সংবাদ শিরোনাম
ছাতকে করোনা আক্রান্ত হয়ে আরো এক জনের মৃত্যু ,এ নিয়ে মোট ৩  » «   গোয়াইনঘাটে একই পরিবারের চারজন ও পুলিশ সদস্যসহ আক্রান্ত ১০  » «   সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় হাওরে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে নিহত ১, আহত ১  » «   ন্যাপ সভাপতিসহ তামাবিল দিয়ে দেশে ফিরলেন আরও ১০ বাংলাদেশি  » «   লোভাছড়ায় পাথর সরবরাহে কোর্টের আদেশ   » «   হাইকোর্ট এর আদেশ মানছেন না তাহিরপুর উপজেলা প্রশাসন:জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন  » «   করোনা:সিলেটে মারা গেলেন আরেক চিকিৎসকের স্ত্রী  » «   মাহমুদুলের সহকারী থেকে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতি   » «   তামাবিল স্থলবন্দরে কাষ্টমস এসির সাথে ব্যবসায়ী নেতাদের সভা  » «   জগন্নাথপুরে নতুন করে এক পরিবারের ৪ জন সহ ৫ জন  করোনা আক্রান্ত: মোট আক্রান্ত ১৭  » «   চিকিৎসা না পেয়ে মারা গেছেন বন্দরবাজারের এক ব্যবসায়ী  » «   মাধবপুরে বিজিবির অভিযানে গাঁজাসহ আটক ৩  » «   শ্রীমঙ্গলে মা-মেয়ের রহস্যজনক মৃত্যু  » «   সিলেটে করোনার ভয়ঙ্কর থাবা : একদিনে আক্রান্ত ৮৬, মৃত্যু ৩  » «   ছাতকে করোনা আক্রান্ত হয়ে এক মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু,এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ২  » «  

সুনামগঞ্জের বিভিন্ন সীমান্তপথে ভারত থেকে আসা প্রায় ৩ কোটি টাকার কয়লা ও চুনাপাথর জব্দ

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::সুনামগঞ্জের তাহিরপুরসহ বিভিন্ন সীমান্তপথে বিনাশুল্কে ভারত থেকে চোরাচালানের মাধ্যমে নিয়ে আসা সোয়া ৩ লাখ কেজি ভারতীয় কয়লা ও সাড়ে ৩ হাজার ঘনফুট চুনাপাথর জব্দ করেছে বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন বাংলাদেশ (বিজিবি)।

জব্দকৃত কয়লা ও চুনাপাথরসহ চোরাই মালামালের মূল্য প্রায় ৩ কোটি টাকা।

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্নেল মাকসুদুল আলম জানান, জেলার তাহিরপুরসহ বিভিন্ন সীমান্ত পথে বিনাশুল্কে চোরাচালানের মাধ্যমে ভারত থেকে নিয়ে আসা ২০১৮ সালের ১ অক্টোবর থেকে চলতি বছর ২০১৯ সালের ১০ এপ্রিল বুধবার পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে প্রায় ৩ লাখ ১৬ হাজার ৯২০ কেজি কয়লা জব্দ করা হয়। একই সময়ে ৩ হাজার ৪০৯ ঘনফুট চুনাপাথর জব্দ করা হয়।

জেলার তাহিরপুর সীমান্তের লাউড়েরগড়, চাঁনপুর, টেকেরঘাট, বালিয়াঘাট, চারাগাও ও বীরেন্দ্রনগর বিওপির বিজিবির আওতাভুক্ত সীমান্ত পথ ব্যবহার করে চোরাচালানের মাধ্যমে একাধিক চোরাচালানী চক্র ওই সব কয়লা ও চুনাপাথর নিয়ে আসে।

জব্দকৃত এসব কয়লা চুনাপাথরসহ চোরাই মালামালের মূল্য প্রায় ২ কোটি ৯৪ লাখ ৯৯ হাজার ৪২৩ টাকা।

তিনি আরও বলেন, চোরাচালানের মাধ্যমে নিয়ে আসা কয়লা-চুনাপাথরসহ জব্দকৃত চোরাই মালামালের বিপরীতে ওই সময়ে বিজিবির পক্ষ থেকে ৪৪৩টি মামলা দায়ের করা হয়।

মামলাগুলোর মধ্যে চোরাই মালামালের মালিকসহ ২৪টি ও মালিকবিহীন অবস্থায় ৪১৯টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এসব মামলায় তাৎক্ষণিক সময়ে ১৬ জন আসামিকে আটকের পর থানা পুলিশের মাধ্যমে আদালতে সোপর্দ করা হয়। এছাড়াও ওই সব মামলায় এখনো পলাতক রয়েছে ১৫ জন আসামি।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.