সংবাদ শিরোনাম
মানুষকে রক্ষার চেষ্টা করছি প্রাণপণে : প্রধানমন্ত্রী  » «   জগন্নাথপুরে অজ্ঞাতনামা লাশের পরিজয় পেতে পুলিশের সাহায্য কামনা  » «   গোয়াইনঘাটে আরও এক করোনা রোগী শনাক্ত: উপজেলায় মোট আক্রান্ত ৮  » «   জগন্নাথপুরে পুলিশ সদস্য সহ ২জন করোনায় আক্রান্ত  » «   দিরাইয়ে বজ্রপাতে ১৪ বছরের কিশোরের মৃত্যু  » «   তামাবিল স্থলবন্দর দিয়ে দেশে ফিরলেন ২ বাংলাদেশি  » «   সাংবাদিক ফয়সল আহমদ বাবলুর মাতৃবিয়োগ-গোয়াইনঘাট প্রেসক্লাবের শোক  » «   দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে জাফলংয়ে যুবলীগ নেতা বহিষ্কার  » «   সাংবাদিক বাবলুর মাতার মৃত্যুতে সিলেট বিভাগীয় অনলাইন প্রেসক্লাবের শোক  » «   সিলেট বিভাগে নতুন করে আরও ৭৯ জনের করোনা শনাক্ত-মোট ১২৩৮  » «   জগন্নাথপুরে ৫০০ মসজিদে প্রধানমন্ত্রী সহায়তার চেক বিতরণ  » «   সুনামগঞ্জে র‍্যাবের ১৪ সদস্যসহ একদিনে ৩৯ জন করোনায় আক্রান্ত রেকর্ড,এ নিয়ে মোট ২১৩  » «   জগন্নাথপুরে হাওর থেকে এক অঞ্জাতনামা ব্যক্তির অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার  » «   জগন্নাথপুরে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ১ ব্যক্তি: মোট ১০, সুস্থ ৬, আইসোলেশনে ৪  » «   দোয়ারাবাজারে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ১০  » «  

মামলার আসামী নিপু ও সাইদুল গং প্রকাশ্য চলাফেরা করতেছে পুলিশ গ্রেফতার করছেনা-আনাস হক

আসামী সাইদুল

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::চাঁদাবাজী ও সন্ত্রাসী হামলাসহ বাসার মালামাল লুটপাঠের ঘটনায় দায়ের করা একটি মামলায় বালুচর এলাকার ত্রাস হিরন মাহমুদ নিপুর সহযোগী গিয়াসকে গ্রেফতার করলে ও অন্য আসামীরা প্রকাশ্য চলাফেরা করতেছে।এছাড়া নিপুসহ তার সহযোগীদের গ্রেফতার করছে না পুলিশ এমন দাবী করেন মামলার বাদী পক্ষ।শাহপরান থানার পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২৬শে মার্চ রাত অনুমান ১০টার দিকে হিরন মাহমুদ নিপুর নেতৃত্বে ১১/১২ জনের একটি সঙ্গবদ্ধ দল দেশি বিদেশী অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বালুচর এলাকার রহমান প্যালেসের বাসিন্ধা বদরুল হকের ছেলে আনাস হকের বাসায় গিয়ে মোটা অংকের টাকা চাঁদা দাবী করে। এসময় চাঁদা না পেয়ে সন্ত্রাসীরা বাসার লোকজনের উপর হামলা করে নগদ টাকাসহ প্রায় ৫০ হাজার টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এসময় বাসার একাধিক বাসিন্ধা আহত হন। তারা সিলেট ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসা নিলেও এ ঘটনায় শাহপরাণ থানার পুলিশ মামলা গ্রহন না করায় আনাস হক (২৫) বাদী হয়ে হিরন মাহমুদ নিপুসহ ১১ জনের নাম উল্লেখ করে গত ২/৪/২০১৯ ইং সিলেট সিলেট মেট্টোপলিটন ম্যাজিষ্টেট ১ম আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন । মামলা নং ০৩(৪)১৯ । পরে আদালতের নির্দেশে ৬/৪/২০১৯ ইং শাহপরাণ থানা মামলাটি এফআইআর করে। শাহপরান থানার মামলা নং ৬(৬)২০১৯ইং। উক্ত মামলার একজন আসামী গ্রেফতার করলে ও ঐ আসামী আদালতের মাধ্যমে ছাড়া পায়। মামলার বাদী আনাস হক জানান,আমি মামলা করার কারনে ১০ নং আসামী গিয়াস জেল থেকে বের হয়ে সে তার ভাই এবং হিরন মাহমুদ নিপু ও সাইদুল ইসলাম বাহার সহ তাদের সাথে থাকা সব সন্ত্রাসী মিলে আমাকে প্রানে মারার হুমকি দিচ্ছে। আমি এসব অবস্হা দেখে নিজের ও পরিবারের সবার প্রান বাচানোর জন্য শাহপরান থানায় গিয়ে আবার ও একটি জিডি করি যার নং ৫০১। বর্তমান অবস্হায় আমার জানের নিরাপত্তা নাই,সাথে আমার পরিবার ও চিন্তায় আছেন কখন যে কি হবে। ওরা খুব খারাপ প্রকৃতির লোক যে কোনু সময় দুর্ঘটনা ঘটাতে পারে। তাছাড়া ওরা ওয়ারেন্টের আসামী থাকা স্বত্বে ও প্রকাশ্য দিবালোকে ঘুরাফেরা করতেছে,পুলিশ তাদেরকে গ্রেফতার করতেছেনা বলে জানান আনাস হক। এদিকে মামলার প্রধান আসামী হিরন মাহমুদ নিপু ও তার প্রধান সহযোগী সাইদুল ইসলাম বাহার সহ অন্য আসামীরা প্রকাশ্য রাস্তায় চলাফেরা করতেছে বলে দাবী করেন বাদী পক্ষ। এ ব্যাপারে শাহপরান থানার অফিসার ইনচার্জ আখতার হোসেন জানান,এ ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বাকি সব আসামীদের গ্রেফতার করার জন্য চেষ্টা চলছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.