সংবাদ শিরোনাম
সিলেট জেলা ও মহানগর আ.লীগের কমিটি গঠন: সভাপতি সম্পাদক হলেন যারা  » «   ভারতে পিয়াজের দামে রেকর্ড  » «   রোববার থেকে সারাদেশের বারে আইনজীবীদের অবস্থান  » «   আপিল বিভাগে নজিরবিহীন বিক্ষোভ (ভিডিও)  » «   প্রেসিডেন্ট নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন কমলা হারিস  » «   গুগল থেকে পদত্যাগ করছেন লেরি পেজ ও সার্জেই ব্রিন  » «   তালা ভেঙে কক্ষে নুর  » «   প্রস্তুত হয়নি খালেদার মেডিকেল রিপোর্ট  » «   আমি জীবন ভিক্ষা চাই ,সৌদি থেকে লইয়া যাও-শ্রীমঙ্গলের মরিয়ম  » «   কিংবদন্তি ক্রিকেটার বব উইলিস আর নেই  » «   ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা ৬ ও ৭ই ডিসেম্বর  » «   আজ খুলবে জাবি  » «   জলবায়ু পরিবর্তন: বাংলাদেশের নতুন কণ্ঠস্বর শবনম  » «   খালেদা কারাগারে আছেন রাজার হালে-প্রধানমন্ত্রী  » «   বাহুবলে ঘুষ গ্রহণের দায়ে ইউপি সদস্যসহ দুই নারীর কারাদণ্ড  » «  

প্রতারণার শিকার হয়ে ফোনকল বন্ধ হলে কি করবেন?

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনভিত্তিক অর্থ আদান প্রদানের পরিষেবা ‘বিকাশ’ এর নাম করে প্রতারণার শিকার হতে হয় গ্রাহকদের। সম্প্রতি বিকাশের নাম ভাঙিয়ে নতুন ফাঁদ পেতে বসেছে একটি অসাধু চক্র। মানুষের না জানার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে তারা। 
অবৈধ আর্থিক লেনদেন রোধে সমস্ত ‘পার্সোনাল বিকাশ অ্যাকাউন্ট’ বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে, অ্যাকাউন্টে কোন টাকা থাকলেও গ্রাহক আর তা তুলতে পারবেন না, এমন তথ্য দিয়ে ওই প্রতারক চক্রটি গ্রাহককে বিভ্রান্ত করে পিনকোড হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছে। এই প্রক্রিয়ার প্রথম ধাপেই তারা একটি বা দুটি কোড ডায়াল করতে গ্রাহককে উৎসাহিত করে, যেগুলো ডায়াল করলে মূলত গ্রাহকের সিম থেকে আউটগোয়িং ও ইনকামিং কল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে গ্রাহক তাদের কথাকেই সত্যি বলে ধরে নেন এবং ভয়ে নিজের পিনকোড দিয়ে দেন।
এইসব প্রতারণা থেকে বাঁচতে বিকাশ কর্তৃপক্ষ ৪টি সতর্কতামূলক বার্তা দিয়েছেন। এসব অনুসরণ করলে প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।
১. নিজের বিকাশ একাউন্টের পিন নম্বর ও একাউন্ট ব্যালান্স কখনো কাউকে বলবেন না। এমনকি +16247 বা এই ধরনের নম্বর থেকে ফোন করলেও পিন নম্বর কিংবা পিন নম্বরের যোগফলও বলা যাবে না।
২. ফোনে কেউ যদি আপনাকে ভুল করে টাকা পাঠানোর কথা বলে ফেরত চায়, আগে একাউন্ট ব্যালান্স চেক করুন।
৩. কারো প্ররোচনায় লটারি জেতার মিথ্যা আশায় কোনো লেনদেন করবেন না।
৪. ফোনে শুধু কারো কথা শুনে পরিচয় নিশ্চিত না হয়ে কারো নির্দেশনায় কোনো নম্বর বা কোড ডায়াল করবেন না বা টাকা পাঠাবেন না।
বিকাশ কাস্টমার কেয়ার থেকে জানানো হয়, এই ধরনের কোনো পরিস্থিতির মুখোমুখি হলে যতদ্রুত সম্ভব 16247 কল করে বা ফ্রড ম্যানেজমেন্ট টিমকে support@bkash.com এ ইমেইল করে রিপোর্ট করুন।
গ্রামীণফোনের কাস্টমার কেয়ার থেকে জানানো হয়েছে, *33*000# কোড নম্বর ডায়াল করা হলে সিমের আউট গোয়িং কল বন্ধ হয়ে যায়। আর *35*0000# ডায়াল করলে ইনকামিং কল বন্ধ হয়ে যায়।
সিমের আউট গোয়িং বন্ধ হয়ে গেলে #33*0000# ডায়াল করলে আবারো সিমের লক খুলে যাবে। একইভাবে #35*0000# ডায়াল করলে আবারো ইনকামিং কল করা যাবে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.