সংবাদ শিরোনাম
মধু ও কালোজিরায় করোনা থেকে যেভাবে সুস্থ হলাম: গভর্নর  » «   বিশ্বনবীর মিম্বর থেকে করোনা নিয়ে যা বললেন শাইখ সুদাইস  » «   জাফলংয়ে সাড়ে ৮শ’ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ  » «   জাফলংয়ে অসহায় মানুষের পাশে ট্যুরিস্ট পুলিশ  » «   নিউইয়র্কে করোনায় বাংলাদেশ সোসাইটির নেতার মৃত্যু  » «   করোনা: আক্রান্তের সংখ্যা ১৩ লাখ ও মৃত্যু ৭৪ হাজার ছাড়িয়েছে  » «   শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে এক নারীর মৃত্যু  » «   করোনা ভাইরাস : ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের পাইলট এখন ডেলিভারি ভ্যানের চালক  » «   ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন আইসিইউতে  » «   করোনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্স আজ  » «   এবার করোনায় আক্রান্ত বাঘ  » «   যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ ঘন্টায় আরও ১২০০ জনের মৃত্যু  » «   ছোট অপরাধীদের মুক্তি দিতে চায় সরকার  » «   সিলেটে করোনা আক্রান্ত ডাক্তারের অবস্হা উন্নতির দিকে  » «   নাজির বাজারে স্বামীর মোটরসাইকেল থেকে পড়ে স্কুল শিক্ষিকার মৃত্যু  » «  

ভারতে প্রতি পনের মিনিটে একজন ধর্ষিত

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::ভারতে ২০১৮ সালের পর থেকে প্রতি পনের মিনিটে একজন নারী ধর্ষিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) দেশটির সরকারের একটি প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ পায়।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য মতে, ২০১৮ সালে ৩৪ হাজার নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে। এর মধ্যে ৮৫ শতাংশ বেশি অভিযোগ আমলে নেওয়া হয়েছে ও ২৭ শতাংশ দোষীকে সাব্যস্ত করা হয়েছে।

২০১২ সালে দিল্লিতে বাসে ধর্ষণের ঘটনার পর আন্দোলনে নামে প্রায় দশ হাজার বিক্ষুব্ধ জনতা। রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব থেকে শুরু করে বড় পর্দার নায়ক নায়িকারাও এই আন্দোলনে অংশ নেয়। বিক্ষোভের চাপের মুখে ধর্ষণের জন্য নতুন আইন করে ভারত সরকার। দ্রুত বিচার ব্যবস্থা করা হলেও দেশটিতে কমছে না ধর্ষণের পরিমাণ।

দেশটির মহিলা অধিকার সংগঠনগুলো বলছে, মহিলাদের বিরুদ্ধে অপরাধগুলো প্রায়শ কম গুরুত্ব সহকারে নেওয়া হয় এবং সংবেদনশীলতা ছাড়াই পুলিশ তদন্ত করে।

ভারতের মহিলা কমিশনের সাবেক প্রধান ললিতা কুমারমঙ্গলম বলেন, আমাদের দেশ এখনও পুরুষদের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। যে একজন মহিলা প্রধানমন্ত্রী ছিলো তিনি কোনো কিছু পরিবর্তন করতে পারেনি। এছাড়া দেশটির বিচার বিভাগের প্রায় সকলেই এখনও পুরুষ।

আর ক্ষমতাসীন দল বিজেপির এক সংসদ সদস্য বলেন, আমাদের দেশে খুব কম ফরেনসিক ল্যাব রয়েছে এবং দ্রুত আদালতের বিচারকের সংখ্যা খুব কম।

২০১৭ সালে ক্ষমতাসীন দল বিজেপির এক বিধায়ক এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ উঠে। কিন্তু পুলিশের নিষ্ক্রিয়তায় পরের বছর মেয়েটি আত্মহত্যা করে।

ভারত সরকারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী এখনো ভারতের অনেক জায়গায় ধর্ষণের অভিযোগ নিষিদ্ধ হিসেবে বিবেচিত হয়।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.