সংবাদ শিরোনাম
খালেদাকে মুক্ত করতে শপথ নিলেন ফখরুল  » «   ২৫ মার্চের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি চায় ১৪ দল  » «   ‘আপস নয়, অর্জনের মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করবো’  » «   মৌলভীবাজারে কালরাত স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বালন  » «   ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন মৌলভীবাজারে একই পরিবারের পাঁচজন  » «   সিলেটে কালরাত্রি পালন  » «   শ্রীমঙ্গলে ডিবি পুলিশের অভিযানে ইয়াবাসহ আটক ২  » «   ‘আবেগে মাথা ঘুরে পড়ে যাওয়ার সময়’ জড়িয়ে ধরেন চেয়ারম্যান  » «   আলপাইনসহ দুই রেস্টুরেন্টকে ৬২ হাজার টাকা জরিমানা  » «   সিকৃবি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন, দোয়া মাহফিল  » «   ভিসা ছাড়াই দুবাই ভ্রমণ!  » «   পবিত্র রমজান শুরু ৬ মে  » «   উত্তাল নদীতে দুলছে যাত্রীভর্তি লঞ্চ, অতপর… (ভিডিও)  » «   ‘থুসিডিডেসের ফাঁদে’ চীন-যুক্তরাষ্ট্র, সংঘাত কি অনিবার্য?  » «   চীন সফরে যাচ্ছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী  » «  

অন্যগ্রামের ছেলের সাথে প্রেম করায় কিশোরীকে গণধর্ষণ

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::প্রেমিক-প্রেমিকা বাড়ি থেকে তিন কিলোমিটার দূরে একটি খেলার মাঠে বসে গল্প করছিল। মেয়েটির পরিচিত পাঁচ বন্ধু মিলে তিনটি মোটরসাইকেল নিয়ে ওদের জোরপূর্বক তুলে নিয়ে উপজেলার বহেড়াতৈল রেঞ্জের আওতাধীন কাকড়াজান বিটের একটি গহিন বনে নিয়ে যায়।

বনের ভিতরে প্রেমিক-প্রেমিকাকে বিবস্ত্র করে চড়-থাপ্পড় মারে নরপশুরা। একে অপরকে জড়িয়ে ধরতে বলে। না ধরায় আবারও চড়-থাপ্পড় মারে। এক পর্যায়ে ওরা ওদেরকে শারীরিক সম্পর্ক করতে চাপ দেয়। শারীরিক সম্পর্কে অস্বীকৃতি জানালে এক পর্যায়ে সাদ্দাম হোসেন, মো. জালাল ও আশরাফুল ইসলাম মেয়েটিকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। নজরুল ইসলাম ও আফাজ উদ্দিন এসব ঘটনার ভিডিও ধারণ করে।

কোন উপায় না দেখে এক পর্যায়ে ওই প্রেমিক চিৎকার শুরু করে। চিৎকার শুনে এক ব্যক্তি টর্চ লাইট নিয়ে এগিয়ে এলে মোটরসাইকেলযোগে ওই পাঁচ বন্ধু পালিয়ে যায়।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ১১ই মার্চ টাঙ্গাইলের সখীপুরের বহেড়াতৈল ইউনিয়নের একটি বনে। বিষয়টি জানাজানি হলে গ্রাম্য সালিশে সমাধানের চেষ্টা চলে। এক পর্যায়ে সুবিচার না পেয়ে গত শনিবার রাতে মেয়েটি বাবা বাদী হয়ে পাঁচজনকে আসামি করে সখীপুর থানায় ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা করেন। সখীপুর থানার পুলিশ গতকাল সকালে দুই নম্বর আসামি জালালকে (২৫) গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ জালালের কাছ থেকে ধর্ষণের ও প্রেমিক-প্রেমিকাকে বিবস্ত্র করার ভিডিও উদ্ধার করে। বাকি আসামিদের কাছে আরও ভিডিও রয়েছে বলে পুলিশের কাছ থেকে জানা যায়। গ্রেপ্তার হওয়া জালাল থানার হাজতে থেকে জানায়, মেয়েটি আমাদের পাড়ার। সে মাঝে মধ্যেই ওই ছেলেকে নিয়ে মাঠে বসে গল্প করে।

আমাদের সঙ্গে প্রেম না করে অন্য গ্রামের ছেলের সঙ্গে প্রেম করায় হিংসাত্মকভাবে তাঁদের জোর করে তুলে নেয়া হয়। মেয়েটির বাবা জানায়, আমার কপাল খারাপ। মেয়েটি ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় একবার ধর্ষণের শিকার হয়েছিল। বছর দুয়েক আগের ঘটনা। সখীপুর থানায় মামলাও হয়েছিল। এরপর থেকে থানা ও আদালতে ঘুরতে গিয়ে ও লোক লজ্জার ভয়ে আর স্কুলে পড়া হয়নি মেয়েটির। আবার মামলায় যেতে হলো।

আগের মামলায় মেয়ে বাদী ছিল। এবার আমাকেই বাদী হতে হয়েছে। এ ন্যক্কারজনক ঘটনায় জড়িত পশুদের বিচার দাবি করছি। সখীপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) লুৎফুল কবির বলেন, বাকি আসামিদের ধরার চেষ্টা চলছে। মেয়েটিকে রোববার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.