সংবাদ শিরোনাম
জগন্নাথপুরে হাওর থেকে এক অঞ্জাতনামা ব্যক্তির অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার  » «   জগন্নাথপুরে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ১ ব্যক্তি: মোট ১০, সুস্থ ৬, আইসোলেশনে ৪  » «   দোয়ারাবাজারে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ১০  » «   সিলেটে দক্ষিণ সুরমায় দু’দল বাস শ্রমিকের মধ্যে দেড় ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষ  » «   করোন:এক দিনে ৯৩ জন আক্রান্ত সিলেট বিভাগে:মোট ১০৪০ জন  » «   ভূমধ্যসাগরে ট্রলার ডুবিতে নিহত ৩৬: এ মামলার প্রধান আসামি রফিকুল গ্রেফতার  » «   সিলেট থেকে বাস চলাচল শুরু  » «   ছাতকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এক ঔষধ ব্যবসায়ীর মৃত্যু  » «   সুনামগঞ্জে চেয়ারম্যানের অপসারনের দাবীতে অভিযোগ দায়ের  » «   সুনামগঞ্জে র‍্যাব ক্যাম্পের ১৬ জন সদস্যসহ মোট ২১ জন করোনায় আক্রান্ত  » «   জগন্নাথপুরে মানসিক রোগী দীর্ঘ এক বছর পর থানা পুলিশের সহযোগিতায় ফিরে পেল পরিবার  » «   রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের ১৯-২০ বছরের উন্মুক্ত বাজেট পেশ  » «   জগন্নাথপুরে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে আরেক জন  » «   জগন্নাথপুরে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা জরিমানা আদায়  » «   গোয়াইনঘাটে এসএসসিতে পাশের হার ৭৯.২৭ জিপিএ ৪৫ জন  » «  

ভারতে স্বামীর সামনে ৫ জন মিলে গণধর্ষণ

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন ২০ বছর বয়সী এক তরুণী। ভারতের রাজস্থানের আলওয়ারে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, মোটরসাইকেলে করে ওই দম্পতি বেড়াতে যাচ্ছিলেন। পথে দুর্বৃত্তরা তাদের বাইক থামিয়ে সড়ক থেকে পার্শ্ববর্তী গিরিখাতে নিয়ে গিয়ে স্বামীর সামনে তিন ঘণ্টা ধরে ধর্ষণ করে।

পাঁচজন মিলে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে। আর একজন সে দৃশ্য ধারণ করে। পরে ওই দম্পতিকে ঘটনা ফাঁস করলে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়া, এমনকি হত্যার হুমকি দেয়া হয়।

রাজস্থানের পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত ৫ ধর্ষককে আট করা হয়েছে। আর ধর্ষণের দৃশ্য ইন্টারনেটে আপলোডকারীকে আটকে অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

ব্রিটিশ ডেইলি মেইল খবর দিয়েছে, গত ২৬ এপ্রিল এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষিতা তরুণী সরকারের কাছে তার এমন কাণ্ডে জড়িতদের মৃত্যুদণ্ড দাবি করেছেন।

ভুক্তভোগী টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেন, ‘যে পাঁচজন আমাকে ধর্ষণ করেছে, ভিডিও করেছে; যারা অনুরোধ করার পরেও আমার জীবনকে ধ্বংস করে দিয়েছে, আমি তাদের সবার ফাঁসি চাই।’

ওই তরুণী দলিত শ্রেণির। ঘটনার পরে সেটি মা-বাবা ও পরিবারের কাছে চেপে যান। কিন্তু, যখন ভিডিও ফুটেজ সোশ্যাল মিডিয়ায় চলে আসে, তখন এই দম্পতি পুলিশে অভিযোগ করেন।

পুলিশের কাছে ‘ভয়াল’ ওই তিন ঘণ্টার বর্ণনা দিয়েছেন এই দম্পতি। ওই তরুণীর স্বামী বলেন, পাঁচজন মিলে আমাদের জোর করে নিয়ে যান। এরপর আমার সামনে ওকে বিবস্ত্র হতে বাধ্য করে।

তিনি বলেন, ঘটনার পরপরই আমরা স্থানীয় থানায় অভিযোগ দায়ের করতে গেলে, ভোটের কারণে ব্যস্ততা দেখিয়ে তারা ফিরিয়ে দেয়।

কিন্তু, এখন সব জানাজানির পর এই দম্পতি আর ভীত নন। স্বামীর ভাষ্যে, আমি এখন কাউকে ভয় করি না। আমরা লড়াই চালিয়ে যাব। শুধু আটক করাই সমাধান নয়, তাদের ফাঁসি দিতে হবে।

জয়পুর রেঞ্জের আইজিপি এস সেনগাথি পুলিশ মামলা না নেয়ার তথ্য অস্বীকার করেছেন। বলেছেন, পুলিশ গুরুত্ব দিয়েই দেখছে মামলাটি। ইতোমধ্যে ৫ জনকে ধরা হয়েছে। বাকিজনও ধরা পড়বে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.