সংবাদ শিরোনাম
করোনা: বিশ্ব কাঁপানো মার্কিন রণতরী থেকে বাঁচার আকুতি  » «   ভারতে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ২৪০ জন  » «   ছুটি বাড়ানোর প্রজ্ঞাপন জারি, অফিস খুলবে ১২ এপ্রিল  » «   করোনা:সিলেটে নতুন করে ৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে  » «   জগন্নাথপুরে করোনা সংক্রামন রোধে পুলিশের বিভিন্ন বাজারে প্রচারণা  » «   ‘দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর সবচেয়ে বড়ো পরীক্ষা করোনা’  » «   যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে রেকর্ড ৮৬৫ জনের মৃত্যু  » «   করোনা: ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানগুলো গ্রাহকদের ঋণের কিস্তি পরিশোধে চাপ দিতে পারবেনা  » «   শৈশবে দেয়া বিসিজি টিকা বাঁচাবে করোনা থেকে!  » «   দিরাইয়ে রাস্তার পাশে পড়ে থাকা অসুস্থ অজ্ঞাত এক ব্যক্তি উদ্ধার  » «   নগরীর খাসদবীরে মাসুকের উদ্যোগে সুবিধাবঞ্চিতদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন শুরু  » «   ওসমানীনগরে মানা হচ্ছে না নিরাপদ দূরত্ব: প্রশাসনের নিরব ভূমিকা  » «   করোনা:জগন্নাথপুরে প্রত্যেকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার অনুরোধ সহকারী পুলিশ সুপারের  » «   জগন্নাথপুরে প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর যৌথ উদ্যোগে সচেতনামূলক প্রচারনা  » «   সিলেটে হাসপাতাল কোয়ারেন্টাইনে কিশোরীর মৃত্যু: গ্রামের বাড়ী জালালপুরে দাফন সম্পন্ন  » «  

দড়ি ধরে মারো টান রাজা হবে খান খান

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::

“শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড” কিন্তু এই মেরুদণ্ড যদি ভঙ্গুর হয়, তাহলে সেই জাতির কপালে ভোগান্তি রয়েছে । বর্তমান সরকার লোভের ললিপপ দিয়ে শিক্ষক সমাজকে করে রেখেছে অন্ধ-বধির । আর হাতেগোনা যে কয়েকজন শিক্ষক এই অন্যায় অব্যবস্থার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন তাদেরকেই সরকার দলীয় মাস্তানরা করেছে লাঞ্ছিত । সম্প্রতি সব দৃষ্টান্তকে হার মানিয়েছে রাজশাহীর এক অধ্যক্ষকে পানিতে ফেলে দেওয়ার ঘটনা । কতটা ধৃষ্টতা থাকলে ছাত্ররা এরকম একটি জঘন্য কাজ করতে পারে । ছোটবেলায় আমরা পড়েছি কাজী কাদের নেওয়াজের “শিক্ষকের মর্যাদা” । কিন্তু শিক্ষকের অবস্থান আজ ধুলায় গিয়ে ঠেকেছে । বাংলাদেশের শোষক সরকার নিজেদের ক্ষমতাকে দীর্ঘায়িত করতে বোধহীন এক প্রজন্ম তৈরি করছে । যারা অন্যায়কে অন্যায় বলতে পারবেনা । জুলু্ম অত্যাচারের প্রতিবাদ করবেনা । শুধু “হীরক রাজার” মতো শিখানো মুখস্ত বুলি আউড়াবে ।
“লেখাপড়া করে যেই
অনাহারে মরে সেই
জানার কোন শেষ নাই
জানার চেষ্টা বৃথা তাই
বিদ্যা লাভে লোকসান
নাই অর্থ নাই মান
হীরক রাজা বুদ্ধিমান
কর সবে তার জয়গান”
বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে অত্যন্ত সুকৌশলে ধ্বংস করে শুধুমাত্র নতজানু প্রজন্ম তৈরী করছে । যে প্রজন্ম ৫২, ৬৯, ৭১, ৯০এর ইতিহাস জানবেনা । যে প্রজন্ম স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে জ্বলে উঠবেনা । বুকে পিঠে “স্বৈরাচার নিপাত যাক, গণতন্ত্র মুক্তিপাক” স্লোগান লিখে বুলেটের সামনে বুক পেতে দিবেনা ।

উন্নয়নের ঘুমপাড়ানি মাসিপিসির গল্প বলে জনগনকে ভুলিয়ে রেখে দেশটাকে লুটেপুটে শুধু রেখে যাচ্ছে কঙ্কাল । গণতন্ত্রহীন দেশে জবাবদিহিতা, মুক্তচিন্তা, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা শব্দগুলো আজ শুধু ছাপানো অক্ষর ছাড়া আর কিছু নয় । আর রয়েছে কিছু গৃহপালিত সাংবাদিক যাদের কাজ শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রী যে সুরে কথা বলবেন, তার সাথে মিলিয়ে চিঁ চিঁ করা । স্রোতের বাইরে যাওয়ার মতো সাহস কারো নেই । কেউ একটি বারের জন্যেও প্রশ্ন করছেনা আমাদের দেশে তিন তিনবারের প্রধানমন্ত্রী যিনি সারা জীবন গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করে গেছেন তাঁকে কেন একটি মিথ্যা মামলায় জেলখানায় আটকে রাখা হয়েছে । দেশের একজন অসুস্থ ‘প্রবীণ নাগরিক’ কেন তাঁর উন্নত চিকিৎসা দেয়া হচ্ছেনা । নিয়ম অনুযায়ী ঘনিষ্ঠ আত্মীয় স্বজনদের সাথে দেখা পর্যন্ত করতে দেয়া হচ্ছেনা । এমনকি জামিনযোগ্য মামলা হলেও বছরের পর বছর বিনাচিকিৎসায় বন্দি রেখে শারীরিক ও মানসিক টর্চার করা হচ্ছে । খালেদা জিয়ার সামাজিক অবস্থান, বয়স আর শারীরিক অবস্থার কথা বিবেচনায় না এনে শুধুমাত্র প্রধামন্ত্রীর ব্যক্তিগত জিঘাংশা চরিতার্থ করার জন্যই তাঁকে জামিন দেয়া হচ্ছেনা । যে মনগড়া অর্থ আত্মসাতের মিথ্যা মামলায় খালেদা জিয়াকে কারা অন্তরীণ রাখা হয়েছে, সেই ‘দুইকোটি’ টাকা এখন ব্যাংকের সরকারী তহবিলে বেড়ে ‘দশকোটি’ হয়েছে । এর চেয়ে পরিহাস আর কি হতে পারে ।
‘আগে মানুষ মিথ্যা বলতে ভয় পেত, পাপ হবে বলে
আর এখন সত্য বলতে ভয় পায় বিপদ হবে বলে’
কারন সত্য বললেই গুমের ভয় দেখানো হয় । মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে কারা অন্তরীণ করার ভয় । এমনকি ক্রসফায়ারের ভয় । এই ভয় নামক জুজুর হাত থেকে মুক্তি পেতে জাতির সামনে একটি আলোকবর্তিকা দরকার । যিনি ৯০ এর স্বৈরাচার বিরোধী লড়াইয়ের মতো বর্তমান স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেতৃত্ব দিবেন । তাই খালেদা জিয়ার মুক্তি মানেই গণতন্ত্রের মুক্তি, খালেদা জিয়ার মুক্তি মানেই বাকস্বাধীনতার মুক্তি ।

মাহবুবা জেবিন
লেখকঃ সাংবাদিক

সুত্র:শীর্ষ খবর

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.