সংবাদ শিরোনাম
ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক-কর্মচারীদের এমপিওভুক্তির সুযোগে হাইকোর্টের রুল  » «   মাধ্যমিকে ভর্তি আবেদনের সময় বাড়ল  » «   একজন মানুষ তাঁর কর্মের মাধ্যমে সবার কাছে প্রিয় বা অপ্রিয় হন: চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাউছার আহমদ  » «   পদত্যাগ করলেন মুরাদ হাসান  » «   সংবাদ সম্মেলনে প্রবাসীর অভিযোগ:‘অন্যায়ভাবে আমাদের বাসাবাড়ি ভেঙে দিয়েছেন মেয়র আরিফ’  » «   সুনামগঞ্জের সদরগড়ে দুইপক্ষের ঝগড়া থামাতে গিয়ে এক সালিশকে পিঠিয়ে হত্যা  » «   জৈন্তাপুরে সিজদারত অবস্থায় এক ইমামের মৃত্যু  » «   সিলেটে আসছে শীত বদলে যাচ্ছে তাপমাত্রা-কাপড়ের দোকানে ক্রেতাদের ভিড়  » «   কুলাউড়ায় নবনির্বাচিত হাজিপুর ইউপি চেয়ারম্যানের ইন্ধনে সীমানা প্রাচীর ভাংচুর  » «   সুনামগঞ্জে ছাত্রদলের মিছিলে পুলিশের বাঁধা  » «   ইংল্যান্ডে প্রতি ৬০ জনে একজন কোভিড আক্রান্ত  » «   ছাতকের তেরা মিয়া হত্যা মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন ও ৯ জনকে কারাদন্ড  » «   দোয়ারাবাজারে কাজ করতে দেরি হওয়ায় দোকান ভাঙচুর, মারধর   » «   সিলেটে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বরণ করা হয়েছে বিজয়ের মাস ডিসেম্বরকে  » «   কানাইঘাটের আনন্দ কমিউনিটি সেন্টারে শোকের ছায়া-নারী বাবুর্চি সহ দু-জনের লাশ উদ্ধার  » «  

১০ দিনেও সন্ধান মেলেনি মামা-ভাগ্নের

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::ফেনীর দাগনভূঁঞা উপজেলার দেবরামপুর গ্রামের বাসিন্দা ও আবুধাবি প্রবাসী মোহাম্মদ আতিক উল্যাহ (৫০) ও  তার ভাগ্নে মোহাম্মদ হুজাইফা তাহমিদ (১৬) নিখোঁজ হওয়ার ১০ দিনেও সন্ধান মেলেনি। তাদের নিখোঁজের ঘটনায় ফেনীর দাগনভূঁঞা থানা ও ঢাকার খিলগাঁও থানায় পৃথক সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করা হয়েছে।

প্রবাসীর ভগ্নিপতি ও ভাগ্নে মোহাম্মদ হুজাইফা তাহমিদের বাবা মোহাম্মদ হাফেজ আবুল বাশার জানান, নিখোঁজ মোহাম্মদ আতিক উল্যাহ (৫০) গত প্রায় ১৫ বছর থেকে আবুধাবিতে ব্যবসা করেন এবং স্বপরিবারে সেখানে বসবাস করেন। গত রমজানের কয়েকদিন আগে একাই গ্রামের বাড়িতে আসেন এবং বোনের পরিবারের সঙ্গে উপজেলার উত্তর চন্ডিপুর ছিলেন। তার ভাগ্নে মোহাম্মদ হুজাইফা তাহমিদ স্থানীয় একটি মাদ্রাসার দশম শ্রেণিতে লেখাপড়া করে।

গত ১৩ই জুন দুপুরে মোহাম্মদ আতিক উল্যাহ আবুধাবি যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হন। সঙ্গে ভাগ্নে মোহাম্মদ হুজাইফা তাহমিদকে নেন। বাড়ি থেকে বের হয়ে তারা ফেনীতে স্টার লাইন পরিবহনের বাসে উঠেন। এরপর থেকে তারা নিখোঁজ রয়েছেন।

তাদের দু’জনের হাতে থাকা দুটি মুঠোফোনও (০১৮৭৭-৮২৯০২৫ ও ০১৮৮২-৪৬২৮৫০) বন্ধ পাওয়া যায়।

পারিবারিক সুত্র জানায়, তাদের ঢাকা ও এলাকায় সম্ভাব্য সব আত্মীয়-স্বজনের নিকট খোঁজ করে কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। মোহাম্মদ আতিক উল্যাহ আবুধাবিও যাননি।

খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে প্রবাসীর ভগ্নিপতি ও ভাগ্নে মোহাম্মদ হুজাইফা তাহমিদের বাবা মোহাম্মদ হাফেজ আবুল বাশার ১৫ই জুন দাগনভূঁঞা থানায় (জিডি নং ৫২৫) এবং অপর এক আত্মীয় হাফেজ মো. মুনছুর আলম ১৭ই জুন ঢাকার খিলগাঁও থানায় (জিডি নং ৯১৩) পৃথক জিডি করেন।

দাগনভূঁঞা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ছালেহ আহম্মদ পাঠান জানান, দানভূঁঞার প্রবাসী মোহাম্মদ আতিক উল্যাহ ও তার ভাগ্নে মোহাম্মদ হুজাইফা তাহমিদের নিখোঁজের বিষয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় জিডি করা হলে পুলিশের বেতারের মাধ্যমে দেশের সব থানায় খবর পাঠানো হয়েছে। শনিবার বিকাল পর্যন্ত কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়াার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.