সংবাদ শিরোনাম
নাটকীয়তা, ৪ ঘণ্টা পর মুক্ত নুর  » «   ওসমানীনগরের তাজপুরে ইসলামী ব্যাংকের ক্যাশ রিসাইক্লিং মেশিনের উদ্বোধন  » «   ভিপি নুরুল হক নূরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ  » «   ভেজাল ওষুধ বিক্রয় প্রতিরোধে জাফলংয়ে পল্লী চিকিৎসকদের মত বিনিময় সভা  » «   ‘সরকারের কোটি টাকার রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে হাউজিং প্রকল্প তৈরী’:সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ   » «   ৬১ হাজার ৪’শ ১৭ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা সিসিকের  » «   প্রেমের টানে সংসার ছাড়লেন হ্যাপী, বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন  » «   সুনামগঞ্জ অনলাইন প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দকে সংবর্ধনা দিলো সায়েম সুপার মার্কেট কর্তৃপক্ষ  » «   ছাতকে চাঁদা না পেয়ে স্থাপনা নিমার্নে বাঁধা জেলা প্রশাসক বরাবর পাল্টা অভিযোগ দায়ের  » «   দোয়ারাবাজারে বিভ্রান্তিকর তথ্য পরিবেশনের প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন  » «   শায়েস্তাগঞ্জে অবৈধ লেনদেন: ওসি-এসআই প্রত্যাহার  » «   নদীতে টিম বাস, ৬ ফুটবলারের অকাল মৃত্যু  » «   মিশরে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ  » «   লাদাখের আকাশে উড়লো রাফালে যুদ্ধ বিমান, ভারত জানাল মহড়া  » «   সুনামগঞ্জে সন্ত্রাসী মোশারফের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন  » «  

ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে মামলা, শিক্ষক গ্রেফতার

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::লালমনিরহাটের আদিতমারীতে ৪র্থ শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীর শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়ার অপরাধে এক শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত ওই শিক্ষকের নাম নাসির উদ্দিন ওরফে চান মিয়া (৪৫)। সে উপজেলার ভেলাবাড়ী ইউনিয়নের পুরাতন ভেলাবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। একই এলাকার শালমারা এলাকার মৃত বাবর আলীর ছেলে।

সোমবার দুপুরে বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে সহকারী শিক্ষক নাসির উদ্দিনকে পুলিশ আটক করে। এর আগে রবিবার রাতে ওই ছাত্রীর নানা আব্দুর রহমান বাদী হয়ে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় একটি নামলা দায়ের করেন। এ মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

জানা গেছে, পুরাতন ভেলাবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নাসির উদ্দিন ওরফে চান মিয়া ক্লাস চলাকালীন সময়ে ছাত্রীদের শরীরে হাত দিতেন। তিনি ওই বিদ্যালয়ের ইংরেজি ও গণিত বিষয়ে ক্লাস নিতেন। ক্লাস চলাকালীন সময়ে সুযোগ বুঝে গত ১৭ অক্টোবর ওই ছাত্রীর শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন তিনি। এরপর বিদ্যালয় ছুটির পর ওই ছাত্রী বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি তার নানা আব্দুর রহমানকে জানান। এরপর তিনি বিষয়টি প্রধান শিক্ষক সুভাষ চন্দ্র রায়কে অবগত করেন। তবে প্রধান শিক্ষক বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ায় তিনি রবিবার রাতে নারী শিশু নির্যাতন আইনে ওই সহকারী শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। এ মামলায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেন। তবে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুভাষ চন্দ্র রায় এ বিষয়ে কোন কথা বলতে রাজি হননি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার (চলতি দায়িত্ব) এনএম শরীফুল ইসলাম খন্দকার বলেন, বিষয়টি শুনেছি। মামলার কাগজ পেলে শুধু সাময়িক বহিষ্কার নয়, তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করা হবে।

আদিতমারী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) সাইফুল ইসলাম বলেন, ছাত্রীর শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে ওই শিক্ষক হাত দিতেন। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর নানার করা মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.