সংবাদ শিরোনাম
বাঁচা মরা তো আল্লাহর হাতে:আমার স্ত্রীর অবস্থা খুবই খারাপ-মানবতার ফেরিওয়ালা মাকসুদুল  » «   এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল আজ  » «   কোমা থেকে জাগলেন করোনায় আক্রান্ত ব্রিটিশ পাইলট  » «   করোনা প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের আরও সম্পৃক্তির আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর  » «   লিবিয়ায় নিহতদের মরদেহ বাংলাদেশে আনা যাবে না  » «   জগন্নাথপুরে জিয়াউর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল  » «   সুনামগঞ্জে পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের হামলা আহত ২-থানায় অভিযোগ  » «   জগন্নাথপুরে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এক নারী চিকিৎসক  » «   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে করোনার নমুনা সংগ্রহের বুথ স্থাপন  » «   সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে ট্রলি চাপায় এক শিশুর মৃত্যু  » «   এবার ছেলের বাবা হলেন আশরাফুল  » «   মেসিকে কাটিয়ে সবচেয়ে বেশি আয় ফেদেরারের  » «   কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার জেরে যুক্তরাষ্ট্রে তুলকালাম  » «   কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা: অভিযুক্ত সেই পুলিশ কর্মকর্তাকে ডিভোর্স দিচ্ছেন স্ত্রী  » «   ছেলেকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা  » «  

স্বামীর সামনে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পালাক্রমে গণধর্ষণ

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::নোয়াখালীর সুধারাম মডেল থানার দক্ষিণ শুল্লকিয়ায় সিঁদ কেটে ঘরে ঢুকে স্বামীকে বেঁধে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে গণধর্ষণ করেছে সন্ত্রাসীরা। স্বামীকে মারধর করে ঘর থেকে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার লুট করে যাওয়ার সময় স্বামীর দায়ের কোপে এক ধর্ষক আহত হয়। নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের ৩নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন এক কন্যা সন্তানের জননী (৩০) ও তার স্বামী আবদুর রহিম জানান, প্রতিদিনের মতো বুধবার রাতেও তারা খাওয়া ধাওয়া শেষে মেয়েকে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত ৩টার দিকে খুব বৃষ্টি হচ্ছিল এ সময় তাদের ঘরের পূর্ব পার্শ্ব দিয়ে সিঁদ কেটে ৭-৮ জন সন্ত্রাসী প্রবেশ করে তাদের আটক করে ভিকটিমের নিকট থাকা গলার স্বর্ণের হার ও কানের দুল এবং ঘরে থাকা নগদ ৯০ হাজার টাকা ও ১টি মোবাইলফোন সেট নিয়ে ৩ জন স্বামী আবদুর রহিমকে অস্ত্রের মুখে পাশের রুমে আটক করে রাখে। পরে ৪ জন পালাক্রমে তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে গণধর্ষণ করে এবং যাওয়ার পূর্বে স্বামীকে বেদম প্রহার করে। এ সময় আবদুর রহিম উপায় না দেখে খাটের নিচে থেকে দা নিয়ে এক ধর্ষককে কুপিয়ে আহত করে। এরপর অন্য ৩ ধর্ষক আহতকে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাদের শোর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে তাদের উদ্ধার করে।

প্রতিবেশী সুলতান আহমদ জানান, সন্ত্রাসীরা পালানোর সময় তারা পশ্চিম শুল্লকিয়ার হদি মিয়ার ছেলে সুলতান আহমদকে আহত ও রক্তাক্ত অবস্থায় এবং একই গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে কামাল হোসেনকে পালিয়ে যেতে দেখেছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.