সংবাদ শিরোনাম
রবিবার থেকে ব্যাংক চলবে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা  » «   অভ্যন্তরীণ তিন রুটে ১ জুন থেকে ফ্লাইট চালু  » «   সৌদি আরবে সিলেটর জকিগন্জের এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু  » «   নিজ হাতে গড়া দল থেকে বহিষ্কার মাহাথির  » «   লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা  » «   শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে এক বৃদ্ধের মৃত্যু  » «   কুলাউড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত  » «   করোনা:বিশ্বনাথে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ৪০  » «   বিশ্বনাথে নিজ কর্মস্থলে আসার সময় মাদ্রাসার শিক্ষকের মৃত্যু  » «   নগরীর পাঠানটুলা থেকে এক অজ্ঞাত মহিলার লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় মহিলা সদস্যর শ্লীলতাহানির চেষ্টা, অভিযোগ দায়ের  » «   করোনা: দেশে একদিনে শনাক্ত ছাড়ালো ২ হাজার, মৃত্যু ১৫  » «   মায়ের দুধে করোনা সংক্রমণ হয় না  » «   ভক্তদের সারপ্রাইজ দিলেন মুশফিক  » «   করোনাকালে হাসপাতালেই হলো ডাক্তার আর নার্সের বিয়ে  » «  

নিত্যপণ্যের বাজারে ব্রয়লার মুরগি ও আদার দাম কমেছে

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::নিত্যপণ্যের বাজারে ব্রয়লার মুরগি ও আদার দাম কমেছে। বেড়েছে রসুন, ডিম ও আলুর দাম। কেজিতে ৫ টাকা কমে প্রতিকেজি ব্রয়লার মুরগি ১২৫-১৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আদা বিক্রি হচ্ছে ১৩০-১৮০ টাকায়। তবে আদা ও রসুনের এই দামও অনেক বেশি। কোরবানি সামনে রেখে আদা ও রসুনের ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে দাম বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সম্প্রতি বাণিজ্য সচিব মো. মফিজুল ইসলাম আদা ও রসুনের ব্যবসায়ীদের এ ব্যাপারে আগাম সতর্ক করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, কোরবানি সামনে রেখে আদা ও রসুনের দাম বাড়ানো হলে করুনীয় সবকিছুই করা হবে। সরকারের কাছে ভোক্তা স্বার্থ সবার আগে।

শুক্রবার রাজধানীর কাওরান বাজার, কাপ্তান বাজার, ফকিরাপুল বাজার এবং যাত্রাবাড়ী বাজরের ভোগ্যপণ্যের দরদামের তথ্য থেকে জানা যায়, কয়েকটি পণ্য ছাড়া বেশির ভাগ নিত্যপণ্যের দাম স্বাভাবিক রয়েছে। চাল, ডাল, আটা, ভোজ্যতেল ও চিনির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। স্থিতিশীল রয়েছে সবজির দাম। এছাড়া মাছের দাম বাড়লেও অপরিবর্তিত রয়েছে গরু ও খাসির মাংসের দাম। একাধিক কাঁচা বাজার ঘুরে দেখা যায়, খুচরা পর্যায়ের ব্যবসায়ীরা প্রতি ডজন ফার্মের মুরগির ডিম ১১৫ টাকা থেকে ১২০ টাকায় বিক্রি করছেন। আর এক হালি বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা থেকে ৪২ টাকায়। এক সপ্তাহ আগে ডিমের ডজন বিক্রি হয়েছে ১০০ টাকা থেকে ১১০ টাকার মধ্যে। এ প্রসঙ্গে কাপ্তান বাজারের ডিম বিক্রেতার শাহ আলম জনকণ্ঠকে বলেন, বাজারে ডিমের দাম বাড়তি হলেও সরবরাহ কম। কিন্তু চাহিদা কমেনি। যে কারণে ঈদের পর কয়েক দফায় ডিমের দাম বেড়েছে। চলতি সপ্তাহেই ডজনপ্রতি ডিমের দাম ১০ টাকা থেকে ১৫ টাকা পর্যন্ত বেড়ে গেছে।

এছাড়া এক সপ্তাহের ব্যবধানে গোল আলুর দাম কেজিতে দুই থেকে পাঁচ টাকা বেড়েছে। গত সপ্তাহে আলুর দাম ছিল কেজিপ্রতি ১৮ থেকে ২০ টাকা। সেই আলু এখন বিক্রি হচ্ছে ২২ থেকে ২৫ টাকায়। এদিকে বাজারে পেঁয়াজের দাম প্রতিকেজিতে অন্তত তিন টাকা কমেছে বলে ব্যবসায়ীরা জানান।

কারওয়ানবাজারে এক পাল্লা (পাঁচ কেজি) পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৩৫ টাকা ১৪০ টাকা। এক সপ্তাহ আগে এক পাল্লা পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ১৫০ টাকা থেকে ১৫৫ টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে পাঁচ কেজিতে পেঁয়াজের দাম পাইকারি পর্যায়ে ১৫ টাকা পর্যন্ত কমেছে। খুচরা বাজারে গত সপ্তাহে দেশী পেঁয়াজ ৩৫ টাকা কেজি বিক্রি হয়েছে, শুক্রবার ওই পেঁয়াজ ৩০ টাকা কেজি বিক্রি হয়েছে। এছাড়া ভরা মৌসুমে বাজারে ইলিশের দাম চড়া। প্রতিজোরা মাঝারি সাইজের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে দেড় থেকে দুই হাজার টাকা। সাগর ও নদীতে ইলিশ ধরা শুরু হলেও মাছের দেখা পাওয়া যাচ্ছে না। এছাড়া দেশী জাতীয় কার্প মাছও বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.