সংবাদ শিরোনাম
দোয়ারায় ত্রান নিতে এসে চেয়ারম্যানের হাতে মার খেলেন ৮০ বছরের বৃদ্ধা  » «   জগন্নাথপুরে দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ৬  » «   ছাতকের জাহিদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের গভর্নিং বডির কমিটি নিয়ে দু-পক্ষের সংঘর্ষ:আহত ১০  » «   জাফলংয়ে নিখোঁজের দুইদিন পর পর্যটকের লাশ উদ্ধার  » «   শিক্ষক মহাজোটের সভায় প্রাথমিক ও গনশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের সচিব  » «   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে টিনের চালে ঢিল মারা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে ২৫ জন আহত  » «   গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি: ওসি প্রদীপ কোথায়?  » «   জগন্নাথপুরে চিকিৎসক সহ আরও ২জন করোনায় আক্রান্ত:মোট আক্রান্ত ১১৪  » «   জগন্নাথপুরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংর্ঘষের এলাকা থেকে বন্দুক সহ গ্রেফতার-১  » «   চৌহাট্টা পয়েন্টে ট্রাফিক পুলিশের মোটরসাইকেলের মধ্যে ‘বোমা’:নগরজুড়ে আতঙ্ক  » «   সিলেটে স্বাস্থ্যখাতে আউটসোর্সিং নিয়োগে ঘুষ,দুর্নীতির অভিযোগ!কে এই টেন্ডার জাহাঙ্গীর  » «   নেত্রকোনায় হাওরে ঘুরতে এসে নৌকািডুবিতে নিহত ১৭  » «   সুনামগঞ্জের ধর্মপাশার গুমাই নদীতে ঝড়ের কবলে পড়ে নৌকা ডুবে মা-ছেলে  নিখোঁজ  » «   সিলেটে করোনা নিয়ে নতুন শঙ্কা  » «   সিলেটে এখন থেকে একবার স্বশরীরে উপস্থিত হয়েই করোনা পরীক্ষা করিয়ে রিপোর্ট পাবেন বিদেশযাত্রীরা  » «  

মার খেয়েও দায়িত্বে অটল নারী সাংবাদিক, ছবি ভাইরাল

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::ভারতের কেরালায় বিক্ষোভ ও সহিংসতায় উত্তাল। ওই রাজ্যের শবরীমালা মন্দিরে দুই নারীর প্রবেশের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওই সহিংসতার সূত্রপাত ঘটে। এমন উত্তাল সময়ে সহিংসতার খরব সংগ্রহ করতে গিয়ে মারধরের শিকার হন একজন নারী সাংবাদিক। তবুও অশ্রুসিক্ত চোখে নিজের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছিলেন তিনি। ওই সময়ের একটি ছবি অনলাইনে ভাইরাল হয়ে যায়।

ছবিতে দেখা যায় চ্যানেল ‘কাইরালি টেলিভিশন’র ক্যামেরাপারসন শাজিলা আব্দুলরেহমান ক্যামেরায় চোখ রেখে ভিডিও ধারণ চালিয়ে যাচ্ছে। তার অন্য চোখ থেকে পানি গড়িয়ে পড়ছে।

বুধবার (০২ জানুয়ারি) ভোরে শবরীমালা মন্দিরে ঋতুমতী দুই নারী প্রবেশের ঘটনায় কেরলার বিভিন্ন শহরে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে।

ভারতের এই মন্দিরটিতে প্রথম থেকেই ঋতুমতী (১০ থেকে ৫০ বছর বয়স্ক) নারীদের প্রবেশ নিষেধ।

কর্তৃপক্ষের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বুধবার ভোরে ৪০ বছরের বিন্দু আম্মিনি ও ৩৯ বছরের কনকা দুর্গা মন্দিরে ঢোকেন। তারপরই রাজ্য জুড়ে ছড়িয়ে পরে বিক্ষোভ।

ওই ঘটনায় প্রাদেশিক রাজধানী থিরুভানান্থাপুরামে একটি ‘সঙ্গ পরিবারের’ বিক্ষোভের ছবি সংগ্রহ করতে গিয়ে শাজিলা বিক্ষোভকারীদের হামলার শিকার হন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে শাজিলা বলেন, ‘কেউ একজন আমার পিঠে সজোরে লাথি মারে। বুঝতে পারিনি কোথা থেকে লাথি মারা হয়েছে। আমি ব্যথায় নিচু হয়ে পড়লে হামলাকারীরা আমার ক্যামেরা ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু আমি সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে সেটা আঁকড়ে ধরে থাকি। টানাছেঁড়ার কারনে আমি ঘাড়ে আঘাত পেয়েছি।’

আহত শাজিলাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এরিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘সাহস ও পেশাদারিত্বের’ জন্য শাজিলা ঝড় শুরু হয়ে গেছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.