সংবাদ শিরোনাম
শ্রীমঙ্গলে লাশবাহী গাড়িতে চাঁদা দাবি পুলিশের বিভাগীয় তদন্ত  » «   আশুলিয়ায় চাঁদাবাজির সময় ভুয়া পুলিশ আটক  » «   আদালতে মোয়াজ্জেমের ৩০ মিনিট…‘গণপিটুনির ভয়ে পলাতক ছিলেন’  » «   দ্বিতীয় দিনের মতো অবস্থান কর্মসূচিতে ছাত্রদল  » «   আওয়ামী লীগ জিতলেও পরাজিত হয়েছে গণতন্ত্র:ফখরুল  » «   দেশে ফিরতে রাজি হয়েছেন সাগরে আটকে পড়া ৬৪ বাংলাদেশি  » «   ব্যাংকে টাকা আছে, তবে লুটে খাওয়ার মতো টাকা নেই  » «   সিলেটে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে যুবতীকে ধর্ষণ, যুবক গ্রেপ্তার  » «   ফাজিল ও কামিল পরীক্ষার ফল প্রকাশ  » «   ভারতে মস্তিষ্কের প্রদাহে ১০০ শিশুর মৃত্যু  » «   বিকিনি ছবিতে ডাক্তারি হারালেন সুন্দরী  » «   মুরসির মৃত্যু ভয়ানক, সঠিক চিকিৎসা হয়নি: এইচআরডব্লিউ  » «   মিশরের সাবেক প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ মুরসি মারা গেছেন  » «   উইন্ডিজকে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে বার্তা দিয়ে রাখল বাংলাদেশ  » «   কিশোরীর রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে বিশ্বনাথে গুঞ্জন-হত্যা না আত্মহত্যা  » «  

মোবাইল গেমস খেলে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে হাসপাতালে

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::ভারতের যুবসমাজে ক্রমেই বাড়ছে PUBG নামে একটি মোবাইল গেমেসের জনপ্রিয়তা। আর সব গেমেসের মতো এই গেমটির নেশাতেও ডুবে যাচ্ছেন অনেকেই। বহুক্ষেত্রেই যার ফল হচ্ছে মারাত্মক।

যেমন হয়েছে জম্মুর এক ফিটনেস ট্রেনারের ক্ষেত্রে। শুধু তিনিই নন, গত কয়েকদিনে আরো ৫ জন একই কারণে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম জিনিউজের খবরে বলা হয়, জম্মুর এক ফিটনেস ট্রেনার ১০ দিন আগে PUBG খেলতে শুরু করে। তবে গণমাধ্যমে তার নাম প্রকাশ করা হয়নি।

সম্প্রতি তিনি অস্বাভাবিক আচরণ করতে শুরু করেন। শেষে ওই যুবক নিজেকেই নানাভাবে আঘাত করতে শুরু করেন। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেন আত্মীয়রা।

হাসপাতাল সূত্রে জানিয়েছে, যুবকের অবস্থা স্থিতিশীল নয়। PUBG গেমেসের প্রভাবে আংশিক মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন তিনি। তাকে কড়া পর্যবেক্ষণে রেখেছেন চিকিত্সকরা।

তার চিকিত্সার জন্য একজন স্নায়ু চিকিৎককে নিয়োগ করা হয়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, ওই যুবক এখনো PUBG’র ঘোর থেকে বের হতে পারেননি। তবে যুবক দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবেন বলে আশাবাদী ওই চিকিৎসক।

হাসপাতাল সূত্রের খবর, এই নিয়ে গত কয়েকদিনে PUBG খেলতে খেলতে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ৬ জন ভর্তি হয়েছেন।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এই ৬ জন ছাড়াও আরো অনেকেই এই ধরনের সমস্যায় ভুগছেন। তবে তাদের পরিবার সমস্যার গুরুত্ব বুঝতে না পারায় হাসপাতালে আনেননি।

সেক্ষেত্রে সেই সব যুবকরা আরও বড় ঝুঁকির সামনে দাঁড়িয়ে আছেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.