সংবাদ শিরোনাম
খালেদাকে মুক্ত করতে শপথ নিলেন ফখরুল  » «   ২৫ মার্চের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি চায় ১৪ দল  » «   ‘আপস নয়, অর্জনের মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করবো’  » «   মৌলভীবাজারে কালরাত স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বালন  » «   ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন মৌলভীবাজারে একই পরিবারের পাঁচজন  » «   সিলেটে কালরাত্রি পালন  » «   শ্রীমঙ্গলে ডিবি পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ২  » «   ‘আবেগে মাথা ঘুরে পড়ে যাওয়ার সময়’ জড়িয়ে ধরেন চেয়ারম্যান  » «   আলপাইনসহ দুই রেস্টুরেন্টকে ৬২ হাজার টাকা জরিমানা  » «   সিকৃবি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন, দোয়া মাহফিল  » «   ভিসা ছাড়াই দুবাই ভ্রমণ!  » «   পবিত্র রমজান শুরু ৬ মে  » «   উত্তাল নদীতে দুলছে যাত্রীভর্তি লঞ্চ, অতপর… (ভিডিও)  » «   ‘থুসিডিডেসের ফাঁদে’ চীন-যুক্তরাষ্ট্র, সংঘাত কি অনিবার্য?  » «   চীন সফরে যাচ্ছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী  » «  

এসএমই ঋণ যাচ্ছে গাড়ি বাড়ি খাতে

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্য ব্যাংকগুলো ১ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকা ঋণ দেওয়ার ফান্ড থাকলেও বাস্তবে এই অর্থ অন্য খাতে ঋণ দেওয়া হচ্ছে উল্লেখ করে এমএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারপার্সন কে এম হাবিব উল্লাহ বলেছেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের উদাসীনতার কারণে এই খাতের জন্য বরাদ্দ ঋণ গাড়ী, বাড়িসহ অন্য খাতে দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। শুধুমাত্র কাগজ কলমে ঋণের কথা উল্লেখ থাকলেও মাঠ পর্যায়ে রয়েছে ঋণের জন্য হাহাকার।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর এসএমই ফাউন্ডেশন ভবনে সাংবাদ সম্মেলনে এমএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারপার্সন কে এম হাবিব উল্লাহ বলেন, দেশে বেকারত্বের সমস্যা রয়েছে। দেশের এই সমস্যা সমাধান করতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের সহজ শর্তে ঋণের ব্যবস্থা সরকারকেই করতে হবে। ৮০ লাখ মানুষ এমএমই ফাউন্ডেশনের সঙ্গে যুক্ত। এই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ৮০ কোটি টাকা ১৬শ জনকে ঋণ দেওয়া হয়েছে। ৮০ কোটি টাকার ঋণ উত্তোলনে কেউ ঋণখেলাপি হয় নাই। ঋণগ্রহীতা সবাই ঠিক সময়মত ঋণ পরিশোধ করেছে।

তিনি বলেন, দেশকে উন্নত করতে এই খাতে সরকারের সুনজর প্রয়োজন। নতুন নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক এক বিরাট পরিবর্তন আসবে। সরকার এই খাতকে এগিয়ে নিতে আন্তরিক, কিন্তু সুদের কারণে নতুন উদ্যোক্তা তৈরিতে সমস্যা করছে। এই খাতে এখনও সুদের হার ডবল ডিজিটে বলে উল্লেখ করেছেন চেয়াপারর্সন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্য বক্তরা বলেন, এমএমই খাতে নারীদের বিনা আমানতে ২৫ লাখ টাকার ঋণ দেওয়া কথা থাকলেও, এটা শুধু কাগজ কলমে রয়েছে। বক্তরা আক্ষেপ করে বলেন, ঢাকা এবং চট্রগ্রাম ছাড়া কোন নারীকে বিনা আমনতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসা শুরু করতে ঋণ প্রদান করা হয় না। এই ২ জেলা বাদে এমএমই খাতে একজন নারীকেও বিনা আমানতে ২৫ লাখ টাকা ঋণ দেওয়া হয় না। দেশীয় পণ্যেকে বিদেশের মাটিতে পরিচিত করাতে এই খাতের প্রতি সরকারকে আরও আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সফিকুল ইসলামসহ অনেকে বক্তব্য রাখেন

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.