সংবাদ শিরোনাম
সাঁতার না জানায় হবিগঞ্জ পুলিশলাইনের পুকুরে মিলল কনস্টেবলের লাশ  » «   কেরানীগঞ্জে ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪-আহত ৩  » «   সিলেটের মেয়ে ঢাকায় এসে অসহায় হয়ে কান্নাকাটি করছে:খোঁজ মিলছেনা পরিবারের  » «   বাংলাদেশ-পাকিস্তানের গোপন চুক্তি ফাঁস করলেন শোয়েব!  » «   সমুদ্রসৈকতে মালয়েশিয়াগামী ২৩ রোহিঙ্গা উদ্ধার  » «   নগরীর চৌহাট্টায় অবৈধ হকার উচ্ছেদের অভিযানে মেয়র  » «   আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত যানবাহনের কাগজপত্র জরিমানা ছাড়া করার সুযোগ  » «   বড়লেখায় স্ত্রী, শাশুড়িসহ দুই প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা:পরিদর্শন করলেন ডিআইজি কামরুল আহসান  » «   র‌্যাবের খাঁচায় বন্দী সিলেট জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মকসুদ  » «   ছাতকের ভাতগাও ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি গঠন  » «   দুই দশক আগে সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলা : ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ড  » «   এসএসসি পরীক্ষার সংশোধিত রুটিন প্রকাশ  » «   টিলাগড় থেকে ইয়াবাসহ ছাত্রলীগ কর্মীসহ আটক ২  » «   ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে আত্মশুদ্ধি ও গুনাহ মাফের ফরিয়াদ  » «   ভারতের মাঠে স্টিভ স্মিথের অনবদ্য সেঞ্চুরি  » «  

স্বামীর কাছে ৩০ রুপি চেয়ে পেলেন তিন তালাক

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::স্বামী সাবিরের কাছে তার স্ত্রী জয়নব (৩০) চেয়েছিলেন ৩০ রুপি। বিনিময়ে তিনি পেলেন তিন তালাক। সঙ্গে প্রহারও। জয়নবকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ অভিযোগে দাদ্রি’তে পুলিশ স্টেশনে একটি মামলা করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের নয়ডায়। এ খবর দিয়েছে অনলাইন টাইমস অব ইন্ডিয়া।

জয়নবের অপরাধ শনিবার তিনি স্বামী সাবিরে কাছে সবজি কেনার জন্য ৩০ রুপি চেয়েছিলেন। তা নিয়ে তাদের কথা কাটাকাটি হয়।

তিনি আরো জানান, সাবির বিভিন্ন মিলে তেলের কন্টেইনার বিক্রি করতো। তার সঙ্গে জয়নবের বিয়ে হয় ৯ বছর। তাদের দাম্পত্য সম্পর্ক খুব একটা ভাল ছিল না। তাদের রয়েছে চারটি সন্তান। দুই বছর আগে একটি লাঠি দিয়ে জয়নবের মাথায় আঘাত করেছিল সাবির। তা ছাড়া তার শ্বশুর-শাশুড়ি তার সঙ্গে খারাপ আচরণ করতেন। কয়েকদিন আগে জয়নব অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাই তিনি তাকে নিজের বাড়ি নিয়ে যান। মুরসালিম বলেন, জয়নব আমাদের সঙ্গে ৫ দিন ছিল। শুক্রবার সে দাদ্রি এলাকায় তার শ্বশুরবাড়ি ফিরে যায়। এ সময় সাবির বলে, সে তাকে তালাক দিতে চায়।
এ সব নিয়ে সাবির, নাজ্জো, সাবিরের বোন শামার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সাবিরকে আদালতে তোলার পর সে সেখান থেকে জামিনে মুক্তি পেয়েছে। মুরসালিম বলেন, তাকে সুরাজপুর কোর্টে চালান দেযা উচিত ছিল। এ মামলায় অভিযুক্ত অন্য দুজনকে এখনও ধরতে পারে নি পুলিশ। পুলিশ বলেছে, তারা এ বিষয়টি পারিবারিক আদালতে পাঠাবে। কারণ, এখন তিন তালাক ইস্যুতে গেজেট নোটিফিকেশন দেয়ার মতো কোনো কর্মকর্তা নেই। তবে পুলিশ তিন তালাকের অভিযোগ তদন্ত করছে। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের আগস্টে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট তিন তালাকের বিরুদ্ধে রায় দেন। এমন তালাককে তারা বাতিল, অবৈধ ও অসাংবিধানিক বলে রায়ে বলেন।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.