সংবাদ শিরোনাম
সিলেটের টুকের বাজারে শবে বরাতের রাতে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা  » «   তিনি অসহায়দের মুখে দু’মুঠো খাবার তুলে দিতে চেয়েছেন  » «   জাফলংয়ে উদ্ধারকৃত মর্টার শেল ধ্বংস করলো সেনাবাহিনী  » «   যুক্তরাষ্ট্রে দ্বিতীয় দিনের মতো প্রায় ২ হাজার জনের মৃত্যু  » «   স্পেনে করোনায় মৃত্যু ১৫ হাজার ছাড়ালো  » «   দেশে করোনায় মৃত্যু বেড়ে ২১, নতুন আক্রান্ত ১১২  » «   করোনা আপডেট:সিলেট নগরীর বিভিন্ন প্রবেশপথে পুলিশে চেকপোস্ট বসিয়ে গাড়ি তল্লাশি  » «   এমপি সুলতান মনসুরের ফোঁনালাপের রেকর্ড ভাইরাল, পক্ষে-বিপক্ষে সমালোচনা-ফোন আলাপকারী ব্যক্তি লাপাত্তা    » «   সিলেটে করোনা পরিক্ষা:৯৪ জনের কারো শরীরেই করোনা ভাইরাস নেই  » «   ঘরবন্দী মানুষের মাঝে জাফলং আওয়ামী লীগের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ  » «   দোয়ারাবাজারে বক্তারপুর গ্রামে সর্দি কাশিতে এক যুবকের মৃত্যু,৩০০টি বাড়ি লকডাউন  » «   ৬৮ লাখে বিক্রি হলো বাটলারের সেই জার্সি  » «   সিঙ্গাপুরে একদিনে ৪৭ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মধু ও কালোজিরায় করোনা থেকে যেভাবে সুস্থ হলাম: গভর্নর  » «   বিশ্বনবীর মিম্বর থেকে করোনা নিয়ে যা বললেন শাইখ সুদাইস  » «  

দেশে ফিরে দেশকে বিপদে ফেলবেন না সিলেটের শবনব (ভিডিও)

সিলেটপোস্ট ডেস্ক::‘দেশে ফিরে দেশকে বিপদে ফেলবেন না। সবার প্রতি অনুরোধ রইল এখানেই থাকুন। চীনেই আপনাদের ভালো চিকিৎসা ব্যবস্থা রয়েছে।’

বুধবার ফেসবুক লাইভে এসে চীনে আটকেপড়া বাংলাদেশিদের এই অনুরোধ করেন, সেখানে অবস্থানরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থী শবনম জেবি।

শবনম জেবি সিলেটের বাসিন্দা। সেখানে হোজোউ বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনা করছেন।

করোনাভাইরাসজনিত কারণে চীনের হোজোউ শহরে আটকা পড়েছেন তিনি।

সেখানে তার সংকটাপন্ন অবস্থার ও সার্বিক পরিস্থিতির কথা জানাতে বুধবার ফেসবুক লাইভে আসেন শবনম।

তিনি বলেন, ‘আমি জেনেছি– চীনে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের অনেকে দেশে ফেরার চেষ্টা করছেন। কেউ কেউ টিকিটও কেটেছেন। তবে সবার প্রতি অনুরোধ– এ মুহূর্তে দেশে ফিরবেন না। এখানেই থাকুন। এখানে ভালো চিকিৎসা পাবেন। আপাতত দেশে গিয়ে নিজের দেশ, পরিবার ও আত্মীয়স্বজনদের বিপদে ফেলবেন না। যারা দেশে যেতে চাচ্ছেন, তাদের দ্বিতীয়বার ভাবার অনুরোধ জানাচ্ছি।’

এমন অনুরোধের কারণ হিসেবে শবনম বলেন, ‘এ মুহূর্তে আমি ও আমার পরিচিত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা সবাই সুস্থ আছি। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ প্রতিদিন আমাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করছে। ভাইরাসটি যাতে আমাদের মাঝে সংক্রামিত না হয় সে ব্যবস্থা করা হয়েছে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে দেশে ফেরার সময় বাসে বা বিমানেও যদি একজন আক্রান্ত মানুষ থাকেন, তার মাধ্যমেও আমি আক্রান্ত হতে পারি। কিন্তু আক্রান্ত হওয়ার পর আমি বুঝতেই পারব না যে আমি করোনাভাইরাসের জীবাণু বহন করছি।’

ভাইরাসটি সম্পর্কে শবনম বলেন,‘ এই ভাইরাসটি মানুষের হাঁচি থেকে ছড়াচ্ছে। কেউ আক্রান্ত একজনের পাশে গেলেও আক্রান্ত হয়ে যেতে পারে। আর এর লক্ষণগুলো সাধারণ ফ্লুর মতো। এই লক্ষণগুলো ধরা পড়তে ৭ থেকে ১৪ দিন পর্যন্ত সময় লাগে। ফলে আমার শরীরে লক্ষণগুলো প্রকাশ পাওয়ার আগেই আমি অন্যদের আক্রান্ত করে ফেলতে পারি।’

তবে কারও সিদ্ধান্তকে পরিবর্তন করা তার উদ্দেশ্য নয় বলে জানান শবনব জেবি।

চীনে আটকেপড়া শবনব জেবির ভিডিওবার্তাটি দেখুন –

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে আতঙ্কে রয়েছেন চীনে অবস্থানরত বাংলাদেশিরা। এদের অনেকেই দেশে ফিরতে চাচ্ছেন। অনেকেই দেশে চলে আসার জন্য বাংলাদেশ সরকারের কাছে আকুতি জানিয়েছেন।

এদিকে জানা গেছে, আজ চীন থেকে ফিরছেন ৩৪১ বাংলাদেশি। তাদের মধ্যে রয়েছে ১২টি পরিবার ও ১৪ জন শিশু।

শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে চীন থেকে বাংলাদেশিদের বহনকারী ফ্লাইটটি ঢাকার উদ্দেশে ছাড়বে। ফ্লাইটটি রাজধানীর হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করবে রাত ১২টার কিছু সময় পর।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.