সংবাদ শিরোনাম
মানুষকে রক্ষার চেষ্টা করছি প্রাণপণে : প্রধানমন্ত্রী  » «   জগন্নাথপুরে অজ্ঞাতনামা লাশের পরিজয় পেতে পুলিশের সাহায্য কামনা  » «   গোয়াইনঘাটে আরও এক করোনা রোগী শনাক্ত: উপজেলায় মোট আক্রান্ত ৮  » «   জগন্নাথপুরে পুলিশ সদস্য সহ ২জন করোনায় আক্রান্ত  » «   দিরাইয়ে বজ্রপাতে ১৪ বছরের কিশোরের মৃত্যু  » «   তামাবিল স্থলবন্দর দিয়ে দেশে ফিরলেন ২ বাংলাদেশি  » «   সাংবাদিক ফয়সল আহমদ বাবলুর মাতৃবিয়োগ-গোয়াইনঘাট প্রেসক্লাবের শোক  » «   দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে জাফলংয়ে যুবলীগ নেতা বহিষ্কার  » «   সাংবাদিক বাবলুর মাতার মৃত্যুতে সিলেট বিভাগীয় অনলাইন প্রেসক্লাবের শোক  » «   সিলেট বিভাগে নতুন করে আরও ৭৯ জনের করোনা শনাক্ত-মোট ১২৩৮  » «   জগন্নাথপুরে ৫০০ মসজিদে প্রধানমন্ত্রী সহায়তার চেক বিতরণ  » «   সুনামগঞ্জে র‍্যাবের ১৪ সদস্যসহ একদিনে ৩৯ জন করোনায় আক্রান্ত রেকর্ড,এ নিয়ে মোট ২১৩  » «   জগন্নাথপুরে হাওর থেকে এক অঞ্জাতনামা ব্যক্তির অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার  » «   জগন্নাথপুরে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ১ ব্যক্তি: মোট ১০, সুস্থ ৬, আইসোলেশনে ৪  » «   দোয়ারাবাজারে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ১০  » «  

আরিফুল হকের নেতৃত্বে অবৈধ স্ট্যান্ডটি উচ্ছেদ

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::সিলেট নগরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক হচ্ছে চৌহাট্টা থেকে আম্বরখানা সড়ক। এ সড়কের এক পাশের প্রায় আধা কিলোমিটার অংশ দখল করে অস্থায়ী মাইক্রোস্ট্যান্ড বসিয়েছেন চালকেরা। এ কারণে যান চলাচলে তৈরি হচ্ছে প্রতিবন্ধকতা, প্রতিনিয়ত দেখা দিচ্ছে যানজট। এমনকি মাইক্রো সমিতির নামে এ সড়কের পাশেই সরকারি জায়গায় একটি অফিসও নির্মাণ করে রেখেছে তারা।

এই মাইক্রোস্ট্যান্ডটি উচ্ছেদের জন্য বেশ কয়েকবার সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু নানা কারণে তা বাধাগ্রস্ত হয়। তবে এবার সেখান থেকে সরল অবৈধ মাইক্রোস্ট্যান্ড। পবিত্র মাহে রমজানে যানজট নিরসনের লক্ষে সিলেট সিটির ফুটপাত দখলমুক্ত, অবৈধ স্ট্যান্ড ও পার্কিংয়ের বিরুদ্ধে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হকের নেতৃত্বে চলমান অভিযানের অংশ হিসেবে মঙ্গলবার এ সড়ক থেকে অবৈধ স্ট্যান্ডটি উচ্ছেদ করা হয়।

বেলা দুইটার দিকে সিসিক ও পুলিশ প্রশাসনের সদস্যদের নিয়ে এ অভিযান পরিচালনা করেন মেয়র আরিফ। এসময় তিনি মাইক হাতে নিয়ে সেখান থেকে মাইক্রো চালকদের সরে যেতে অনুরোধ করেন। একপর্যায়ে পুলিশের সদস্যরাও মাঠে নেমে তাদের সরিয়ে দেন। পরে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। একই সাথে মাইক্রো চালকদের সেখানে ফের স্ট্যান্ড না বসাতে সতর্ক করেও দেয়া হয়েছে।

এ সড়ক ছাড়াও আম্বরখানা পয়েন্টের চার পাশে গড়ে ওঠা অবৈধ সিএনজি (অটোরিকশা) স্ট্যান্ডও অপসারণ করা হয়। অভিযানে বেশ কিছু যানবাহনের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা ও মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, চৌহাট্টা থেকে আম্বরখানামুখী এ সড়কে প্রায় সাড়ে অর্ধশতাধিক মাইক্রো ও অন্যান্য গাড়ি সারিবদ্ধভাবে রাখা থাকে। এখানকার বেশির ভাগ গাড়ি ভাড়ায় জেলা শহর সুনামগঞ্জ ছাড়া ছাতক ও দিরাই উপজেলায় যায়। তবে গাড়ি একলেনে রাখার কারণে সড়ক ছোট হয়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে করে দরগাহ এবং আম্বরখানাগামী যাত্রীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়।

এ ব্যাপারে সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, ‘সিলেট নগরীর যানজটের মূল কারণ যত্রতত্র অবৈধ পার্কিং ও অবৈধ গাড়ি স্ট্যান্ড। এই অবৈধ পার্কিংয়ের কারণে সৃষ্ট যানজটে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন নগরবাসী। অবৈধ স্ট্যান্ড ও অবৈধ পার্কিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু হলো। এ অভিযান অব্যাহতভাবে চলবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এছাড়া নগরীর বিভিন্ন বিপনী বিতান, মার্কেটের সামনে রাস্তার উপর যত্রতত্রভাবে গাড়ি স্ট্যান্ড আর যেখানে-সেখানে গাড়ি পার্কিং করতে দেয়া হবেনা বলেও জানিয়েছেন তিনি।

অভিযানে সিলেট মেট্রোপলিটন ট্রাফিকের উপ পুলিশ কমিশনার মো. ফয়সল মাহমুদ, অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার জ্যোতির্ময় সরকার সহ বিপূল সংখ্যক পুলিশ সদস্য ও সিসিকের অন্যান্ন কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.