সংবাদ শিরোনাম
চুনারুঘাট থেকে ডাকাতি মামলার আসামি গ্রেপ্তার  » «   সিলেট সিটিতে ৭৮৯ কোটি টাকার বাজেট  » «   গোলাপগঞ্জে যুবকের আত্মহত্যা  » «   বিশ্বনাথে আউয়াল ব্রিক ফিল্ডের সামনে থেকে পাইপগানসহ যুবক আটক  » «   নবীগঞ্জে বউ-শাশুড়ির ঝগড়া দেখে হার্ট এট্যাকে স্বামীর মৃত্যু!  » «   খাসদবির এলাকার শাহীন হোটেল থেকে বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার  » «   শায়েস্তাগঞ্জে ট্রাক চাপায় শ্রমিকের মৃত্যু  » «   জৈন্তাপুর সীমান্তে ভারতীয় ২১ টি গরু আটক  » «   সৌদির সড়কে বাংলাদেশী ৪ যুবক নিহত  » «   ছাতকে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে ছুরিকাঘাতে নিহত ১, আটক ১  » «   জামালগঞ্জে কিশোরীকে ধর্ষণ, আটক ১  » «   বড়লেখা সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশী নিহত  » «   সুনামগঞ্জর তেঘরিয়া এলাকায় নৌপথে চাঁদাবাজি করার সময় আটক ২  » «   সিলেটের জকিগঞ্জে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ২  » «   কুলাউড়ায় কিশোরীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ-প্রেমিক জেলহাজতে  » «  

সিলেটে কলার দাম যেন আকাশ ছুঁয়েছে!

শেখ মোঃ লুৎফুর রহমান::চলছে পবিত্র মাহে রমজান মাস। ইফতারে আলাদা মাত্রা যোগ করা কলার জুড়ি নেই। সেই কলার দাম যেন আকাশ ছুঁয়েছে সিলেটসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলার বাজারগুলোতে। গত এক সপ্তাহ আগেও ব্যবসায়ীরা কলা বিক্রি করেছে প্রতি হালি ১০ থেকে ১৫ টাকা। অথচ রোজার প্রথম দিন থেকে এক লাফে হালি প্রতি ১৫ থেকে ২০ টাকা বেড়ে বিক্রি করছে ৩০ থেকে ৪০ টাকায়। এভাবেই রোজার দিন থেকে প্রতি পিস কলা ৮ থেকে ১০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে হাট-বাজার ও দোকানগুলোতে।

ভোক্তারা বলছেন, এমন চড়া দামে কলা বিক্রি দরিদ্র ও নিম্ন আয়ের মানুষদের হাতের নাগালের বাইরে চলে গেছে। অভিযোগ করে বলছে, দিনের বেলা বাজার থেকে দুষ্প্রাপ্য হয়ে গেছে কলা। অর্থাৎ কলা নিয়ে কারসাজিতে মেতে উঠেছে কিছু অসাধু ব্যবাসায়ী।

প্রতিদিন সকাল থেকে ইফতারের আগ পর্যন্ত সিলেটসহ জেলার অন্যান্য বাজারগুলোতে পাওয়া কলা পাওয়া গেলেও দাম তুলনামূলক অনেক বেশী । দিনের শুরুতে হাট-বাজারে কেনাকাটা করতে এসে বাজারে কলা না পেয়ে ফিরে যাচ্ছেন সাধারণ ক্রেতারা। তবে ইফতারের ২ ঘণ্টা আগে বাজারে আসছে কলা। আর সেই সময়ে হুমড়ি খেয়ে ক্রেতারা চড়া দামেই কিনছেন কলা। এসময় অসাধু ব্যবসায়ীরা চড়া মূল্যে বিক্রি করছেন কলা।

সম্প্রতি সরেজমিন দেখা যায়, সিলেটসহ নগরীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে ভোক্তাদের অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। গত শনিবার ও রোববার নগরীর বন্দর বাজারসহ বালুচর   উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে কলা ব্যবসায়ীদের এমন কারসাজি করতে দেখা যায়। যার কারণে দরিদ্র ও নিম্ন দায়ের মানুষ তাদের ক্রয় ক্ষমতার বাহিরে চলে গেছে।

শাহী ঈদগার কলা ব্যবসায়ী করিম আহমদ জানান, এবার কলা চাষ কম হয়েছে। অন্য দিকে খরচও ব্যাপক। যার জন্য দামও বেশী। সুবহানী ঘাটের হাটে আসা পাইকারি বিক্রেতা মো. আকবর জানান, কলা বাগানের মালিকদের কাছ থেকে চড়া দামে কলা কিনতে হয়। জলছত্র বাজারে দালাল, খাজনা ও পরিবহন খরচও বাড়তি। যার কারণে চড়া দামেই বিক্রি করতে বাধ্য হই।

মসজিদে ইফতারের জন্য সিলেট নগরীর বন্দর বাজার জামে মসজিদের আবু আহাদ জানান, রোজার আগে কলার দাম ছিল ১২ থেকে ২০ টাকা হালি। এখন রোজাকে কেন্দ্র করে তা বৃদ্ধি পেয়ে দ্বিগুণ। প্রশাসনের হাট-বাজারগুলো মনিটরিং না করায় সুযোগ নেয় অসাধু কলা ব্যবসায়ীরা। মহিউদ্দিন বলেন- পবিত্র মাহে রমজান মাস কে কেন্দ্র করে অসাধু কলা ব্যবসায়ীরা অতিমুনাফা লাভের আশায় তারা কলার দাম দ্বিগুণ বেশী নিচ্ছে। রমজান মাসে প্রশাসন যদি নিয়মিত মনিটরিং করত তাহলে ভোক্তাদের ভোগান্তি কম হতো।

ভোগ্য পণ্য মূল্য বৃদ্ধির বিষয়ে জানতে চাইলে এসএমপি’র ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) জেদান আল মুসাকে ফোন দিলে তিনি ফোন ধরেননি।

 

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.