সংবাদ শিরোনাম
সিলেটে পেঁয়াজ কিনতে গিয়ে ধাক্কাধা‌ক্কি:পু‌লিশের মিস ফায়ারে গুলিবিদ্ধ ১  » «   বাহুবলে ৩০০ বস্তা সরকারি চাল জব্দ-আটক ১  » «   মা ও নিজের নিরাপত্তা চেয়ে এরিক এরশাদের জিডি  » «   লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলিতে বিস্কুট ফ্যাক্টরিতে বিমান হামলা, ৫ বাংলাদেশি নিহত  » «   চীনের উইঘুর মুসলিম নির্যাতনের তথ্য ফাঁস  » «   এবার সিলেটে পেঁয়াজ,চালের পর বাজারে ঝড় উঠেছে লবনের দাম  » «   দেশে মেগা প্রজেক্টের নামে মেগা দুর্নীতি চলছে: ফখরুল  » «   ওসমানীনগরে সড়ক পারাপারের সময় গাড়ির চাপায় এক শিশু নিহত  » «   পপুলার ইনস্যুরেন্সের এক বিমা কর্মীকে পালাক্রমে ধর্ষণ-থানায় মামলা  » «   সিলেট নগরীর তিনটি স্থানে ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি শুরু  » «   ফেসবুকে স্ট্যাটাসে জ্বলে পুড়ে ছাই আন্তর্জাতিক মানব পাচারকারী উজ্জল  » «   ওসমানীনগরে পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের সামনে প্রকাশ্যে ধূমপান  » «   প্রধানমন্ত্রীকে মির্জা ফখরুলের চিঠি  » «   স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল, সাধারণ সম্পাদক বাবু  » «   নিখোঁজ ক্রিকেটার গৌতম গাম্ভীর!  » «  

ওসমানীনগরে স্বামীর বসতঘর থেকে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::ওসমানীনগরে মায়া বেগম (২৫) নামের নয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার তাজপুর ইউপির কাদিপুর গ্রামের গৃহবধূর স্বামীর বসতঘর থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত মায়া বেগম উপজেলার কাদিপুর গ্রামের সজ্জাদ মিয়ার (৩৫) স্ত্রী ও জগন্নাথপুর উপজেলার জয়দা গ্রামের আনা মিয়ার মেয়ে। পুলিশ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহত মায়া বেগমের স্বামী উপজেলার তাজপুর ইউপির কাদিপুর গ্রামের সজ্জাদ মিয়া ও তার বাবা নজির মিয়াকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে। পুলিশ ও গৃহবধূর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে মায়া বেগমের স্বামীর বাড়ি থেকে ফোনে নিহতের পিতা ও মামার বাড়িতে জানানো হয় দ্রুত কাদিপুর মায়ার শ্বশুর বাড়িতে আসার জন্য। খবর পেয়ে মায়া বেগমের স্বজনরা মেয়ের বাড়িতে গিয়ে মায়া বেগমের নিথর দেহ মাটিতে নিলডাউন অবস্থায় ঘরের ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস দেয়া দেখতে পান। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে মায়া বেগমের পিতার পরিবার ওসমানীনগর থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে গৃহবধূ মায়া বেগমের লাশ উদ্ধার করে।

নিহত মায়া বেগমের মামা উপজেলার দয়ামীর ইউপির চক মন্ডলকাপন গ্রামের কালাম মিয়া অভিযোগ করে বলেন, আমার ভাগ্নিকে যৌতুকের জন্য তার স্বামী সজ্জাদ মিয়া সহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন হত্যা করে ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রেখেছে। মায়ার লাশ নামাজরত অবস্থার মত গলায় রশি লাগানো গিয়ে দেখেছি আমরা। আমার ভাগ্নীর ৫ বছরের এক কন্যা সন্তান রয়েছে এবং সে ৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। যৌতুকের জন্য মায়ার শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে নির্যাতন করত। গত কয়েক দিন পূর্বে তার স্বামীকে আমরা ৪টি গরু দিয়েছি। আমার ভাগ্নিকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে আমরা থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছি। গৃহবধূ মায়া বেগমের লাশ উদ্ধার ও সুরতহালকারী এসআই শফিকুল ইসলাম বলেন, নিহতের মৃতদেহ মাটিরভরে নিলডাউন ও ফ্যানের সাথে ঝুলানো অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা তা ব্যাপক তদন্ত ছাড়া বলা সম্ভব নয়। জিজ্ঞাসাবদের জন্য নিহতের স্বামী ও শ্বশুরকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে। ১১ওসমানীনগর থানার ওসি রাশেদ মোবারক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে আমরা অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছি। জিজ্ঞাসাবদের জন্য নিহতের স্বামী সজ্জাদ মিয়া ও শ্বশুর নজির মিয়াকে পুলিশ হেফাজতে আনা হয়েছে। গৃহবধূর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দেয়া হলে মামলা নেয়া সহ প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.