সংবাদ শিরোনাম
রবিবার থেকে ব্যাংক চলবে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা  » «   অভ্যন্তরীণ তিন রুটে ১ জুন থেকে ফ্লাইট চালু  » «   সৌদি আরবে সিলেটর জকিগন্জের এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু  » «   নিজ হাতে গড়া দল থেকে বহিষ্কার মাহাথির  » «   লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা  » «   শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে এক বৃদ্ধের মৃত্যু  » «   কুলাউড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত  » «   করোনা:বিশ্বনাথে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ৪০  » «   বিশ্বনাথে নিজ কর্মস্থলে আসার সময় মাদ্রাসার শিক্ষকের মৃত্যু  » «   নগরীর পাঠানটুলা থেকে এক অজ্ঞাত মহিলার লাশ উদ্ধার  » «   সুনামগঞ্জে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় মহিলা সদস্যর শ্লীলতাহানির চেষ্টা, অভিযোগ দায়ের  » «   করোনা: দেশে একদিনে শনাক্ত ছাড়ালো ২ হাজার, মৃত্যু ১৫  » «   মায়ের দুধে করোনা সংক্রমণ হয় না  » «   ভক্তদের সারপ্রাইজ দিলেন মুশফিক  » «   করোনাকালে হাসপাতালেই হলো ডাক্তার আর নার্সের বিয়ে  » «  

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ডাকাতি

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::সরাইলে সন্ধ্যা রাতেই মহাসড়কে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। গত সোমবার রাত ৮টা ৪০ মিনিটিে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সরাইলের ইসলামাবাদ ও বাড়িউড়ার মাঝামাঝি স্থানে ওষুধ কোম্পানির ব্যবস্থাপক বিশ্বনাথ সরকারকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে সর্বস্ব লুটে নিয়েছে ডাকাতরা। ঘটনার ১৫ মিনিট পর ঘটনাস্থলে আসেন সড়কে টহলরত পুলিশ। ভুক্তভোগী ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জেনারেল ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের মাধবপুর জেলার আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক বিশ্বনাথ সরকার। অফিসের কাজ শেষ করে গত সোমবার সন্ধ্যার পর মোটরবাইকে (ঢাকা- মেট্রো-হ-৪৯-৪৮৮৭) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহর থেকে মাধবপুরের উদ্দেশে রওনা দেন। রাত ৮টা ৪০ মিনিটে মহাসড়কের ইসলামাবাদ এলাকায় পেছন থেকে দ্রুত গতিতে এসে হেলমেট পরিহিত দুই মোটরসাইকেল আরোহী বিশ্বনাথের বাইকের গতিরোধ করে। মোটরবাইকসহ অন্যান্য জিনিসপত্র ছিনিয়ে নিতে বিশ্বনাথের সঙ্গে ধস্তাধস্তি শুরু করে ডাকাতরা। তারা একটি পিস্তল ও ছোরা দেখিয়ে প্রথমে বিশ্বনাথকে জিম্মি করে।

পরে তার কাছ থেকে নগদ ৬ হাজার টাকা, একটি এন্ড্রয়েড মুঠোফোন সেট ও মোটরবাইকটি ছিনিয়ে নিয়ে যায় ডাকাতরা। সর্বস্ব খুঁইয়ে বিশ্বনাথ রিকশায় করে ঘটনাস্থল থেকে ২-৩শ’ গজ দূরে বাড়িউড়া বাজারে একটি ওষুধের দোকানে যান। ১৫ মিনিট পরই সেখানে হাজির হন সড়কে টহলরত সরাইল থানার এসআই মো. খলিলুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ।

বিশ্বনাথের কাছ থেকে পুরো ঘটনা জেনে দ্রুত থানায় যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে চলে যায় পুলিশ। ডাকাতের কবলে পড়া বিশ্বনাথ সরকার বলেন, মোটরবাইকে এসে এরা খুব ঠাণ্ডা মাথায় আমার মোটরবাইকের গতিরোধ করেছে। পরে আস্তে করে সড়কের পাশে নিয়ে অস্ত্র ও ছোরা দিয়ে আঘাত করার ভয় দেখিয়েছে। প্রাণভয়ে আমি আত্মসমর্পণ করেছি। তারা মোটরবাইক সহ সবকিছু নিয়ে কুট্টাপাড়ার দিকে চলে গেছে। কিন্তু এ সময়ের মধ্যে আমি সামনে পিছনে কোথাও পুলিশের দেখা পায়নি। মিনিট ১৫ পর বাড়িউড়া বাজারে যায়। হঠাৎ দেখি কট্টাপাড়ার দিক থেকে সরাইল থানা পুলিশের একটি পিকআপ শাহবাজপুরের দিকে যাচ্ছে। হাতে ইশারা দিয়ে থামিয়ে এসআই খলিলুর রহমানকে ঘটনাটি বলেছি। তিনি আমাকে দ্রুত থানায় গিয়ে অভিযোগ করার পরামর্শ দিয়েছেন। সড়কের দায়িত্বে থাকা এসআই মো. খলিলুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি মাগরিবের পর থেকেই মহাসড়কে দায়িত্ব পালন করছিলাম। ঘটনার সময় আমি বাড়িউড়া বাজারে অবস্থান করছিলাম। সরাইল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. নূরুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমি নিজেই ঘটনাস্থল সরজমিন দেখতে যাচ্ছি। সন্ধ্যা ৭টার পর থেকেই সড়কে পুলিশ দায়িত্ব পালন করছে। ভুক্তভোগীকে লিখিত অভিযোগ করতে বলেছি।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.