সংবাদ শিরোনাম
জগন্নাথপুরে বিদুৎস্পৃষ্টে এক ব্যক্তির মৃত্যু  » «   প্রথমে ভুয়া সেনাবাহিনীর লোক পরিচয়ে জেল:এবার ইনাতগঞ্জে সিআইডি পরিচয়ে আটক  » «   গোলাপগঞ্জে ঘরের মধ্যে একটি বিষধর সাপের কামড়ে শিশুর মৃত্যু  » «   সৎ ও সুন্দর ভাবে ব্যবসা করলে জীবনে প্রতিষ্ঠাপাওয়া সম্ভব-মেয়র আরিফ   » «   জঙ্গিদের টার্গেট ছিল হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার  » «   সিলেটে জঙ্গিদের ট্রেনিং সেন্টার সহ দুটি বাসায় অভিযান, বোমা তৈরীর সরঞ্জাম উদ্ধার  » «   নগরীর মদিনা মার্কেট এলাকা থেকে ৪ অপহরণ ও চাঁদাবাজকারী আটক  » «   সুনামগঞ্জের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আলাদা একটা দৃষ্টি আছে -পানি মন্ত্রনালয়ের সচিব   » «   জগন্নাথপুরে পুলিশ সদস্য সহ আরোও তিনজন করোনায় আক্রান্ত: মোট আক্রান্ত ১১৯  » «   জগন্নাথপুরে দুর্ধর্ষ চুরি নগদ ৬লক্ষ টাকা সহ ৪ভরি সোনা নিয়ে গেছে চোরেরা  » «   জগন্নাথপুরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কাপড়ের দোকানে ঢুকে পড়ল ট্রলি  » «   গোলাপগঞ্জে গাঁজাসহ এক তরুণীকে আটক  » «   নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিন আজ শেষ দিন:আগামী কাল থেকে বন্ধ  » «   এক অপরাধীর পরিবর্তে টাকার বিনিময়ে কারাগারে আরেক আসামী  » «   জগন্নাথপুরে সাজাপ্রাপ্ত আসামীসহ গ্রেফতার-৬  » «  

কবর থেকে বেরিয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে কন্যাশিশু!

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::ভারতের উত্তর প্রদেশের বরেলি জেলায় কবর থেকে জীবিত উদ্ধার হয়েছে একটি কন্যাশিশু। এখনও সে বেঁচে আছে। তবে শিশুটির অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসারত​ ডাক্তার।

শিশু বিশেষজ্ঞ রবি খান্না জানিয়েছেন, শিশুটিকে নিবির পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে। সে সেপটিসেমিয়া রোগে আক্রান্ত। তাছাড়া রক্তে প্ল্যাটলেটের সংখ্যা ১০ হাজারের নিচে নেমে গেছে যেখানে এর স্বাভবিক সংখ্যা দেড় লাখ থেকে সাড়ে চার লাখ। তার বাঁচার সম্ভাবনা আছে, তবে আরও পাঁচ থেকে সাত দিন নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখার পর এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

এভাবে কবর দেওয়ার কারণ সম্পর্কে পুলিশ এখনও নিশ্চিত নয়। তবে বরেলি জেলা পুলিশ কর্মকর্তা অভিনন্দন সিং বিবিসিকে বলেন, কবর দেওয়ার পেছনে নবজাতকটির বাবা-মা জড়িত থাকতে পারে। কারণ ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর এখন পর্যন্ত কেউ শিশুটির পিতৃত্ব দাবি করে নি। পুলিশ এ ঘটনায় অজ্ঞাত কয়েকজন ব্যাক্তিকে আসামী করে মামলা করেছে এবং শিশুর বাবা-মাকে খুঁজছে বলেও জানান তিনি।

গত বৃহস্পতিবার হিতেশ কুমার শিহারী নামের ব্যক্তি নিজের সদ্যোজ্যাত মৃত কন্যার কবর খুঁড়তে গিয়ে মাটির নিচ থেকে মেয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান। ঘটনাটি ইতিমধ্যে সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে তোলপাড় সৃষ্টি করেছে।

উল্লেখ্য, ভারতে এখনও অনেক এলাকায় লিঙ্গ বৈষম্য বিদ্যমান। দরিদ্রতার কারণে এখনও অনেক পরিবার কন্যা সন্তানকে পরিবারের বোঝা মনে করে। ফলে ভ্রুণ হত্যা, জন্মের পর হত্যা কিংবা মাটিতে পুঁতে ফেলার মত ঘটনা এখনও দেখা যায়।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.