সংবাদ শিরোনাম
রবিবার থেকে ব্যাংক চলবে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা  » «   অভ্যন্তরীণ তিন রুটে ১ জুন থেকে ফ্লাইট চালু  » «   সৌদি আরবে সিলেটর জকিগন্জের এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু  » «   নিজ হাতে গড়া দল থেকে বহিষ্কার মাহাথির  » «   লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা  » «   শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে এক বৃদ্ধের মৃত্যু  » «   কুলাউড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত  » «   করোনা:বিশ্বনাথে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ৪০  » «   বিশ্বনাথে নিজ কর্মস্থলে আসার সময় মাদ্রাসার শিক্ষকের মৃত্যু  » «   নগরীর পাঠানটুলা থেকে এক অজ্ঞাত মহিলার লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় মহিলা সদস্যর শ্লীলতাহানির চেষ্টা, অভিযোগ দায়ের  » «   করোনা: দেশে একদিনে শনাক্ত ছাড়ালো ২ হাজার, মৃত্যু ১৫  » «   মায়ের দুধে করোনা সংক্রমণ হয় না  » «   ভক্তদের সারপ্রাইজ দিলেন মুশফিক  » «   করোনাকালে হাসপাতালেই হলো ডাক্তার আর নার্সের বিয়ে  » «  

পিলারে বেঁধে ব্যবসায়ীকে নির্যাতন, বরখাস্ত চার পুলিশ

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::বগুড়ায় সোহান বাবু আদর নামের এক ব্যবসায়ীকে কৌশলে বগুড়া সদর থানায় ২৫ ঘণ্টা আটক রেখে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন চালানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। শুক্রবার (১৫ জুন) রাতে গুরুতর আহত অবস্থায় বাবুকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ৪ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
ভুক্তভোগী বাবু বগুড়া শহরের সুলতানগঞ্জপাড়া উটের মোড় এলাকার সাইদুর রহমানের ছেলে। তিনি ইলেকট্রিক সামগ্রীর ব্যবসা করেন।
আহত বাবুর বাবা সাইদুর রহমানের অভিযোগ, শহরের গোয়ালগাড়ি এলাকায় আল-ফালাহ বহুমুখী সমিতির পরিচালক সোহান বাবু আদর, সাথী বানু ও তার স্বামী বাপ্পি মিয়া। সাথী বেগম ও তার স্বামী বাপ্পির অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় সদর থানার কনস্টেবল এনামুল হক বাবুকে মোবাইল ফোনে থানায় ডেকে নেন। সেখানে গেলে সদর থানায় এস আই আব্দুল জোব্বার, এএসআই এরশাদ এবং এএসআই নিয়ামত বাবুকে একটি কক্ষে হাতে হ্যান্ডকাপ লাগিয়ে পিলারের সাথে বেঁধে রাখেন। এসময় তার কাছে ১১ লাখ টাকা দাবি করেন ওই পুলিশ কর্মকর্তারা। পুলিশের দাবীকৃত টাকা দিতে অস্বীকার করলে গভীর রাতে তাকে বেদম মারধর করা হয়। এক একপর্যায়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে শুক্রবার রাতে ছেলের সুস্থতার কথা বলে মুচলিকা দিয়ে ছাড়া পান বাবু।
তার শরীরের বিভিন্ন জায়গায়, বিশেষ করে পশ্চাতদেশে আঘাতের চিহ্ন দেখে গেছে।
বগুড়া জেলা নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব তৌফিক হাসান ময়না বলেন, পুলিশ আইনের রক্ষক হয়ে থানায় ডেকে এনে এমন নির্যাতন মেনে নেওয়া যায় না। এটি মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং এর জন্য দোষীদের শাস্তি হওয়া দরকার।
জানা গেছে, বিষয়টি জানার পরপরই ঘটনার সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত চার পুলিশ কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বিভাগীয় তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান বগুড়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.