সংবাদ শিরোনাম
হজ নিবন্ধন শেষ হলেও কোটা পূরণ হয়নি  » «   পরীক্ষা কেন্দ্রে ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর অভিযোগ  » «   পুলিশের বাড়িতে বিষের শিশি নিয়ে তরুণীর অবস্থান  » «   অস্বাভাবিক কিছু দেখলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে জানান: প্রধানমন্ত্রী  » «   দক্ষিণ সুরমার বদিকোনা মাঠে ইজতেমা হচ্ছে না আজ  » «   সিলেট জেলা বিএনপির আলোচনা সভা সোমবার  » «   আসামে ৮ বাংলাদেশি তরুণ আটক  » «   দেশবাসীকে সজাগ ও সতর্ক থাকার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর  » «   ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকে খালেদার মুক্তির দাবী  » «   মানুষের সঙ্গে গরিলার সেলফি!  » «   দুর্ঘটনায় জ্ঞান হারানোর ২৭ বছর পর কোমা থেকে জেগে উঠলেন নারী!  » «   ১১ বছর ধরে সাঁতরে অফিসে যান তিনি!  » «   মোবাইল চুরির অভিযোগে সাংবাদিকদের আটকে রাখলেন শমী কায়সার  » «   বিয়ানীবাজারে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   সিলেটে চাঁদাবাজ চক্রের চার সদস্য গ্রেপ্তার  » «  

আপনার হৃদয়টা সুস্থ, অসুস্থ না মৃত?

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::মানুষের শরীরের মত তার হৃদয়েরও সুস্থতা-অসুস্থতা আছে, মৃত্যুও আছে। হযরত নুমান ইবনু বাশীর (রা.) কর্তৃক বর্ণিত হাদীসে এসেছে, রাসুলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন-

 

أَلاَ وَإِنَّ فِي الجَسَدِ مُضْغَةً: إِذَا صَلَحَتْ صَلَحَ الجَسَدُ كُلُّهُ، وَإِذَا فَسَدَتْ فَسَدَ الجَسَدُ كُلُّهُ، أَلاَ وَهِيَ القَلْبُ

“জেনে রাখো, শরীরের মধ্যে একটি গোশতের টুকরা আছে, তা যখন ঠিক হয়ে যায়, গোটা শরীরই তখন ঠিক হয়ে যায়। আর তা যখন খারাপ হয়ে যায়, গোটা শরীরই তখন খারাপ হয়ে যায়। জেনে রাখো, সে গোশতের টুকরোটি হল কলব।” –বুখারী, হাদীস নং : ৫২

অতএব, আমরা আমাদের হৃদয়গুলোকে তিন প্রকারে ভাগ করতে পারি। সুস্থ হৃদয়, অসুস্থ হৃদয় এবং মৃত হৃদয়।

১. সুস্থ হৃদয়
কেয়ামতের দিন আল্লাহর দরবারে যারা সুস্থ হৃদয় নিয়ে হাজির হতে পারবে, শুধু তারাই মুক্তি পাবে। কুরআনে আল্লাহ বলেন,

يَوْمَ لَا يَنفَعُ مَالٌ وَلَا بَنُونَ . إِلَّا مَنْ أَتَى اللَّهَ بِقَلْبٍ سَلِيمٍ

“যে দিবসে ধন-সম্পদ ও সন্তান সন্ততি কোন উপকারে আসবে না; শুধু যে সুস্থ অন্তর নিয়ে আল্লাহর কাছে আসবে।” –সূরা আশ-শুআরা, আয়াত: ৮৮-৮৯

যদি প্রশ্ন করা হয়, সুস্থ অন্তর বা সুস্থ হৃদয় কী? তাহলে জবাব হলো, যে হৃদয় আল্লাহর আদেশ নিষেধের পরিপন্থী কোন প্রকার আকাঙ্ক্ষা থেকে মুক্ত। এবং এমন তাড়না থেকে মুক্ত যা আল্লাহ-প্রদত্ত কল্যানের বিপরীত।

এমন হৃদয় আল্লাহ ছাড়া অন্য যে কোন ব্যক্তি বা বস্তুর দাসত্ব থেকে মুক্ত এবং আল্লাহ ও রাসূলের প্রদর্শিত পথ ছাড়া অন্য কোথাও থেকে সে পথনির্দেশনা গ্রহণ করে না।

সুস্থ হৃদয়ের বান্দা তার অনন্ত যাত্রার জন্য সর্বদা প্রস্তুত থাকে। সে আল্লাহ ও রাসূলের নির্দেশনা ছাড়া আর কোন প্রকার বিশ্বাস, কথা ও কাজের প্রতি গুরুত্ব প্রদান করে না। আল্লাহ বলেন,

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا لَا تُقَدِّمُوا بَيْنَ يَدَيِ اللَّهِ وَرَسُولِهِ وَاتَّقُوا اللَّهَ إِنَّ اللَّهَ سَمِيعٌ عَلِيمٌ

“মুমিনগণ! তোমরা আল্লাহ ও রসূলের সামনে অগ্রণী হয়ো না এবং আল্লাহকে ভয় কর। নিশ্চয় আল্লাহ সবকিছু শুনেন ও জানেন।” –সূরা হুজরাত, আয়াত : ১

২. অসুস্থ হৃদয়
এমন হৃদয় জীবিত হলেও তার কিছু অসুস্থতা রয়েছে। ক্ষণে ক্ষণে পরিবর্তিত হয়। আল্লাহর প্রতি তার বিশ্বাস ও ভালোবাসা যেমন আছে, তেমনি মনের ইচ্ছা অনুযায়ী চলার প্রবৃত্তি ও দুনিয়ার মোহও একইভাবে তার মধ্যে কাজ করে।

এই হৃদয়ের মধ্যে দুইটি ভিন্ন ভিন্ন দ্বন্দ্ব কাজ করে। একটি আল্লাহর নির্দেশনার দিকে আহবান এবং অপরটি দুনিয়ার বস্তুগত অর্জনের দিকে আহবান।

৩. মৃত হৃদয়
সুস্থ হৃদয়ের বিপরীত হল মৃত হৃদয়। এমন হৃদয় তার প্রভুকে চিনে না এবং প্রভুর নির্দেশও পালন করে না। সে তার নিজের ইচ্ছা ও আকাঙ্ক্ষাকেই প্রাধান্য দেয় যদিও তা আল্লাহর অসন্তুষ্টি ও রাগের কারণ হয়।

আল্লাহ পছন্দ ছাড়া এটি তার পছন্দ-অপছন্দের পূজা করে, নিজের খেয়ালখুশি মত কাজ করে এবং আল্লাহর নির্দেশনার বিপরীত নিজের ইচ্ছাকেই প্রাধান্য দেয়।

দুনিয়ার বস্তুগত মোহে এই হৃদয় আবদ্ধ। কোন প্রকার সদুপদেশ শুনতে সে আগ্রহী নয় এবং এর পরিবর্তে সে শয়তানের অনুসরণ করে চলে।

প্রথম প্রকার হৃদয় আল্লাহর প্রতি অনুগত ও জীবিত হৃদয়, তৃতীয়‍ প্রকার হৃদয় মৃত এবং দ্বিতীয় প্রকার হৃদয় জীবিত ও মৃতের মাঝামাঝি অসুস্থ।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.