সংবাদ শিরোনাম
১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ  » «   চার মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব রদবদল  » «   কৃষক বাঁচাতে চাল আমদানি বন্ধ হচ্ছে  » «   জঙ্গী-সন্ত্রাস ও মাদকের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে দেশবাসীর দোয়া চাইলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   আগামী ২৮ মে সরকারি চাকুরেদের বেতন-ভাতা  » «   যৌনহয়রানি রোধে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ‘অভিযোগ বক্স’ বসানোর নির্দেশ  » «   চুরি করে অন্য দেশের অধিবাসী,দায় পরে বাংলাদেশি প্রবাসীদের ঘাড়ে  » «   মেয়েকে বাঁচাতে দিনমজুর বাবার আবেদন  » «   প্রথম সন্তানের জন্ম দিলেই মায়েরা পাবেন নগদ টাকা  » «   মানুষের চোখে ৫৭৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা শক্তি!  » «   মৃত্যুর কথা আগাম টের পান যে তরুণী!  » «   আবারও প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন মোদি, বুথফেরত জরিপ  » «   পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে পরপারে পাড়ি দিলেন অভিনেত্রী মায়া ঘোষ  » «   কুলাউড়ায় প্রতিপক্ষের ওপর হামলা,দুই নারীসহ আহত ৩  » «   সিলেট জেলা ও দায়রা জজ আদালত চত্বর থেকে ভূয়া আইনজীবী আটক  » «  

৭ম শ্রেণির ছাত্রীর অনশন, অতঃপর

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::উপজেলার বেতুয়ান গ্রামে বিয়ের দাবিতে প্রেমিক জাব্বার হোসেনের (১৮) বাড়িতে আমরণ অনশনে বসেছিল ৭ম শ্রেণির এক ছাত্রী। জাব্বার গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেনের পুত্র। অনশনে বসা ৭ম শ্রেণির ছাত্রী মুন্নি (১৪) পার্শ্ববর্তী আদর্শগ্রামের মুকুল হোসেনের মেয়ে ও বিএলবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী। জাব্বারের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, জাব্বার ও মুন্নির দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি জাব্বার মুন্নিকে এড়িয়ে চলার চেষ্টা করলে মুন্নি শনিবার সকাল ১০টায় বিয়ের দাবিতে জাব্বারের বাড়ির উঠোনে অবস্থান নেয়। বিভিন্ন ভাবে তাকে বোঝানোর চেষ্টা করে সবাই ব্যর্থ হয়। এদিকে সন্ধ্যা ঘনিয়ে আসলে জাব্বারের মা বাধ্য হয়ে মুন্নিকে তার ঘরে নিয়ে তুলেন এবং রাতে তার কাছে রেখে মুন্নির পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পরে দুই পরিবারের সম্মতিতে ছেলেমেয়ে উভয়ের বয়স কম থাকায় গতকাল সকালে তাদের বিয়ে করানোর জন্য পাবনা কোর্টে নিয়ে যাওয়া হয়।

সর্বশেষ অবস্থা জানতে তাদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাদের মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। জাব্বার বিএলবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছে ও বর্তমানে রাজশাহীতে একটি বেসরকারি ফার্মে চাকরি করে। এ বিষয়ে ইউপি সদস্য মো. আক্কাস আলি বলেন, আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না। কেউ আমাকে কিছু জানায়নি।  উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা হাসনাত জাহান বলেন, এই সম্পর্কে আমি কোনো অভিযোগ পাইনি।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.