সংবাদ শিরোনাম
কানাইঘাটে নিখোজের ১৪ দিন পর জামাল উদ্ধার  » «   এম. এ. হক যে কোন দুর্যোগ মুহুর্তে জাতির সেবায় নিয়োজিত ছিলেন: এড. আব্দুর রকিব  » «   এম এ হকের প্রথম জানাযা সম্পন্ন  » «   এম. এ. হকের মৃত্যুতে সিলেট মহানগর যুবলীগের শোক  » «   এম. এ. হকের মৃত্যুতে সিলেট জেলা ও মহানগর যুবদলের শোক  » «   এম. এ. হকের মৃত্যুতে সিলেট মহানগর বিএনপির শোক  » «   এম এ হকের মৃত্যুতে মিজান চৌধুরীর শোক  » «   মারা গেলেন সিলেট মহানগর বিএনপি’র সাবেক সভাপতি এম এ হক  » «   সমালোচনার মুখে ফেয়ার এন্ড লাভলীর নাম পরিবর্তন করা হলো  » «   ফিরলো কফি হাউসের সেই আড্ডা  » «   করোনা:বাসা ভাড়া না দেওয়াতে ১৩৮ শিক্ষার্থীর সার্টিফিকেট, ল্যাপটপ, ট্রাঙ্ক ডাস্টবিনে  » «   বুড়িগঙ্গায় লঞ্চ ডুবির ১৩ ঘণ্টাপর জীবিত উদ্ধার হওয়া সুমনের ঘটনা সাজানো নাটক:দাবী ভ্রাম্যমাণ হকারদের  » «   বাজেট প্রত্যাখ্যান বিএনপি’র  » «   তিন দিন ধরে ঘুরছেন ক্যানসার আক্রান্ত রোগী  » «   বাংলাদেশে করোনায় তেমন ক্ষতি করতে পারেনি-পরিকল্পনামন্ত্রী  » «  

রূপনগরে গ্যাস বেলুনের সিলিন্ডার বিস্ফোরণে শিশুসহ নিহত ৬

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::রাজধানীর রূপনগরে গ্যাস বেলুনের সিলিন্ডার বিস্ফোরণে আরও এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার সন্ধ্যার দিকে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রিয়া মনি (১০) মারা যায়। সে নেত্রকোনার আটপাড়া গ্রামের মো. মিলনের মেয়ে।

এ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ালো ৬ জনে। এ ঘটনায় আরো ১৫ জন আহত হয়েছেন।

আহতরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

অন্য পাঁচজন নিহত হলো— ভোলার বাপদার চেউয়াখালী গ্রামের আবু তালেবের মেয়ে ফারজানা (৭), ভোলা জেলার দুলারহাটের নুরাবাদ গ্রামের নূর আলমের মেয়ে নূপুর (১১), ভোলার চরফ্যাশনে নূর ইসলামের ছেলে রুবেল (১০), কিশোরগঞ্জের ফুলবাড়িতে বদিউল আলমের ছেলে রমজান (৮) ও ঝিলপাড়া বস্তির শাহজাহানের ছেলে শাহিন (৯)।

 

সবার মরদেহ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

বুধবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে রূপনগর আবাসিক এলাকার ১১ নম্বর রোডে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন- নুপুর, জান্নাত, শাহীন ও রমজান। পরবর্তীতে হাসপাতালে নেয়া হলে ফারজানা মারা যায়।

সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে অবস্থানরত রূপনগর থানার পরিদর্শক (অপারেশন্স) মোকাম্মেল হক জানান, পাঁচজনের মরদেহ এসেছিল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী আনিসুর রহমান বলেন, বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে রূপনগর আবাসিক এলাকার ১১ নম্বর রোডের শেষ সীমানায় সাইকেলে করে বেলুন ফোলানোর সিলিন্ডার নিয়ে একজন বেলুন বিক্রি করছিলেন। এসময় অনেক শিশু ও নারী আশপাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন।

তিনি বলেন, হঠাৎ সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হলে ঘটনাস্থলেই চার শিশুর মৃত্যু হয়। বিস্ফোরণে তাদের শরীর ছিন্নবিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এই ঘটনায় বেলুন বিক্রেতাসহ কমপক্ষে চারজন গুরুতর আহত হন। তাদের হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

 

ওই ঘটনায় আহত ১৫ জন এখন পর্যন্ত ঢামেকে ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে ১১ জন শিশু, একজন নারী ও দুইজন পুরুষ।

আহত শিশুরা হলেন- সিয়াম (১১), মিম (৮), অজ্ঞাত (৫), মোস্তাকিন (৮), অযুফা (৭), তানিয়া (৭), জামিলা (৮), বায়েজিদ (৮), নেহা ৮, অর্ণব (১০), জনি (৯) ও মুরসালীন (১০)।

এছাড়া আহত নারীর নাম মোসাম্মাত জান্নাত (২৫)। আর আহত দুই পুরুষ হলেন- সোহেল (২৫), জুয়েল (২৯)।

ঢামেকের ক্যাজুয়েলিটি বিভাগের আবাসিক সার্জন ডা. আলাউদ্দিন জানান, আহত ১৫ জনের মধ্যের ৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহতদের সকলকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.