সংবাদ শিরোনাম
ছাতকে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু  » «   র‍্যাবের আভিযানে তালতলা থেকে ৭ জুয়াড়ী গ্রেফতার  » «   সিলেটে গোয়েন্দা সদস্যের উপর হামলা, ৪ জনের কারাদণ্ড  » «   জৈন্তাপুরে বন্যার পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু  » «   চুনারুঘাটে অপহরণের পর হত্যা ‘জড়িত’ র‍্যাব সদস্য  » «   ময়না তদন্তের জন্য কবর থেকে তসলিমার লাশ তোলা হবে আজ  » «   সুর পাল্টালেন সুজন  » «   বৃহত্তর সিলেটের অনেক নেতাসহ আ’লীগ থেকে বহিষ্কার হচ্ছেন যে ২০০ নেতা  » «   নায়িকা এখন ভিলেন মিন্নি..৫ দিনের রিমান্ডে  » «   গোলাপগঞ্জে অধ্যক্ষ ও শিক্ষকদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের অবস্থান কর্মসূচী  » «   সিলেটে বেড়েছে পাসের হার ও জিপিএ-৫  » «   ‘ওরা দেখেও দেখে না”বুঝেও বুঝে না-আসাদের পাল্টা জবাবে আরিফ  » «   মুম্বইয়ে শতবর্ষী ভবনধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩  » «   ৪১ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাস করেননি কেউ  » «   একই উত্তর ৯৫৯ পরীক্ষার্থীর খাতায়  » «  

‘সরকার নড়বে তবুও নড়বে না সচিব’-এমএ মান্নান

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, শুধু বিএনপি-আওয়ামী লীগের জন্য নয়, আমরা সব মানুষের জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিতে কাজ করছি।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলশানের স্পেকট্রা কনভেনশন হলে ‘প্রতিবন্ধীতা অন্তর্ভূক্তিমূলক জাতীয় বাজেট ২০১৯-২০’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘একটি রাষ্ট্রে সবাই সমান অধিকার পাবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা এমন একটি কল্যাণ রাষ্ট্র নির্মাণের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। প্রতিবন্ধী হওয়ায় তারা সুযোগ সুবিধা পাবে না, তা হবে না।’

তিনি বলেন, ‘প্রতিবন্ধীদের একটা সংজ্ঞা আপনারা নির্ধারণ করে দেন, আমি বিবিএস দিয়ে একটা গ্রহণযোগ্য সার্ভে করে দেব, দেশে প্রতিবন্ধীদের সংখ্যা নিয়ে আর সংশয় থাকবে না।’

এএম মান্নান প্রশাসনের সমালোচনা করে বলেন, ‘ছোট বেলায় আমরা শুনেছি, হাকিম নড়ে হুকুম নড়ে না। এটা ইতিবাচক অর্থে ব্যবহার হতো। এখন তার উল্টো হয়েছে- হুকুম নড়ে তো হাকিম নড়ে না, অর্থাৎ সরকার নড়বে তবুও সচিব নড়বে না।’

তিনি বলেন, ‘সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের নাম পরিবর্তনের কথা এসেছে। আমি তো বলি আগে জনপ্রশাসনের নাম পরিবর্তন করে জনসেবা মন্ত্রণালয় করা দরকার। কারণ, সেখানে তো ‘হুকুম নড়ে হাকিম নড়ে না’ কাণ্ড হয়। খালি এডমিনিস্ট্রেশন, নিয়ন্ত্রণ, চেপে ধরার মত অবস্থা।’

প্রতিবন্ধী ভাতা বাড়ানোর দাবি বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘প্রতিবন্ধীদের বর্তমানে ভাতা দেয়া হয় ৭০০ টাকা, তা আরও বাড়ানো প্রয়োজন। তবে প্রধানমন্ত্রী যখন এটা শুরু করেছিলেন তখন বলেছিলেন- এই ভাতাটা এমনভাবে নির্ধারণ করতে হবে যাতে কেউ এটার ওপর নির্ভরশীল না হয়ে পড়ে। প্রতিবন্ধীরাও যেন কর্মবিমুখ না হয়। তারা যেন কিছু করে খায়’। কারণ, আমাদের আমাদের দেশের মানুষ কাজ না করে চা-বিড়ি খেয়ে জীবন কাটিয়ে দিতে চায়, এটা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। দেশের উন্নয়নে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুল প্রতিবন্ধীদের নিয়ে যে কাজ করছেন, তা বিশ্বব্যাপী প্রশংসা কুড়াচ্ছে বলেও জানান তিনি।

এক্সেস বাংলাদেশের সভাপতি সিএম তোফায়েল সামির সভাপতিত্বে এতে আরও আলোচনা করেন- সাবেক সমাজ কল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, প্রতিবন্ধী বিশেষজ্ঞ মনসুর আহমেদ চৌধুরী, বিবিডিএন এর সভাপতি সালাউদ্দিন কাশেম খান, এক্সেস বাংলাদেশের আলবার্ট মোল্লা, প্রতিবন্ধী নারীদের জাতীয় পরিষদের সভাপতি নাসিমা আকতার প্রমুখ।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.