সংবাদ শিরোনাম
ওসমানীনগরের উমরপুর ইউনিয়নে ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্ঠার ঘটনায় মামলা  » «   শ্রীমঙ্গলে তিনটি দোকানে অভিযান চালিয়ে ৭ টন নিষিদ্ধ পলিথিন জব্দ  » «   সাংবাদিক পীর হাবিবের বিরুদ্ধে অপপ্রচারকারীদের শাস্তি দাবি  » «   জগন্নাথপুরের মিরপুর ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শেরীন বিজয়ী  » «   প্রধান শিক্ষককের কাছ থেকে চাঁদা দাবী ও প্রান নাশের হুমকি  » «   জগন্নাথপুরের মিরপুর ইউনিয়নে নৌকা প্রার্থী কাদিরের নির্বাচন বয়কট  » «   জগন্নাথপুরের মিরপুর ইউনিয়ন নির্বাচনে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ শুরু  » «   দিরাইয়ে ৫ বছরের এক শিশুকে নির্মমভাবে হত্যা  » «   সিলেট জেলায় শ্রেষ্ঠ হলেন গোয়াইনঘাট সার্কেলের এএসপিসহ ৪ পুলিশ কর্মকর্তা  » «   ক্রসফায়ারে হত্যার চেষ্টা.এতে ব্যর্থ হয়ে ডাকাতির মামলায় ঢুকান জকিগঞ্জের ওসি  » «   সুইসাইড নোট থেকেই জানা গেলো আত্মহত্যা করা পপি গণধর্ষণের শিকার  » «   সাংবাদিক মনোয়ারা মনু আর নেই  » «   আবরার ইস্যুতে বিবৃতি দেয়ায় জাতিসংঘ দূতকে তলব  » «   ২২ দিন কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ-ডা. দীপু মনি  » «   বৃটেনে প্রতারণার আশ্রয় নিতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন নাসরিন  » «  

সিলেটের কুমারগাঁও এলাকায় শিশুকে ধাক্কা দিয়ে নদীতে ফেলে দিলেন সৎমা

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::সিলেটের কুমারগাঁও এলাকায় সেতুর উপর থেকে এক শিশুকে ধাক্কা সুরমা নদীতে ফেলে দেয়েছেন  তার সৎমা। এ ঘটনায় সালমা বেগম নামের ওই নারীকে আটক করেছে পুলিশ। তবে নদী থেকে এখন পর্যন্ত শিশুটিকে উদ্ধার করা যায়নি।
শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে সেতু থেকে শিশুকন্যা মাহাকে নদীতে ফেলে দেন সালমা।

তবে বিকেলে জালালাবাদ থানা হাজতে আটক থাকা অবস্থায় সালমা বেগম দাবি করেছেন, তিনি মাহাকে নিয়ে সেতুর রেলিংয়ে বসেছিলেন। এসময় অসাবধনতাবশত: শিশুটি পড়ে যায়।

আটক সালমা বেগম (২৮) সিলেট মহানগরীর জালালাবাদ থানার ফতেহপুর গ্রামের জিয়াউল হকের স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় লোকজনের বরাত দিয়ে জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অকিল উদ্দিন আহমদ জানান, শুক্রবার দুপুরে সৎ মেয়ে মাহাকে নিয়ে স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়ি মীরেরগাওয়ে যাচ্ছিলেন সালমা বেগম। কুমারগাওয়ে সুরমা নদীর উপর নির্মিত সেতুর উপর আসার মেয়েকে নদীতে ফেলে দেন তিনি।

পরে জনতার সহায়তায় সালমাকে আটক করা হয়। আর ডুবুরিরা চেষ্টা চালিয়েও এখন পর্যন্ত শিশুটিকে উদ্ধার করতে পারেনি।

জানায় সালমার মামাতো বোন রাজনা বেগমের সাথে বিয়ে হয় ফতেহপুর গ্রামের জিয়াউল হকের। বনিবনা না হওয়ায় তাদের ডিভোর্স হয়। ওই দম্পত্তির সন্তান মাহা। রাজনাকে ডিভোর্সের পর সালমাকে বিয়ে করেন জিয়াউল হক। সালমা বেগমও দুই বছর বয়সী এক কন্যা সন্তানের জননী। মাহাও এই দম্পত্তির সাথে থাকতেন।

শুক্রবার নিজের সন্তানকে বাড়িতে রেখে সতীনের সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়ি রওয়ানা দেন সালমা। এরপর সেতুতে উঠে মেয়েটিকে নদীতে ফেলে দেন।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.