সংবাদ শিরোনাম
ছাতকে গলায় ফাঁস লাগিয়ে যুবতীর আত্মহত্যা  » «   জৈন্তাপুর থেকে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক  » «   কানাইঘাটে শিশু ধর্ষণের চেষ্টায় ইমাম গ্রেপ্তার  » «   সুনামগঞ্জে নদী থেকে নিখোঁজ যুবকের লাশ উদ্ধার  » «   হুজুরের বেশ ধারণ করে ধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেপ্তার করেছে জৈন্তাপুর থানা পুলিশ  » «   বড়লেখায় ভারতীয় মদসহ একজন গ্রেপ্তার  » «   পিকনিক করতে এসে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে দুর্ঘটনায় ৩ শিক্ষার্থীসহ নিহত ৪  » «   নগরীর চারাদিঘীর পাড় ঘুড়ি উড়াতে গিয়ে প্রাণ হারালেন পুলিশ কর্মকর্তা  » «   সিলেটে কখন কোথায় ঈদের জামাত-ঈদগাহ মাঠ থেকে দূরে পার্কিং করে রাখার নির্দেশ  » «   কুলাউড়ায় বড় ভাইয়ের দায়ের কোপে ছোট ভাই রাজিব খুন  » «   অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি লুৎফুর রহমানের ঈদ শুভেচ্ছা  » «   এরশাদের কুলখানি সিলেটে ২৩ আগস্ট  » «   বিশ্বনাথে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে মেয়েকে ধর্ষণ ‘মায়ের পরকিয়া প্রেমিকের’!  » «   মাধবপুরের নয়াপাড়া এলাকা থেকে ডাকাতদলের সদস্য গ্রেপ্তার  » «   এলাচের কেজি ৩০০০ টাকা  » «  

কথাকাটাকাটির জেরে সহপাঠিদের হাতে খুন : আদালতে স্বীকারোক্তি

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::দলবল নিয়ে কাঠের রোল, লাটি, রড ও ধারালো ছুরি দিয়ে খুন করা হয় তুহিনকে। এমনই তথ্য দিয়ে  সিলেটের দক্ষিণ সুরমার আলমপুরের কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের শিক্ষার্থী তানভির হোসেন তুহিন (১৮) হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক  জবানবন্দি দিয়েছে পুলিশের হাতে গ্রেফতারকৃত আবু তায়েফ (১৮)। বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে তায়েফকে সিলেট মহানগর আমলী ৫ নং আদালতের বিচারক সাইফুর রহমানের অদালতে এ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে তায়েফ।

দুপুর ১২ টায় তাকে আদালতে হাজির করলে সে হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি প্রদান করে বলে জানান মোগলাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আখতার হোসেন। এরপর তায়েফকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

এর আগে বুধবার রাতেই দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কদমতলী এলাকার আব্দুল আলিমের ছেলে আবু তায়েফকে আটক করে পুলিশ। ওই রাতেই নিহত তুহিনের চাচা নাজিম উদ্দিন বাদী হয়ে তায়েফসহ ১০ জনকে আসামী করে মামলা করেন। ওই মামলায় তায়েফকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ। বুধবার দুপুরে কথাকাটাকাটির জেরে সহপাঠিদের হাতে খুন হন তানভীর হোসেন তায়েফ।

 

জানা যায়, বুধবার সকালে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের একটি কোর্সের শিক্ষার্থী তুহিনের জুতা ক্লাসের সামনে থেকে হারিয়ে যায়। এনিয়ে সহপাঠী কামরানের সাথে তর্কতর্কি হয় তার। তর্কাতর্কির জেরে দুপুরে দলবল নিয়ে এসে তুহিনকে মারধর করে কামরান।

 

এসময় কাঠের টুকরো দিয়ে তুহিনের মাথায় আঘাত করে তারা। আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি ঘটলে দুপুরে তাকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। বিকেলে ঢাকায় যাওয়ার পথে সে মারা যায়। তুহিন গোলাপগঞ্জ উপজেলার হেতিমগঞ্জের কোনাচর দক্ষিণভাগ পলিকাপন গ্রামের মানিক মিয়ার পুত্র। এ ঘটনায় বুধবার রাতেই নিহতের চাচা নাজিম উদ্দিন বাদী হয়ে কামরান, আবু তায়েফসহ ১০ জনের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

ওসি আখতার হোসেন জানান, মামলার অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.