সংবাদ শিরোনাম
গত ২৪ ঘন্টায় সিলেট বিভাগে ৯৩ জন করোনা আক্রান্ত:মৃত্যু ৩  » «   জৈন্তাপুরে ইয়াবাসহ ১ নারী আটক তার সাথে থাকা আরো তিন ইয়াবা ব্যবসায়ী পলাতক  » «   সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার হাওর থেকে নিখোঁজ এক যুবকের লাশ উদ্ধার  » «   জগন্নাথপুরে হাওর থেকে বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার  » «   জগন্নাথপুরে আরো ১জন স্বাস্থ্যকর্মী সহ ২জন করোনায় আক্রান্ত: মোট আক্রান্ত ৯১  » «   সুনামগঞ্জে একদল তরুণদের উদ্যোগে মানসিক ও প্রতিবন্ধীদের মধ্যে খাবার বিতরণ জেলা প্রশাসকের    » «   কানাইঘাটে নিখোজের ১৪ দিন পর জামাল উদ্ধার  » «   এম. এ. হক যে কোন দুর্যোগ মুহুর্তে জাতির সেবায় নিয়োজিত ছিলেন: এড. আব্দুর রকিব  » «   এম এ হকের প্রথম জানাযা সম্পন্ন  » «   এম. এ. হকের মৃত্যুতে সিলেট মহানগর যুবলীগের শোক  » «   এম. এ. হকের মৃত্যুতে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদলের শোক  » «   এম. এ. হকের মৃত্যুতে সিলেট মহানগর বিএনপির শোক  » «   এম এ হকের মৃত্যুতে মিজান চৌধুরীর শোক  » «   মারা গেলেন সিলেট মহানগর বিএনপি’র সাবেক সভাপতি এম এ হক  » «   সমালোচনার মুখে ফেয়ার এন্ড লাভলীর নাম পরিবর্তন করা হলো  » «  

কোথাও বাঁধ ভাঙলে ফোন করুন এই নম্বরে

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::ঘূর্ণিঝড় ফণি’র প্রভাবে সারাদেশে কোথাও বেড়িবাঁধ ভাঙলে বা ভাঙার উপক্রম হলে জরুরি ভিত্তিতে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের কন্ট্রোল রুমে অবহিত করার অনুরোধ করা  হয়েছে। এজন্য ফোন করার আহ্বান জানানো হয়েছে কন্ট্রোল রুমে। কন্ট্রোল রুমের টেলিফোন নং- ০২৯৫৪০৭০১।
এদিকে শনিবার (৪ মে) সকাল ৬টায় প্রবেশে করে ফণী। আজ ভোর থেকেই সাতক্ষীরা, খুলনা, যশোর অঞ্চল দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে ঘূর্ণিঝড় ফণী।  এরপর দেশের উত্তর ও উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হচ্ছে। ‘ফণী’র প্রভাবে আজ শনিবার (৪ মে) সারাদিনই দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হতে পারে। আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক শামছুদ্দীন আহমেদ এই তথ্য জানিয়েছেন।
ফণীর প্রভাবে শুক্রবার সকাল থেকেই সারা দেশে থেমে থেকে বৃষ্টি ও দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি হচ্ছে। একইসঙ্গে ঝড়ের প্রভাবে উপকূলীয় এলাকা স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ২-৪ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে বলেও সতর্ক করা হয়েছে।
ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিলোমিটারে পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। সাগর খুবই উত্তাল রয়েছে।
মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৭ নম্বর বিপদসংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উপকূলীয় জেলা ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ৭ নম্বর বিপদসংকেতের আওতায় থাকবে।
চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরকে ৬ নম্বর বিপদসংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ৬ নম্বর বিপদসংকেতের আওতায় থাকবে।
কক্সবাজার সমূদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.