সংবাদ শিরোনাম
ভারত থেকে পিয়াজ আসছে দাম কমতির দিকে  » «   তাহিরপুর সীমান্তে ভারতীয় গোলকাঠ উদ্বার  » «   সিলেটে ৩ জন চিকিৎসকসহ নতুন করে ১৩ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত  » «   জেলা তথ্য অফিসের উপ পরিচালক মিলি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত  » «   খাদিমনগর ইউনিয়নে চুরি হওয়া গরুসহ দুই চোর আটক  » «   মেয়র আরিফের রোগমুক্তি কামনায় মহানগর  ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদের দোয়া  » «   আল্লামা শফীর জানাজা সম্পন্ন, লাখো মানুষের ঢল  » «   মৃত ইডেন মহিলা কলেজের শিক্ষিকাকে বদলি  » «   সাবেক মেয়র কামরানের ছোট ভাই বখতিয়ার আহমদ কানিছ আর নেই  » «   যে কেউ পাবে না আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র  » «   ইউএনও ওয়াহিদা ও তার স্বামীকে বদলি  » «   দক্ষিণ সুরমায় নারীকে মারধরের অভিযোগে ট্রাভেলস ব্যবসায়ী গ্রেফতার  » «   দৌড়বিদ-সাইক্লিস্ট ও সাঁতারুদের পদচারণায় মুখরিত ওসমানীনগর  » «   মহানগর পুলিশের অভিযানে গণধর্ষণ মামলার দুই আসামি গ্রেপ্তার  » «   সিলেটে বঞ্চিত আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ মিছিল  » «  

সিলেটে আজ থেকে কার্যকর হলো নতুন সড়ক পরিবহন আইন

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::সিলেটে আজ থেকে কার্যকর হলো নতুন সড়ক পরিবহন আইন ‘সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮’। ১ নভেম্বর থেকে নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর হওয়ার কথা থাকলেও জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে আইনের প্রয়োগ করতে সময় নেয় সিলেট মহানগর পুলিশের (এসএমপি) ট্রাফিক বিভাগ।

সোমবার (৯ ডিসেম্বর) নগরীতে এ আইন কার্যকর করতে মাঠে নেমেছে এসএমপির ট্রাফিক বিভাগের কর্মকর্তা ও সদস্যরা। একই সাথে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রচার প্রচারণাও চালাচ্ছেন তারা।

দুপুর একটার দিকে নগরীর চৌহাট্টা পয়েন্টে নগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের সদস্যরা রেজিস্ট্রেশনবিহীন যান, ড্রাইভিং লাইসেন্সবিহীন গাড়ি চালানো, অবৈধভাবে পার্কিং করে যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিসহ ট্রাফিক আইনে বিভিন্ন অপরাধ করায় চালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়।

জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে কয়েকজন ট্রাফিক সদস্যকে দেখা যায় লিফলেট বিতরণ করতে। লিফলেটে বিভিন্ন ধারা, অপরাধ ও শাস্তি উল্লেখ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর ট্রাফিক বিভাগের পরিদর্শক (ইন্সপেক্টর) বি আমিন বলেন, নভেম্বরের ১ তারিখ থেকে নতুন সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর করার কথা থাকলেও আমরা জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সবাইকে এক মাসেরও বেশি সময় দিয়েছি। আজ থেকে এই আইন আমরা নগরীতে এই আইন প্রয়োগ করতে শুরু করলাম।তিনি আরও বলেন, আইন কখনো কারও ক্ষতির জন্য হয় না। আইন হয় সকলের মঙ্গলের জন্য।

তাই এই আইন নিয়ে আন্দোলন না করে সবাই মিলে সচেতন হয়ে চলে ও আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে নিয়মের মধ্যেই থেকে সড়কে যান-বাহন চালাতে সকলের প্রতি আহবান জানার পুলিশের এ কর্মকর্তা।

এছাড়াও সকলকে সচেতন থাকতে, নিজে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে ও অন্যকে সচেতন হতে উদ্বুদ্ধ করতে, ট্রাফিক পুলিশকে সহায়তা করতে বলেন তিনি।

তিনি বলেন, মনে রাখবেন নগরী আপনার, তাই যানজটমুক্ত নগরী গড়তে নাগরিক হিসেবে আপনাকে এগিয়ে আসতে হবে

সরেজমিনে নগরীর বিভিন্ন পয়েন্ট ঘুরে দেখা যায়, এই আইন প্রয়োগ করে মামলা দেয়া হচ্ছে।

সময় চালকদেরকে শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স বিতরণ করেন সিলেট মহানগর ট্রাফিক বিভাগের পরিদর্শক বি. আমিন। একই সাথে নতুন শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য নিবন্ধনও করা হচ্ছে।

সেবা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ড্রাইভিং লাইসেন্স গ্রহণের প্রথম ধাপ হচ্ছে শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স। আর এই প্রথম ধাপ পেরোতেই চালকদের পোহাতে হয় ঝক্কি-ঝামেলা। তাই অনেকে ভয়েই ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে সাহস পান না। তাই যারা ঝক্কি-ঝামেলার ভয়ে শিক্ষানবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে বিআরটিএতে যাচ্ছেন না, তাদের সহযোগিতা করাই আমাদের লক্ষ্য।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ট্রাফিক পুলিশের এডিসি নিকুলিন চাকমা, সার্জেন্ট আলম, এসআই ইকবাল প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, গত বছর ঢাকার দুই কলেজ শিক্ষার্থী সড়কে বাস চাপায় প্রাণ হারানোর পর শিক্ষার্থীদের ব্যাপক আন্দোলনের মুখে গত বছরের ১৯ সেপ্টেম্বর সড়ক পরিবহন আইন পাস করে সরকার। ১৪ মাস পর সেটা কার্যকর হয় চলতি বছরের ১ নভেম্বর। তবে সড়কমন্ত্রীর নির্দেশে দুই দফায় ১৪ দিন শিথিল রাখা হয় এই আইনটি। সে সময় সড়কে আইন কার্যকর না করে আইন সম্পর্কে জনসাধারণকে সচেতন করার নির্দেশ দেন তিনি।

 

 

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.