সংবাদ শিরোনাম
সিলেট নগরী ,বড়লেখা ও বিয়ানীবাজার থেকে র‍্যাবের অভিযানে গ্রেপ্তার ৩  » «   তাহিরপুরে ইয়াবাসহ র‍্যাবের কাচাঁয় আটক এক  » «   মাধবপুরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে যুবকের ‘আত্মহত্যা’  » «   গাঁজাসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে মোগলাবাজার থানা পুলিশ  » «   বাবরি মসজিদ কি অবৈধ?’ প্রশ্ন তুললেন ওয়াইসি  » «   নিজের অপসারণ নিয়ে মুখ খুললেন ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ  » «   চীনে মুসলিম পুরুষরা আ’ট’ক, তাদের স্ত্রীরা যৌ’নদা’সী।  » «   মুসলিমদের ৫ একর জমি দেওয়া হল কেন: প্রশ্ন তসলিমার  » «   ভারতে গরুর কাঁচা গোবর ছোঁড়াছুড়ির উৎসব  » «   মোদিকে নিইয়ে সমালোচনা করে ভারতীয় নাগরিকত্ব হারালেন সাংবাদিক  » «   বুলবুল আসার সাথেই ঘর জুড়ে এলো বুলবুলি  » «   ১ স্ত্রী’কে নিয়ে ২ স্বা’মীর টা’নাটানি  » «   সব মুসলমানদের মসজিদের জন্যও লড়তে হবে: এমপি ওয়াইসি  » «   লিটন সৌম্য আমাকে হতাশ করেছে, বললেন পাপন  » «   কেটে গেছে বিপদ, সমূদ্রবন্দরগুলো থেকে সংকেত প্রত্যাহার  » «  

দিরাইয়ে তুহিন হত্যাকাণ্ড: ১০ জনকে আসামি করে মামলা

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে তুহিন হাসান (৫) হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মামলা হয়েছে। তার মা বাদী হয়ে মঙ্গলবার ভোরে ১০ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। তবে যাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে তাদের নাম জানা যায়নি। ওসি আবু তাহের মোল্লা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের গচিয়া কেজাউড়া গ্রামের পাঁচ বছরের শিশু তুহিনকে রবিবার (১৩ অক্টোবর) রাতে ঘর থেকে তুলে নিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। সোমবার সকাল ১০টার দিকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সে একই এলাকার বছির মিয়ার ছেলে। ঘাতকরা তার লাশ রাস্তার পাশের একটি গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে। এ সময় তুহিনের শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত ছিল। তার পেটে দুটি ছুরি ঢোকানো ছিল, দুটি কান কাটা, এমনকি যৌনাঙ্গটিও কেটে ফেলা হয়।

তুহিনের স্বজনরা জানান, রবিবার রাতে প্রতিদিনের মতো খাবার খেয়ে পরিবারের সবাই ঘুমিয়ে পড়েন। রাত ১২টার দিকে শিশু তুহিন প্রকৃতির ডাকে উঠলে তার মা বাহিরে নিয়ে যান। এর পর তাকে এনে আবার ঘুম পাড়িয়ে দেন। রাত ৩টার দিকে মা-বাবা জেগে দেখেন তুহিন ঘরে নেই। পরে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। একপর্যায়ে বাড়ির পাশে সুফিয়ান মোল্লার উঠানে মসজিদের পাশে কদমগাছে ঝুলন্ত অবস্থায় তুহিনের গলাকাটা লাশ দেখতে পান।

খবর পেয়ে সোমবার সকালে জেলা পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান পিপিএম, সিআইডি ও ডিবি পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের বাবা আব্দুল বাছির, ও তার তিন চাচা মাওলানা আব্দুল মোছাব্বির, জমসেদ মিয়া, নাছির, জাকিরুল, চাচি খয়রুন বেগম এবং চাচাতো বোন তানিয়াকে থানায় নিয়ে আসা হয়।

এদের মধ্যে কয়েকজন এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। সুরতহালে যাদের নাম রয়েছে তাদের বিষয়টিও নজরে আছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.