  » «   শারদীয় দুর্গাপূজায় সিলেট বিভাগীয় অনলাইন প্রেসক্লাবের শুভেচ্ছা  » «   সিলেট নগরীতে ছাত্রলীগের কমিটি প্রত্যাখান করে বিক্ষোভ মিছিল  » «   দীর্ঘ অপেক্ষার পর কমিটি পেল সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগ  » «  

সিলেটে বৃটিশ হাইকমিশনারের দুই প্রার্থীর সঙ্গে বৈঠক

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::সিলেটে ভোটের পরিস্থিতি দেখলেন বৃটিশ হাইকমিশনার এলিসন ব্লেইক। বৈঠক করেছেন সিলেট-১ আসনের মহাজোট প্রার্থী ড. একে আবদুল মোমেন ও ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী খন্দকার আবদুল মুক্তাদিরের সঙ্গে বৈঠক। গতকাল দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত তিনি মর্যাদাপূর্ণ এ আসনের দুই প্রার্থীর সঙ্গে বৈঠক করেন। এ সময় দুই প্রার্থীই বৃটিশ হাইকমিশনারের কাছে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেন। ড. মোমেন জানিয়েছেন, তার নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা দিয়েছে বিরোধীরা। আর প্রশাসনের একতরফা নীতির কথা বৃটিশ হাইকমিশনারকে অবগত করেছেন খন্দকার মুক্তাদির। তবে নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে সাংবাদিকদের কাছে বৃটিশ হাইকমিশনার সরাসরি কোনো মন্তব্য করেন নি। পরিস্থিতি দেখতে সিলেটে আসার কথা জানান তিনি।

নির্বাচনের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেটে আসেন বৃটিশ হাইকমিশনার এলিসন ব্লেইক। বেলা পৌনে দুইটার দিকে তিনি প্রথমে যান বিএনপির নেতৃত্বাধীন ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী খন্দকার আবদুল মুক্তাদিরের  তোপখানাস্থ বাসভবনে। সেখানে প্রায় এক ঘণ্টা তিনি খন্দকার আবদুল মুক্তাদিরের সঙ্গে বৈঠক করেন। রুদ্ধদ্বার ওই বৈঠকের সময় বৃটিশ প্রতিনিধি ছাড়া আর কেউ ছিলেন না। তবে খন্দকার আবদুল মুক্তাদিরের সঙ্গে সিলেট মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আজমল বখত সাদেক ছিলেন। বিএনপি নেতারা জানিয়েছেন, বৈঠকে খন্দকার আবদুল মুক্তাদির বৃটিশ হাইকমিশনার এলিসন ব্লেইকের কাছে সিলেটের ভোটের পরিস্থিতি জানান। এ সময় তিনি ভোটের দিনের পরিবেশ স্বাভাবিক রাখা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করে আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকের দৃষ্টি কামনা করেন। তিনি বৃটিশ হাইকমিশনারকে অবগত করে বলেন, নির্বাচনে তার প্রচারণায় আওয়ামী লীগ নয়, মূল বাধা দিয়েছে পুলিশ।

প্রশাসনের কারণে তিনি নির্বিঘ্নে প্রচারাভিযান চালাতে পারেন নি। পুলিশ বাড়ি-বাড়ি গিয়ে নেতাকর্মীদের ধরপাকড় করছে। এ ছাড়া কয়েকটি মামলা দিয়ে তার নেতাকর্মীদের মাঠছাড়া করেছে। এমনকি সেন্টার কমিটিও তিনি করতে পারছেন না। মুক্তাদির আরো জানান, বাহ্যিকভাবে দেখা যাচ্ছে সিলেটের নির্বাচনে কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু প্রশাসনের একতরফা নীতির কারণে এই নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা আছে তার। নিরপেক্ষ ভোট হলে তিনি জয়ী হবেন বলেও বৃটিশ হাইকমিশনারকে অবগত করেন তিনি।

এদিকে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী খন্দকার আবদুল মুক্তাদিরের সঙ্গে বৈঠক শেষে বৃটিশ হাইকমিশনার এলিসন ব্লেইক নগরীর ধোপাদিঘীর পাড়ে হাফিজ কমপ্লেক্সে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট প্রার্থী ড. একে আবদুল মোমেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সেখানে তিনি ড. মোমেনের সঙ্গে প্রায় আধা ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক করেন।

এ সময় সেখানে সিলেটের সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরান, তার ছেলে ডা. আরমান আহমদ শিপলু ছাড়াও ড. মোমেনের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে অ্যালিসন ব্লেইক উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, ‘নির্বাচনের প্রচারণা ও সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনার জন্য আমি সিলেট এসেছি। সিলেটে উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন দেখতে চাই। এসব বিষয় নিয়েই ড. মোমেনের সঙ্গে একটি সুন্দর আলোচনা হয়েছে।’ মহাজোট প্রার্থী ড. মোমেন বৃটিশ হাইকমিশনারের সঙ্গে বৈঠকের ব্যাপারে বলেন, ‘নির্বাচনে ঈদের মতো উৎসব হচ্ছে। অ্যালিসন ব্লেইকের সঙ্গে নির্বাচনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তাকে আমি জানিয়েছি, নৌকার প্রচার- প্রচারণায় বিরোধী দল বিভিন্নভাবে বাধা প্রদান করছে।

এ ছাড়া নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়েও কথা বলেছি। আওয়ামী লীগ আবারো ক্ষমতায় আসলে দেশে কি কি উন্নয়ন হবে তাও বৃটিশ হাইকমিশনারকে অবগত করা হয়েছে বলে জানান ড. মোমেন।’ বৃটিশ হাইকমিশনারের সঙ্গে ছিলেন বৃটিশ হাইকমিশনের হেড অব পলিটিক্যাল অ্যাফেয়ার্স আবু জাকি ও পলিটিক্যাল অ্যাফেয়ার্স এজাজ জাকী।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.