সংবাদ শিরোনাম
রিফাত হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার সত্যতা পাওয়ায় মিন্নি গ্রেপ্তার  » «   ৯০ দিনের মধ্যে এরশাদের আসনে উপনির্বাচন  » «   ১৬ জুয়াড়িকে জেলহাজতে প্রেরণ  » «   শ্রীমঙ্গলে পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘট স্থগিত  » «   দক্ষতা উন্নয়নে প্রতি উপজেলায় প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হবে  » «   রংপুরেই সমাহিত করা হলো এরশাদকে  » «   জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ লাইনে মিন্নি  » «   ভারতে মন্দিরের ভেতরে পুরোহিতসহ তিন জনের গলা কাটা দেহ, নরবলির আশঙ্কা  » «   নেপালে বন্যা ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৫  » «   ঘুষ লেনদেন প্রমাণিত  » «   নেতাকর্মীদের চাপের মুখে এরশাদের লাশ দাফনের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন  » «   আততায়ীর গুলিতে ফুটবলারের মৃত্যু  » «   এইচএসসির ফল প্রকাশ আগামীকাল  » «   উল্লাপাড়ায় বাড়ি ফেরার পথে ট্রেনের ধাক্কায় বর-কনেসহ মাইক্রোবাসের ৯ যাত্রী নিহত  » «   সিলেটের গোয়াইনঘাটে ডাকাত গ্রেপ্তার  » «  

ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবে জুন পর্যন্ত নিহত ৫৫৫

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::ভূমধ্যসাগরে আবারো অভিবাসীবাহী নৌকাডুবির ঘটনা। তিউনিসিয়ার উপকূলে নৌকাডুবে অন্তত ৮২ জনের প্রাণহানির আশঙ্কা করছে কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যেই ইতালীয় উপকূল থেকে ৫৪ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক শরণার্থী সংস্থার তথ্যমতে, চলতি বছরের জুন পর্যন্ত ভূমধ্যসাগরে ৫৫৫ জন মানুষের নৌকাডুবিতে মৃত্যু হয়েছে।
উত্তাল সাগর পাড়ি দিয়ে স্বপ্নের ইউরোপে যাওয়ার আশা ছিল সুলেইমানের। কিন্তু ছোট নৌকায় কোরে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে সাগরেই স্বপ্নের সমাধি ঘটে। আশ্রয়ক্যাম্পে বসে নিজের বেঁচে যাওয়ার ভয়ানক অভিজ্ঞতার বর্ণনা দিচ্ছিলেন মালির এক নাগরিক।
তিনি বলেন, আমাদের নৌকায় একটি ফুটো হয়ে পানি ঢুকে ডুবে যায়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আমরা চার জন বেঁচে আছি। আমাদের কাছে কোন খাবার না থাকায় ক্ষুধার্ত অবস্থায় সাগরে ভাসমান অবস্থায় তিউনিসিয়া উপকূলে প্রবেশ করি। পরে দেশটির উদ্ধারকর্মীরা আমাদের এই আশ্রয় শিবিরে নিয়ে আসেন।
তার মতো আরো ৮৬ জন অভিবাসন প্রত্যাশী ইউরোপে যাওয়ার উদ্দেশ্য সাগর পথ বেছে নেয়। কিন্তু বুধবার জার্জিস থেকে ৯ মাইল দূরে প্রায় তাদের বহনকারী নৌকাটি ডুবে যায়। এতে বেশিরভাগেরই প্রাণহানির আশঙ্কা করা হচ্ছে। চার জনকে জীবিত উদ্ধার করা হলেও চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজন মারা যান।
এর মধ্যেই বৃহস্পতিবার ভূমধ্যসাগরে ইতালীয় উপকূল থেকে ৫৪ অভিবাসন প্রত্যাশীকে উদ্ধার করা হয়েছে। সাগরে ভাসমান ছোট একটি নৌকা থেকে তাদের উদ্ধার করে ইতালির উদ্ধারকর্মীরা। এদের মধ্যে ১১জন নারী রয়েছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা।
উদ্ধারকর্মীরা জানান, আমরা তাদের একটি ছোট নৌকা থেকে উদ্ধার করি। লিবীয় কর্তৃপক্ষও এক্ষেত্রে সহযোগিতা করেছে। অনেকের শারিরীক অবস্থার খুবই খারাপ। আমরা যথাসাধ্য চিকিৎসা দেয়ার চেষ্টা করছি।
গত মে মাসে জার্জিস উপকূলে নৌকা ডুবে ৩৭ বাংলাদেশিসহ অন্তত ৬৫ জনের মৃত্যু হয়। আন্তর্জাতিক শরণার্থী সংস্থার তথ্য মতে, চলতি বছরের জুন পর্যন্ত ৫’শ ৫৫ জন অভিবাসন প্রত্যাশী ভূমধ্যসাগরে নৌকা ডুবিতে মারা যান। আর ২০১৬ থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৩ হাজার অভিবাসন প্রত্যাশীর প্রাণহানি ঘটে।
ইউরোপে উন্নত জীবন যাপনের আশায় উত্তাল সাগর পাড়ি দিতে গিয়ে অকালে প্রাণ ঝরছে বহু অভিবাসন প্রত্যাশীর। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অবৈধ এই তৎপরতা রোধে, নজরদারি জোরদারসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় নানা পদক্ষেপ নিলেও, কিছুতেই থামছে না মৃত্যুর মিছিল। এ অবস্থায় সচেতনতার পাশাপাশি মানবপাচার রোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার তাগিদ সংশ্লিষ্টদের।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.