সংবাদ শিরোনাম
দরগাহ গেইটে ডিভাইডারের ওপর উঠে গেল মাইক্রোবাস!  » «   সিলেটে দিনব্যাপী পিঠা উৎসব  » «   ২৫ বছরের মধ্যে বিয়ে না করলেই শাস্তি!  » «   কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসে হামলা, সিসিটিভি দেখে ব্যবস্থার আশ্বাস  » «   ১৭ ঘণ্টা পর খুলনার সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ চালু  » «   বেনাপোলে ৪০৫ বোতল ফেন্সিডিল জব্দ  » «   জিয়ার জন্মদিনে ফখরুলদের তিন শপথ  » «   নির্বাচনে দেশের মানুষ আওয়ামী লীগকে চিরদিনের জন্য তাদের হৃদয় থেকে দূরে ঠেলে দিয়েছে: ফখরুল  » «   ডাক্তার দেখাতে রোববার সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন এরশাদ  » «   মুহিতের সঙ্গে মেয়র আরিফসহ সর্বস্তরের মানুষের সাক্ষাৎ  » «   সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে বাসের-ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত ২  » «   বিল গেটসের এই কাণ্ডে লজ্জা পাবেন আপনিও!  » «   অগ্নিকাণ্ড থেকে রক্ষা পেল কুমারগাও বিদ্যুৎকেন্দ্র  » «   ফেব্রুয়ারির শেষে দ্বিতীয়বার বসবেন ট্রাম্প-কিম  » «   মেক্সিকোয় পাইপলাইনে অগ্নিকাণ্ড, নিহত ২০  » «  

স্ত্রীকে টুকরো টুকরো করে প্রতিশোধ

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::নোয়াখালী সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের পূর্ব শুল্লাকিয়া গ্রামের পারভীন আক্তার ফাহিমা (১৭) নামের এক পোশাক শ্রমিককে হত্যার ঘটনায় স্বামী মো. শেখ সেলিম গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার রাত ১টার দিকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) একটি দল চট্টগ্রামের চাটগাঁও থানার মৌলভী পুকুরপাড় এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের পর স্ত্রী হত্যার দায় স্বীকার করেছেন সেলিম।

গ্রেফতারকৃত শেখ সেলিম (৩০) নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার ডিগ্রির চর গ্রামের শুক্কুর আলী শেখের ছেলে। স্ত্রীকে হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী ছিলেন সেলিম।

শনিবার দুপুরে নোয়াখালী পিবিআই কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিং করে এসব তথ্য জানায় পিবিআই। পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার মো. ইকবাল এ বিষয়ে ব্রিফিং করেন।

তিনি বলেন, নিহত পারভীন আক্তার ফাহিমা ও শেখ সেলিম চট্টগ্রামের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। গত রমজান মাসে বিয়ে করেন তারা। শেখ সেলিম এর আগেও একটি বিয়ে করেন। ওই ঘরে তার একটি সন্তান রয়েছে। বিষয়টি জানার পর ফাহিমা তাকে ছেড়ে নিজ বাড়িতে চলে আসেন।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিশোধ নিতে গত বুধবার (৯ জানুয়ারি) সেলিম নোয়াখালীতে আসেন। পরে মোবাইলে কল দিয়ে বাড়ির পাশে ঝোপের মধ্যে ফাহিমাকে ডেকে নেন।

এরপর ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কেটে ফাহিমাকে হত্যা করেন সেলিম। ফাহিমাকে হত্যার পর লাশ বিভিন্ন অঙ্গ কেটে টুকরো টুকরো করে পালিয়ে যান সেলিম। পরে ফাহিমার ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় তার পেটে বিদ্ধ একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সুপার মো. ইকবাল আরও বলেন, ঘটনার পর মোবাইল নম্বর ট্র্যাকিং করে সেলিমের অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হয় পিবিআই। পরে চট্টগ্রামের চাটগাঁও থানার মৌলভী পুকুরপাড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সেখানে রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন সেলিম।

পারভীন আক্তার ফাহিমা হত্যার ঘটনায় তার বাবা জহিরুল ইসলাম মামলা করেছেন। ওই মামলায় সেলিমকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে হাজির করা হবে বলেও জানান পিবিআইয়ের চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার মো. ইকবাল।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.