সংবাদ শিরোনাম
চুনারুঘাটের অপকর্মের হোতা দুলন গ্রেপ্তার  » «   তিনতলা থেকে নিচে পড়েও বেঁচে গেলো শিশু  » «   ব্রাজিলে ভবন ধস, নিহত ৯  » «   আবারো চালু হলো ‘পাবজি’ গেম  » «   ঢাবির ‘ক’ ইউনিটের ফল স্থগিত  » «   ওমর ফারুককে যুবলীগ চেয়ারম্যান পদ থেকে অব্যাহতি  » «   আওয়ামী লীগ নেতার বাড়ি থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার  » «   ফেসবুকে মহানবী (সা.)-কে কটূক্তি :ভোলায় পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে নিহত ৪, গুলিবিদ্ধ ৯  » «   জুড়ীতে বৈদ্যুতিক অগ্নিকাণ্ডে ব্যবসায়ীর মৃত্যু  » «   কমলগঞ্জে পুকুরে ডুবে শিশুর মৃত্যু  » «   মাধবপুরে ১৯ কেজি গাঁজা উদ্ধার  » «   দক্ষিণ সুরমায় ৪শ গ্রাম গাঁজাসহ নারী মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার  » «   কুলাউড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১  » «   জুড়ীতে কবর থেকে লাশ উত্তোলন  » «   কোম্পানীগঞ্জে মহিষের আঘাতে যুবকের মৃত্যু  » «  

জগন্নাথপুরে এক পরিবারের জন্য ২১ লাখ টাকার ব্রিজ অবশেষে সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় আওয়ামী লীগ নেতার বাড়ির জন্য সরকারি টাকায় ২১ লাখ টাকা ব্রিজ অনুমোদনের ঘটনায় তোলপাড় চলছে। এ নিয়ে এলাকাবাসী বিক্ষুব্ধ হয়ে স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে স্মারকলিপি দিয়েছেন। এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে ওই ব্রিজটি জনস্বার্থে অন্যত্র স্থানান্তরের সিদ্বান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। উপজেলার সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নের হাঁড়িকোনা গ্রামের বাসিন্দা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মনোয়ার আলীর বাড়ির সামনে তার নিজ বাড়ির জন্য একটি সেতু নির্মাণের জন্য অনুমোদন পান। চলতি অর্থ বছরে তাদের বাড়িসহ জগন্নাথপুর উপজেলায় ১০ টি সেতু নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। গত ২রা জুলাই লটারির মাধ্যমে সেতুগুলোর ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়। ১০ টি সেতুর মধ্যে সৈয়দপুর হাঁড়িকোনা রত্নাখালের ওপর সৈয়দ মনোয়ার আলীর বাড়ির সামনে ২১ লাখ ১৭ হাজার ৯৯১ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে ২৪ ফুট দৈর্ঘ্যর সেতু নির্মাণ প্রকল্প রয়েছে। এ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন- জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের সহকারী প্রকৌশলী সাইফ উদ্দিন সৈয়দপুর থেকে শিবগঞ্জ রাস্তার সংযোগ সেতুর প্রকল্প বাদ দিয়ে আওয়ামী লীগ নেতার বাড়ির জন্য আর্থিক লেনদেনের মাধ্যমে সেতু নির্মাণের প্রকল্প অনুমোদন করিয়ে দেন। স্থানীয় জেলা পরিষদের সদস্য  সাবির মিয়া জানিয়েছেন- এলাকার মানুষের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইউএনও প্রকল্পটি স্থানান্তরের সিদ্বান্ত নিয়েছে আমরা আনন্দিত। এতে করে এলাকার মানুষ উপকৃত হবে। সাবেক ইউপি মেম্বার জিতু মিয়া জানিয়েছেন- এলাকার মানুষের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিলে আমরা ইউএনও মহোদয়কে লিখিতভাবে বিষয়টি জানিয়েছি। এবং সিদ্ধান্ত পরিবর্তনেরও দাবি জানিয়েছি। সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মনোয়ার আলী সাংবাদিকদের জানান-  সরকার নীতিমালা অনুসরণ করে আমাকে ব্রিজ নির্মাণের অনুমোদন দিয়েছে। কিছু মানুষ প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে। যা মোটেও সত্য নয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম মাসুম মানবজমিনকে জানিয়েছেন- এলাকাবাসীর পক্ষে এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এরপর সেটির তদন্ত হয়েছে। জনস্বার্থে আমরা ব্রিজটি অন্যত্র করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.