সংবাদ শিরোনাম
সিলেটের টুকের বাজারে শবে বরাতের রাতে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা  » «   তিনি অসহায়দের মুখে দু’মুঠো খাবার তুলে দিতে চেয়েছেন  » «   জাফলংয়ে উদ্ধারকৃত মর্টার শেল ধ্বংস করলো সেনাবাহিনী  » «   যুক্তরাষ্ট্রে দ্বিতীয় দিনের মতো প্রায় ২ হাজার জনের মৃত্যু  » «   স্পেনে করোনায় মৃত্যু ১৫ হাজার ছাড়ালো  » «   দেশে করোনায় মৃত্যু বেড়ে ২১, নতুন আক্রান্ত ১১২  » «   করোনা আপডেট:সিলেট নগরীর বিভিন্ন প্রবেশপথে পুলিশে চেকপোস্ট বসিয়ে গাড়ি তল্লাশি  » «   এমপি সুলতান মনসুরের ফোঁনালাপের রেকর্ড ভাইরাল, পক্ষে-বিপক্ষে সমালোচনা-ফোন আলাপকারী ব্যক্তি লাপাত্তা    » «   সিলেটে করোনা পরিক্ষা:৯৪ জনের কারো শরীরেই করোনা ভাইরাস নেই  » «   ঘরবন্দী মানুষের মাঝে জাফলং আওয়ামী লীগের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ  » «   দোয়ারাবাজারে বক্তারপুর গ্রামে সর্দি কাশিতে এক যুবকের মৃত্যু,৩০০টি বাড়ি লকডাউন  » «   ৬৮ লাখে বিক্রি হলো বাটলারের সেই জার্সি  » «   সিঙ্গাপুরে একদিনে ৪৭ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মধু ও কালোজিরায় করোনা থেকে যেভাবে সুস্থ হলাম: গভর্নর  » «   বিশ্বনবীর মিম্বর থেকে করোনা নিয়ে যা বললেন শাইখ সুদাইস  » «  

পেঁয়াজ নিয়ে বিপাকে ভারত, বাংলাদেশকে কেনার অনুরোধ

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::বেশিরভাগ রাজ্য সরকার চাহিদা প্রত্যাহার করে নেয়ায় পেঁয়াজ নিয়ে বিপাকে পড়েছে ভারত। বিপদ থেকে উদ্ধার হতে এখন বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানি করতে চাইছে দেশটির সরকার।

সোমবার ভারতের কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনার রকিবুল হকের সঙ্গে এক বৈঠকে বাংলাদেশকে পেঁয়াজ কিনে নেয়ার এ প্রস্তাব দেন বলে দেশটির ইংরেজি দৈনিক ‘দ্য প্রিন্ট’ জানিয়েছে।

বৈঠকের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ভারতের জ্যেষ্ঠ এক সরকারি কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের বিভিন্ন প্রদেশের চাহিদার ভিত্তিতে পেঁয়াজ আমদানি করে বিপাকে পড়েছে দেশটির ক্ষমতাসীন সরকার।

তিনি বলেন, বিভিন্ন প্রদেশের সরকার আমদানিকৃত পেঁয়াজের মাত্র ৩ হাজার টন নিয়েছে। অবশিষ্ট পেঁয়াজ মুম্বাইয়ের জওহরলাল নেহরু বন্দরে খালাসের অপেক্ষায়।

চলতি মাসের শুরুর দিকে ভারতের ভোক্তা কল্যাণবিষয়ক মন্ত্রী রাম বিলাস পাসওয়ান জানান, আমদানিকৃত পেঁয়াজের মহারাষ্ট্র সরকার ১০ হাজার টন, আসাম ৩ হাজার টন, হরিয়ানা ৩ হাজার ৪৮০ টন, কর্ণাটক ২৫০ টন ও ওড়িশ্যা প্রদেশ সরকার ১০০ টন চাহিদা প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

গত নভেম্বর এবং ডিসেম্বরে পেঁয়াজের দাম প্রতি কেজি ১০০ রুপি পেরিয়ে যাওয়ার পর এসব রাজ্য এই নিত্যপণ্যটি আমদানি করতে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল। এখন তারা আমদানিকৃত পেঁয়াজের উচ্চমূল্য এবং স্বাদের ভিন্নতার অজুহাত দেখিয়ে সেগুলো নিতে রাজি হচ্ছে না।

রাজ্যগুলো কেন্দ্রীয় সরকারের আমদানিকৃত পেঁয়াজ নিতে রাজি না হওয়ায় সেগুলো পচে যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

ওই কর্মকর্তা বলেন, ভারত এসব পেঁয়াজ প্রতি টন ৫০ হাজার থেকে ৫৯ হাজার (৬০০ থেকে ৭০০ ডলারে) টাকায় আমদানি করেছে। এখন বাংলাদেশকে এসব পেঁয়াজ প্রতি টন ৫৫০ থেকে ৫৮০ ডলারে কিনে নেয়ার প্রস্তাব দিয়েছে মোদি সরকার।

ওই বৈঠকে বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত হাইকমিশনার রকিবুল হক বলেন, বাংলাদেশ ইতিমধ্যে চীন থেকে পেঁয়াজ আমদানি করেছে এবং নেপাল হয়ে আরও পেঁয়াজ দেশের বাজারে ঢোকার অপেক্ষায় আছে। সুতরাং বিনামূল্যে পরিবহনসহ ভারতের কিছু প্রণোদনা দেয়া উচিত।

তবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পেঁয়াজ দ্রুত পচনশীল। ভারতের কেনা পেঁয়াজের গুনগত মান ইতিমধ্যে নষ্ট হয়ে গেছে। তাছাড়া ভারত বেশি দামে পেঁয়াজ আমদানি করেছে। তাই সেই পেঁয়াজ বাংলাদেশের আমদানি করা ঠিক হবে না।

এ ব্যাপারে ঢাকায় পেঁয়াজের পাইকারী বাজার শ্যামবাজারের আমদানিকারক শংকর চন্দ্র ঘোষ বলেন, ওই পেঁয়াজের টেম্পার (খাদ্যমান) নষ্ট হয়ে গেছে। সেগুলোর মান এখন ভালো নেই। এগুলো বাংলাদেশের কারও আমদানি করা ঠিক হবে না।

এর আগে গত সেপ্টেম্বরে পেঁয়াজের দাম নিজেদের বাজারে নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল ভারত।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.