সংবাদ শিরোনাম
সংসদে যাওয়ার ব্যাখ্যা দিলেন তারেক রহমান  » «   নুসরাতের কবরে গিয়ে শপথ নিয়েছিলাম ন্যায়বিচারে লড়বো: ব্যারিস্টার সুমন  » «   রাজনীতিতে সক্রিয় হচ্ছেন এরশাদের সাবেক স্ত্রী বিদিশা!  » «   ডিআইজি মিজান কি দুদকের চেয়েও শক্তিশালী : আপিল বিভাগ  » «   ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেফতার  » «   সোহেল তাজের ভাগ্নেকে প্রেমের জেরে অপহরণের অভিযোগ  » «   ১৩ বছর বয়সে আটক মুর্তজার মৃত্যুদণ্ড বাতিল করছে সৌদি আরব!  » «   বাসায় আটকে দেহব্যবসা, কান্না শুনে ২ নারীকে উদ্ধার  » «   এখনও অনেক কিছু বাকি :মেসি  » «   স্ত্রীকে বোন বানিয়ে একাধিক বিয়ে, অতঃপর…  » «   বাবা দিবস আজ  » «   জগন্নাথপুরে পালাক্রমে দুই শিক্ষক ধর্ষণ করে ছাত্রীকে এখন সে অন্তঃসত্ত্বা-পিতার দায়িত্ব কে নেবে  » «   শুরুতে বেকায়দায় মুমিন চৌধুরী  » «   দুই কোটি টাকার গাড়ির তেল কিনতে হাঁস-মুরগি চুরি  » «   খালেদার মুক্তি বিষয়ে করণীয় নির্ধারণে স্থায়ী কমিটির জরুরী বৈঠক  » «  

আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়লেন শিক্ষক-শিক্ষিকা

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::আপত্তিকর অবস্থায় এই সপ্তাহে শিক্ষক-শিক্ষিকারা যেন হ্যাটট্রিক করবেন। একের পর এক ধর্ষণ, হোটেল, বিনোদনের নামে নোংরামিতে পুলিশ, জনগণ, আইনের বিভিন্ন প্রশাসনের কাছে ধরা পড়ছে মহান পেশার “জাতি গঠণের কারখানা” খ্যাত শিক্ষক-শিক্ষিকারা।

চাঁদপুরের কচুয়ায় প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে তার সহকর্মী এক শিক্ষিকার অন্তরঙ্গ ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। সম্প্রতি কচুয়া শিক্ষক সমিতির মার্কেটের স্টুডিও মিনতির পরিচালক সুমন রায়ের ফেসবুক আইডি থেকে স্ট্যাটাস দেয়ারসঙ্গে সঙ্গে ছবিটি ভাইরাল হয় সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, কচুয়া উপজেলার শ্রীরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর ও তালতলী সপ্রাবির এক সহকারী শিক্ষিকার অন্তরঙ্গ ও আপত্তিকর একটি ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে এলাকায় নানা গুঞ্জনসহ আলোচনার ঝড় উঠে।

স্থানীয়া জানান, এক সন্তানের জননী ওই শিক্ষিকা বর্তমানে আলীগঞ্জ পিটিআই’তে প্রশিক্ষণে রয়েছেন। শিক্ষক জাহাঙ্গীর বিভিন্ন সময় তাকে ফোন করে ডেকে নিয়ে বিভিন্ন কাজের দায়িত্ব দিলে তিনি তা করে দিতেন। এভাবেই তাদের মধ্যে অন্তরঙ্গ সম্পর্ক গড়ে উঠে। ওই শিক্ষিকা বলেন, গত ৬ই মে শিক্ষক জাহাঙ্গীর আমাকে মুঠোফোনে হাজীগঞ্জের একটি বাসায় যেতে বলে। পিটিআই’র ছুটি হওয়ার পর আমি সেখানে যাই। ওই বাসায় গেলে ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ছবিটি তোলা হয়।

এদিকে এক সন্তানের জনক কচুয়া পৌরসভাধীন ধামালুয়া গ্রামের অধিবাসী মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, তার সাথে আমার কর্মক্ষেত্রে সাধারণ পরিচয় ছাড়া অন্য কোনো সম্পর্ক নেই। ভাইরাল হওয়া ছবি সম্পর্কে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.