সংবাদ শিরোনাম
পুত্রের হাতে পিতা খুন  » «   তাহিরপুর সীমান্তে ভারতীয় মালামাল আটক  » «   বড়লেখায় লোডশেডিংয়ে ভোগান্তি  » «   রাজনগরে ১০ ভিক্ষুককে পুনর্বাসন  » «   হবিগঞ্জ পৌরসভার সোয়া ৮৫ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা  » «   মুরসির মৃত্যু স্বাভাবিক নয়: এরদোগান  » «   ফেসবুক ব্লকের শিকার হাঙ্গেরির বিশাল জনগোষ্ঠী  » «   আ.লীগের নাম ‘নিখিল বাংলাদেশ লুটপাট সমিতি’ রাখা উচিত: ফখরুল  » «   লুটপাট করে টাকার পাহাড় তৈরি করছে সরকারিদলের নেতারা: রুমিন  » «   দেশে ফিরেছেন রাষ্ট্রপতি  » «   সাকিব-লিটনকে নিয়েই অস্ট্রেলিয়ার দুশ্চিন্তা  » «   ৪৫৫ উপজেলার ৩০২টিতে আ.লীগ, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৯৬জন  » «   অপহরণের ১১ দিন পর আজ সোহেল তাজের ভাগ্নে সৌরভকে উদ্ধার  » «   অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৫৯০ কোটি টাকা দান করলেন মার্কিন ধনকুবের  » «   দেশে ফিরছেন ভানুয়াতুতে পাচার হওয়া বাংলাদেশীরা  » «  

চীন বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল হংকং

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::অপরাধী প্রত্যর্পণের বিতর্কিত বিলের প্রতিবাদে চীন বিরোধী বিক্ষোভে থমকে গেছে হংকংয়ের জীবনযাত্রা। বন্ধ হয়ে গেছে বেশ কিছু সরকারি দফতর। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সরকারি দফতরগুলোর সামনে ফের অবস্থান নেয় বিক্ষোভকারীরা। এর আগে, বিক্ষোভে পুলিশের গুলি ও লাঠিচার্জে অন্তত ৭২ জন আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। এদিকে, সহিংসতার ঘটনায় উল্টো বিক্ষোভকারীদের দুষছে হংকং প্রশাসন।
অপরাধী প্রত্যর্পণের বিতর্কিত বিলের প্রতিবাদে টানা প্রায় এক সপ্তাহ ধরে চলমান চীনবিরোধী বিক্ষোভ বুধবারও অব্যাহত ছিল। এদিন, হাতে ছাতা নিয়ে বিক্ষোভে অংশ নেন কয়েক লাখ সাধারণ মানুষ। এসময়, জলকামান ব্যবহার করে তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করা হয়। এতে, ব্যর্থ হলে পরবর্তীতে বিক্ষোভকারীদের ওপর লাঠিচার্জ করে হংকং পুলিশ। ছোঁড়া হয় রাবার বুলেট ও টিয়ার গ্যাসও। এতে আহত হন বেশ কয়েকজন।
বুধবার রাতভর বিক্ষোভ শেষে বৃহস্পতিবার সকালেও হংকংয়ের রাস্তায় জড়ো হন বিক্ষোভকারীরা। এসময়, তারা সরকারি দফতরগুলোর সামনে অবস্থান নিলে বন্ধ হয়ে যায় সেসব ভবনের দাপ্তরিক কাজ। মুহূর্তেই ভেঙে পড়ে যোগাযোগ ব্যবস্থা। এ অবস্থায় সহিংসতার জন্য বিক্ষোভকারীদেরকেই দায়ী করেছে হংকং প্রশাসন।
এদিকে, চীনের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে চলমান সংকট সমাধানের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন,  হংকংয়ে স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ বিক্ষোভ চলছে। যা আমাদের ভাবিয়ে তুলেছে। তবে আমি মনে করি চীনের সঙ্গে কথা বলেই সমস্যা সমাধানে সক্ষম হবে হংকং।
মূলত চীন এবং তাইওয়ানের অপরাধী প্রত্যার্পণ সংক্রান্ত প্রস্তাবিত একটি বিলের বিপক্ষে গেল রোববার থেকে শুরু হয় চীনবিরোধী এই বিক্ষোভ। প্রস্তাবিত নতুন আইন অনুযায়ী, হংকংয়ের সন্দেহভাজন যে কোনো অপরাধীকে নিজ ভুখণ্ডে নিয়ে বিচারের মুখোমুখি করতে পারবে চীন। তবে, বিলটি পাস হলে এতে হংকংয়ের স্বকীয়তা নষ্ট হবে বলে মনে করছেন আন্দোলনকারীরা। আগামী ২০শে জুন বিলটির ওপর হংকং পার্লামেন্টে ভোটাভুটির কথা রয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.