সংবাদ শিরোনাম
আরো ২৭২ ব্রিটিশ নাগরিক সিলেট ত্যাগ করলেন  » «   সিলেটে নতুন করোনা রোগী শনাক্ত ২৫ সারা বিভাগে আক্রান্ত ৬৬৫  » «   করোনায় আক্রান্ত ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী  » «   মিস ইউনিভার্স নিউজিল্যান্ড ফাইনালিস্টের রহস্যময় মৃত্যু  » «   সিলেটের মসজিদে মসজিদে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামায়াত অনুষ্ঠিত  » «   ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সিলেট বিভাগীয় অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি লুৎফুর  » «   চৌকিদেখী হেল্পিং হ্যান্ডস চ্যারিটির ঈদ উপহার ও নগদ অর্থ বিতরণ  » «   নবীগঞ্জের আউশকান্দিতে ভাতিজার হাতে চাচা খুন  » «   করোনা স্পট হয়ে উঠেছে ওসমানীনগর ৪৮ ঘন্টায় আক্রান্ত ৬: ইউএনও এসিল্যান্ড সাংবাদিক সহ ৩০ জনের নমুনা সংগ্রহ   » «   আজ চাঁদ দেখা যায়নি, সোমবার ঈদ  » «   জগন্নাথপুরের পাইলগাঁও ইউনিয়ন বিএনপির ত্রাণ বিতরণ  » «   জগন্নাথপুরে সরকারি ভূমি দখল:হামলায় মহিলা সহ আহত-৭  » «   বিশ্বম্ভরপুরের ধনপুর ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক কার্ডধারীদের মাঝে ভিজিডি’র চাল ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ  » «   সিলেটে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত  » «   সিলেটে করোনা উপসর্গ নিয়ে এক চিকিৎসকের মৃত্যু:স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন সম্পন্ন  » «  

একাদশে ভর্তিতে তিন ক্যাটাগরিতে ভাগ হচ্ছে কলেজ

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::একাদশে ভর্তির ক্ষেত্রে সরকারি বেসরকারি কলেজগুলোকে তিন ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হবে। গত বছর ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে এ, বি ও সি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হবে।
ভর্তিচ্ছুক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা যাতে বিভ্রান্ত ও প্রতারণা শিকার না হয়, সে জন্য কোন কলেজ কোন শ্রেণিতে তা নির্ধারণে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
শিক্ষা বোর্ড সূত্র জানায়, ৬৫০ শিক্ষার্থী এবং পাসের হার ৭০ শতাংশের বেশি থাকলে সেই কলেজ হবে ‘এ’ ক্যাটাগরির। ৬০০ শিক্ষার্থী এবং পাসের হার ৫০ থেকে ৭০ শতাংশ থাকলে সেটি হবে ‘বি’ ক্যাটাগরির। আর ‘সি’ ক্যাটাগরিতে থাকবে ৬০০-এর কম শিক্ষার্থী এবং ৫০ শতাংশের নিচে পাসের হার থাকা কলেজগুলো।
আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, ‘ক্যাটাগরি করার মাধ্যমে আমরা কলেজগুলোকে মূল্যায়ন করতে পারব। পরে আমরা দেখতে পারব, কারা নিচ থেকে ওপরে উঠে এসেছে। আবার কারা ওপর থেকে নিচে নেমে গেছে। যারা ভালো করতে পারছে না তাদের সমস্যা চিহ্নিত করে সমাধান করতে পারব।
জানা গেছে, দেশে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি উপযোগী কলেজের সংখ্যা চার হাজার ৬০০-এর বেশি। এতে আসনসংখ্যা প্রায় ২১ লাখ। রাজধানীতে দেড় শতাধিক কলেজ রয়েছে, যাদের আসনসংখ্যা ৫০ হাজারের ওপরে। কিন্তু সেগুলোর মধ্যে মানসম্মত কলেজের সংখ্যা ২৫ থেকে ৩০, যাদের আসন ২০ হাজারের বেশি হবে না।
আগের বছরগুলোর ভর্তির তথ্যানুযায়ী, বেশি আবদেন পড়া কলেজগুলোর মধ্যে ঢাকা বিভাগে আছে ৭৫টি, রংপুর বিভাগে ৩২টি, বরিশালে ১৪টি, রাজশাহীতে সাতটি, চট্টগ্রামে ১৯টি, খুলনা বিভাগে ১৩টি এবং সিলেট বিভাগে ২৩টি। সব কলেজ মিলিয়ে আসনসংখ্যা ৬০ থেকে ৭০ হাজারের বেশি হবে না। ফলে জিপিএ ৫ পেয়েও সবার পক্ষে মানসম্মত কলেজে ভর্তি হওয়ার সুযোগ নেই।
জানা গেছে, এবার জিপিএ ৫ পেয়েছে এক লাখ পাঁচ হাজার ৫৯৪ জন। জিপিএ ৪ থেকে ৫-এর মধ্যে আছে পাঁচ লাখ ১৫ হাজার ৮১৮ জন। জিপিএ ৪ থেকে ৩.৫-এর মধ্যে আছে চার লাখ আট হাজার ৬৭৯ জন। জিপিএ ৩ থেকে ৩.৫-এর মধ্যে আছে চার লাখ আট হাজার ৯৭১ জন।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.