সংবাদ শিরোনাম
আপডেট স্থগিত করল হোয়াটসঅ্যাপ  » «   বুধবার নয় বৃহস্পতিবার আসছে ভারত থেকে টিকা  » «   সুনামগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সভাপতি শেফু, সম্পাদক সেলিম  » «   নগরীর দুই মার্কেট থেকে পর্নোগ্রাফির ভিডিওর হার্ডডিস্ক জব্দ  » «   খাদিমনগর এলাকায় পূর্ব বিরোধের জেরে নাইম নামে এক যুবককে হত্যা  » «   ওসমানীনগরে গৃহহীন ২০ পরিবার পেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার  » «   ওসমানীনগরে নারী জাগরণী ঐক্য পরিষদের ম্যাসব্যাপী প্রশিক্ষন কার্যক্রমের উদ্ধোধন  » «   কুলাউড়ায় যুবলীগ সম্পাদকের উপর হামলার ঘটনায় দুই জন গ্রেফতার   » «   দিরাইয়ে জামায়াত নেতা কর্তৃক সরকারি জায়গায় ও কৃষকের জমি দখলের অভিযোগ  » «   জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মনিকা’র পরিবারে নগদ সহায়তা প্রদান  » «   অশ্রু সিক্ত নয়নে নিজামউদ্দিন লস্করের শেষ যাত্রা শহীদমিনারে মানুষের ঢল  » «   ভোট পূণ:গণনার দাবী কুলাউড়া পৌর নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখান তিন মেয়র প্রার্থী  » «   যুবলীগ সম্পাদকের উপর হামলার ঘটনায় উত্তপ্ত কুলাউড়া:থানায় মামলা  » «   ওসমানীনগরে সহস্রাধিক পরিবারকে শীতবস্ত্র প্রদান  » «   দক্ষিণ সুরমা থেকে ইয়াবা ব্যবসায়ী সালাম গ্রেফতার  » «  

ষড়যন্ত্রে’র অভিযোগ : তিন সৌদি প্রিন্স আটক

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::ক্ষমতার দ্বন্দ্বের জেরে সৌদি রাজপরিবারের তিন প্রবীণ সদস্য আটক হয়েছেন। আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্রে’র অভিযোগ তোলা হয়েছে। আটকদের দুইজন রাজপরিবারের খুবই প্রভাবশালী সদস্য। এদের একজন বাদশাহ সালমানের এক ভাই প্রিন্স আহমেদ বিন আব্দুলআজিজ আল-সৌদ, অপরজন ভাতিজা ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নায়েফ। এছাড়াও আটক হয়েছেন প্রিন্স নাওয়াফ বিন নায়েফ।

ধারণা করা হচ্ছে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের (এমবিএস) ক্ষমতা নিরঙ্কুশ করতেই তাদের আটক করা হয়েছে। অজ্ঞাত সূত্রের বরাতে এ সংবাদ দিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

পত্রিকাটি জানায়, ‘ষড়যন্ত্রে’র অভিযোগে গতকাল ৬ মার্চ, শুক্রবার সকালে কালো পোশাকধারী রাজরক্ষীরা তাদেরকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়। এসময় তাদের বাড়িতেও তল্লাশি চালানো হয়।

এর আগে ২০১৭ সালে যুবরাজ মোহাম্মদের নির্দেশে ডজনখানেক রাজকীয় ব্যক্তিত্ব, মন্ত্রী ও ব্যবসায়ীকে দেশটির রাজধানী রিয়াদের রিজ-কার্লটন হোটেলে অন্তরীণ করা হয়। ওই বছর মোহাম্মদ বিন নায়েফকেও গৃহবন্দী করার নির্দেশ দিয়েছিলেন মোহাম্মদ বিন সালমান।

আটকদের দুই জনের বিরুদ্ধে সৌদি রাজ আদালত অভিযোগ এনেছে বলেও খবরে জানা গেছে।  এদের একজন প্রিন্স আহমেদ বিন আব্দুলআজিজ আল-সৌদ রাজসিংহাসনের একজন দাবিদার। তারা বাদশাহ ও যুবরাজকে উৎখাতের জন্য ষড়যন্ত্র করছিলেন এমন অভিযোগ তোলা হয়েছে, যার ফলে তাদের বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বা মৃত্যুদণ্ডাদেশও দেয়া হতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক  র‌্যান্ড কর্পোরেশনের নীতিবিশ্লেষক বেকা ওয়াসের এ বিষয়ে বলেন, ‘যুবরাজ মোহাম্মদ আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেছেন। তার উত্থানের ক্ষেত্রে সব হুমকি ইতিমধ্যে তিনি সরিয়ে দিয়েছেন।’

পাল্টা প্রতিক্রিয়া ছাড়াই যুবরাজ সমালোচকদের হত্যা করছেন উল্লেখ করে তিনি আরো জানান, ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করতে এটা তার আরো বড় পদক্ষেপ।

এই বিশ্লেষকের ভাষ্য, ‘তাকে যাতে অতিক্রম করার চেষ্টা করা না হয়, নতুন এই ধরপাকড়ের মাধ্যমে রাজপরিবারের সদস্যদের তিনি সেই বার্তাটিই দিতে চেয়েছেন।’


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.