সংবাদ শিরোনাম
টাকার অভাবে মেডিকেলে ভর্তি অনিশ্চিত রিকশাচালকের মেয়ে পান্নার  » «   বাবরি মসজিদের উপর রাম মন্দির নির্মাণের ঘোষণা!  » «   কবর থেকে বেরিয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে কন্যাশিশু!  » «   মদিনাতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩৫  » «   প্রধানমন্ত্রী যুবলীগের বিষয়ে নির্দেশনা দিবেন রবিবার  » «   কুবির বঙ্গবন্ধু হল থেকে গাঁজা সেবনকালে ছাত্রলীগের ২ নেতাসহ আটক ৩  » «   বিশ্ব এ্যানেসথেশিয়া ও মেরুদণ্ড দিবস পালন  » «   রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   আওয়ামীলীগ মাঠ থেকে পালিয়ে যাবার দল নয় : মোহাম্মদ নাসিম  » «   নগরীর সোবহানীঘাট এলাকা থেকে গাড়ী ভর্তি ভারতীয় সুপারীসহ আটক ১  » «   লন্ডনে সাংবাদিক শফিকুলকে ফার্মল্যান্ড ফুড এন্ড এগ্রো ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেডের সংবর্ধনা  » «   দক্ষিণ সুরমা থেকে ইয়াবাসহ ব্যবসায়ী আটক  » «   নগরীর ঘাসিটুলা সবুজ সেনা থেকে ৪ জুয়াড়ি গ্রেফতার  » «   মোগলাবাজারে বৈদ্যুতিক পোল চুরিকালে সাত জন আটক  » «   পপি আত্মহত্যা: প্ররোচরনা আইনে মামলায় দুলাভাই গ্রেপ্তার  » «  

সাতক্ষীরার মাদ্রাসা শিক্ষকের কাণ্ড

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::সাতক্ষীরার আশাশুনিতে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ ওঠেছে মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে ও মেয়েটির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, অষ্টম শ্রেণির ওই ছাত্রী বড়দল দারুসসুন্নাহ আলিম মাদ্রাসার শিক্ষক আনারুল ইসলামের কাছে প্রাইভেট পড়তো। প্রতিদিন রাত ৯ টার সময় পড়া শেষ হলে ছাত্রীর মা তাকে বাড়িতে নিয়ে যেতো।

কিন্তু গত রোববার রাত ৮টার দিকে পড়ানো শেষ করে দেন প্রাইভেট শিক্ষক। পরে মেয়েটিকে বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে সঙ্গে করে ছাত্রীর বাড়ির দিকে রওয়ানা দেন। পথিমধ্যে কিছুদূর যেতে না যেতেই শিক্ষক তাকে জাপটে ধরে। তার ‘স্পর্শকাতর’ স্থানগুলোতে স্পর্শ করে।

এলোপাতাড়ি চুমু দিতে দিতে সেলোয়ার খুলে ফেলার একপর্যায়ে মেয়েটি ডাক চিৎকার দিতে দিতে অজ্ঞান হয়ে পড়ে।

এদিকে ডাক-চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে। পরে জ্ঞান ফিরলে মেয়েটি কাঁদতে কাঁদতে শিক্ষকের জঘন্য কর্মকাণ্ডের কথা বিস্তারিত জানায়।

একাধিক প্রতিবেশী মাদ্রসা শিক্ষক আনারুল ইসলাম সম্পর্কে জানান, পূর্বে একাধিক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি বা ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত শিক্ষক আনারুল ইসলামের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়।

পরবর্তীতে দারুসসুন্নাহ আলিম মাদ্রাসায়  খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে তিনি ছুটিতে আছেন। এ ব্যাপরে আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবদুস সালাম জানান, ওই ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে এসআই হাসানুজ্জামানকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.