সংবাদ শিরোনাম
৭৫ বছর বয়সে কন্যা সন্তানের মা হলেন ভারতীয় নারী  » «   দিরাইয়ে তুহিন হত্যাকাণ্ড: ১০ জনকে আসামি করে মামলা  » «   শায়েস্তাগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত নিহত  » «   রোনালদোর ইতিহাসগড়া ম্যাচে পর্তুগালের হার  » «   সুন্দরবনে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৪ বনদস্যু নিহত  » «   মেক্সিকোতে অস্ত্রধারীদের গুলিতে নিহত ১৩ পুলিশ  » «   ধামরাইয়ে চার শিশুকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ  » «   টাঙ্গাইলে মা ও মেয়েকে গলাকেটে হত্যা, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার  » «   নবীগঞ্জে কর্মরত সাংবাদিকদের মতবিনিময়  » «   ফেঞ্চুগঞ্জে শাহজালাল সার কারখানায় চুরির অভিযোগে গ্রেফতার ২ কর্মকর্তা  » «   জকিগঞ্জে নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে টমটম থেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষন  » «   নগরীর শামীমাবাদ থেকে কুখ্যাত ‘ডাকাত’ জয়নাল গ্রেপ্তার  » «   মাধবপুর নয়াপাড়া ইউনিয়ন নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী জাবেদ বিজয়ী  » «   নবীগঞ্জের দেবপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে নৌকা প্রতীক বিজয়ী  » «   হবিগঞ্জে দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে নিহত ১  » «  

প্রবাসে নারীর নরক যন্ত্রণা: বিউটির পায়ে শিকল, পারুল পাগল

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::স্বপ্নের প্রবাসে ভালো নেই আমাদের নারী শ্রমিকেরা। বিশেষ করে মধ্যপ্রাচ্যে নারীরা আছেন নরক যন্ত্রণায়। তবে প্রবাসে কত নারী কর্মী গেলেন সেই সংখ্যাটা পাওয়া গেলেও নিঃস্ব ও রিক্ত হাতে ফিরলেন ক’জন সেই সংখ্যা কখনোই জানা যায় না সঠিকভাবে।
আপন মনে কী যেনো পড়ছেন মানিকগঞ্জের বিউটি আক্তার। দূর থেকে দেখে তাকে মনোযোগী পাঠক মনে হতে পারে, কিন্তু প্রবাস জীবন মানসিক ভারসাম্যহীন করে ফেলেছে বিউটিকে।
ভাগ্য বদলের আশায় ক’বছর আগে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ জর্ডানে গৃহকর্মীর কাজে গিয়েছিলেন তিনি। আগে যিনি ছিলেন সুস্থ, ফেরার পর তাকে লোহার শিকলে বেঁধে রাখতে বাধ্য হচ্ছে পরিবার।
বিদেশ যাবার আগে সুস্থ বিউটি কেনো মানসিক ভারসাম্য হারালেন তা নিয়ে যেমন মাথাব্যথা নেই সরকারের, তেমনি রেমিটেন্স যোদ্ধা বিউটির চিকিৎসায় এগিয়ে আসেনি সরকারের কোনো সংস্থাও।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির জন্য রেমিটেন্স অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ তবে তা নিশ্চয়ই মানবাধিকার লঙ্ঘন করে নয়, তাই রাষ্ট্র যেন এইসব মানুষকে রেমিটেন্স মেশিন না মনে করে।
বিউটির স্বজনরা বলছেন, পাগলের সঙ্গে থেকে আমাদের খুব খারাপ লাগে। আর বিউটি বলছেন, যার পায়ে শিকল থাকে সে কী ভালো থাকতে পারে?
মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরেই এমন ঘটনা আরো আছে। সুদিনের আশায় বিউটির মতো গত বছর সৌদি আরবে গিয়েছিলেন পারুলও। ফিরেছেন মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে। পরিবারের দাবি অমানুষিক নির্যাতনের কারণেই পারুলের আজ এই দশা।
পারুল বলেন, স্বামীর সঙ্গে যখন কথা বলি তখন আমার মাথায় আঘাত করেছিল। এক মহিলা এই আঘাত করে।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গৃহকর্মীর কাজ নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে যাওয়া নারীদের বেশিরভাগই নির্যাতনের শিকার। তার উপর একটি ঘটনাতেও বিচারের বা ক্ষতিপূরণ আদায়ের নজির নেই।
ব্রাকের অভিবাসন কর্মসূচির প্রধান শরিফুল হাসান বলেন, আমরা এখনো পর্যন্ত এমন নির্যাতনকারী কারো দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হতে দেখিনি।
কর্তৃপক্ষের মতে গৃহকর্মীর কাজে যাওয়া বিপুল সংখ্যক নারীকর্মীর সকলের খোঁজখবর নেওয়া কষ্টসাধ্য।
প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব রৌনক জাহান বলেন, আমাদের প্রেক্ষাপটে বিদেশে গৃহকর্মীদের নিরাপত্তা দেয়া সম্ভব নয়।
১৯৯১ সাল থেকে চলতি বছর পর্যন্ত বিভিন্ন দেশে নারী কর্মী গেছেন প্রায় সোয়া ৮ লাখ। অনেকেরই মত, গত ৩ বছরে নির্যাতনের শিকার হয়ে দেশে ফিরেছেন অন্তত ৮ হাজার নারী শ্রমিক।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.