সংবাদ শিরোনাম
এক প্রেমিককে পেতে দুই যুবতীর জোট, একজনের স্বামীকে হত্যা  » «   ‘গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা’  » «   রওশনের বিবৃতি বিশ্বাসযোগ্য নয় বললেন কাদের  » «   প্রস্তুতি ম্যাচে সহজ জয় বাংলাদেশের  » «   বৃটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন  » «   মৌলভীবাজারের জুড়ীতে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা  » «   নবীগঞ্জে দুই বখাটের দণ্ড  » «   সন্দেহে কাউকে গণপিটুনী না দিয়ে পুলিশের কাছে দিন-বালাগঞ্জ থানা পুলিশ  » «   গোলাপগঞ্জে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  » «   হযরত শাহজালাল (রহ.) এর ৭০০তম ওরস শুরু  » «   ইয়াবা সেবনের দায়ে সুনামগঞ্জে এপিপিসহ দুইজনকে তিন মাসের কারাদণ্ড  » «   ফাহাদের বাবা নেই”মায়ের অন্যত্র বিয়ে”মামার খোঁজে বড়লেখায়,তিনি ও তার আপন মামা নন ,অতপর….  » «   কাউন্সিলর রেবেকা আক্তার লাকির উপর সন্ত্রাসী হামলা  » «   বিমানবন্দর সড়ক থেকে গরুসহ মাইক্রোবাস আটক  » «   দক্ষিণ সুরমায় চাচাতো ভাইকে খুন  » «  

ঋণখেলাপীদের মাফ করে দিব: অর্থমন্ত্রী

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, দেশের ঋণখেলাপিদের মাফ করে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করতে যাচ্ছে সরকার। তবে যারা ইচ্ছাকৃতভাবে ঋণখেলাপি হবে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে যাবে সরকার।

রোববার জাতীয় সংসদে গণফোরামের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খানের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, সব ব্যবসায়ীকে জেলে পাঠিয়ে দিয়ে দেশের অর্থনীতি চালানো যাবে না। তবে আবার সবাইকে মাফও করা যাবে না। যারা ইচ্ছাকৃতভাবে খেলাপি হয়, তাদের বিরুদ্ধে আমাদের অবশ্যই অ্যাকশন নিতে হবে। আমাদের কঠোর অবস্থানে যেতে হবে।

তিনি বলেন, সারা বিশ্বেই ঋণখেলাপিদের মাফ করে দেওয়ার ব্যবস্থা আছে। দেশে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি আইন কার্যকর না থাকায় ব্যাংকে প্রবেশ করলে সেখান থেকে বের হওয়ার পথ ছিল না। তাই আমরা আইনগুলো কার্যকর করে সেই আইনি প্রক্রিয়ায় সহনীয় পরিস্থিতি তৈরি করে সবাইকে এখান থেকে মাফ করে দেওয়ার ব্যবস্থা করব।

মুস্তফা কামাল বলেন, আমরা সবাই জানি ব্যাংকিং খাত যদি স্বাভাবিকভাবে চলতে না পারে, যদি ঋণের ভারে জর্জরিত হয়ে পড়ে এবং আর যদি নন-পারফর্মিং লোনের পরিমাণ বেড়ে যায় তাহলে আমরা অর্থনীতির গতিশীলতা থেকে বিচ্যুত হব। সবকিছু বিবেচনায় নিয়ে আমরা ব্যাংক খাতগুলোর ‘রেট অব ইন্টারেস্ট’ কমাব। সুদের হার কমানো না গেলে নন-পারফর্মিং লোন কমবে না।

মুস্তফা কামার বলেন, ‘নন-পারফর্মিং লোন তখনই বেড়ে যায় যখন লোন নিয়ে তারা পরিশোধ করতে পারেন না। নন-পারফর্মিং লোন হওয়ার কারণে সুদের হার অনেক বেশি হয়।

তিনি বলেন, যখন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, শিল্পকারখানা ঋণ পরিশোধ করতে পারে না তখন সেখানে সঙ্গত কারণেই খেলাপি হয়ে যায়। আর সেগুলোকে যদি পরিষ্কার না করি তাহলে এগুলো আরও খারাপ হয়ে যাবে। এ জন্য সুদের হার মোটামুটি সহনশীল অবস্থায় নিয়ে আসার কাজ চলছে। এটা নিয়ে আসতে পারলেই আমরা সফল হব। আমাদের কর্মসংস্থান বাড়বে। শিল্পকারখানাগুলো বেঁচে যাবে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.