সংবাদ শিরোনাম
সাঁতার না জানায় হবিগঞ্জ পুলিশলাইনের পুকুরে মিলল কনস্টেবলের লাশ  » «   কেরানীগঞ্জে ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪-আহত ৩  » «   সিলেটের মেয়ে ঢাকায় এসে অসহায় হয়ে কান্নাকাটি করছে:খোঁজ মিলছেনা পরিবারের  » «   বাংলাদেশ-পাকিস্তানের গোপন চুক্তি ফাঁস করলেন শোয়েব!  » «   সমুদ্রসৈকতে মালয়েশিয়াগামী ২৩ রোহিঙ্গা উদ্ধার  » «   নগরীর চৌহাট্টায় অবৈধ হকার উচ্ছেদের অভিযানে মেয়র  » «   আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত যানবাহনের কাগজপত্র জরিমানা ছাড়া করার সুযোগ  » «   বড়লেখায় স্ত্রী, শাশুড়িসহ দুই প্রতিবেশীকে কুপিয়ে হত্যা:পরিদর্শন করলেন ডিআইজি কামরুল আহসান  » «   র‌্যাবের খাঁচায় বন্দী সিলেট জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মকসুদ  » «   ছাতকের ভাতগাও ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি গঠন  » «   দুই দশক আগে সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলা : ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ড  » «   এসএসসি পরীক্ষার সংশোধিত রুটিন প্রকাশ  » «   টিলাগড় থেকে ইয়াবাসহ ছাত্রলীগ কর্মীসহ আটক ২  » «   ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে আত্মশুদ্ধি ও গুনাহ মাফের ফরিয়াদ  » «   ভারতের মাঠে স্টিভ স্মিথের অনবদ্য সেঞ্চুরি  » «  

বসের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ, অতঃপর…

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::বসের যৌন হয়রানির বিষয় প্রকাশ করে উল্টো ফেঁসে গেলেন ইন্দোনেশিয়ার এক নারী বাইক নুরিল মাকনুন। আদালত তাকেই জেল ও জরিমানা করেছে। এই রায়ের বিরুদ্ধে তিনি আপিল করেছিলেন। তাতেও হেরে গেছেন। বৃহস্পতিবার তার আপিল প্রত্যাখ্যান করে আদালত। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

এতে বলা হয়েছে, তার বস লোমবাক দ্বীপের মাতারাকের একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষক। মাকনুন তার কাছ থেকে যৌন হয়রানিমুলক ফোন পাওয়ার অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে আদালতের মুখপাত্র আবদুল্লাহ বলেছেন, তার আপিল খারিজ হয়েছে। কারণ, তিনি যে অপরাধ করেছেন তা আইনগতভাবে এবং বিশ্বাসযোগ্যভাবে প্রমাণিত হয়েছে। উল্লেখ্য, মাকনুনের এ মামলাটি ২০১২ সালের। ওই সময় তিনি ওই স্কুলে চাকরি করতেন। তখন আরেকজন সহকর্মীর সঙ্গে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের প্রেমঘটিত সম্পর্ক নিয়ে রগরগে যৌনতা নিয়ে তার সঙ্গে আলোচনা হয়েছে মাকনুনের। এতে উঠে এসেছে ওই সম্পর্কের বিস্তারিত বিষয়। প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে এ কথোপকথন তিনি রেকর্ড করেছেন। প্রথমে এ অভিযোগ থেকে মাকনুনকে দায়মুক্তি দেয় স্থানীয় একটি আদালত। কিন্তু দেশটির শীর্ষ আদালত এই রায়কে পর্যালোচনা করেন। তাতে ইলেক্ট্রনিক তথ্য আইন তিনি লঙ্ঘন করেছেন বলে মাকনুনকে দোষী করা হয়।

ওদিকে বৃহস্পতিবার আইনী লড়াইয়ে হেরে যাওয়ার পর মাকনুনের আইনজীবী জোকো জুমাদি বলেছেন, সর্বশেষ রায়ে তার মক্কেল হতাশ। তবু তিনি লড়াই বন্ধ করবেন না। কারণ, তিনি যদি লড়াই বন্ধ করেন তাহলে অন্য যারা এমন যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছেন তাদের কথা বলার সাহস থাকবে না। আইনজীবী আরো বলেন, আমরা আইনি সব ব্যবস্থা অনুসরণ করবো। এখন এ বিষয়ে আমরা প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো’র দ্বারস্থ হবো।

উল্লেখ্য, গত নভেম্বরে মাকনুনের মামলার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট উইদোদো। তিনি বলেছেন, যদি সুপ্রিম কোর্টে তার আপিল প্রত্যাখ্যান করেন তাহলে মাকনুনের উচিত হবে ক্ষমাপ্রার্থনা করা। এর মধ্য দিয়ে তিনি প্রেসিডেন্টের কাছে ক্ষমা প্রার্থনার কথা বুঝিয়েছেন। ওদিকে মাকনুনের শাস্তির বিষয়ে নিন্দা জানিয়েছে মানবাধিকার বিষয়ক গ্রুপগুলো।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.