করোনাভাইরাসের কারণে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠান সীমিত করে আনলেও সেখানে সিলেটে মেট্রোপলিটন চেম্বারের উদ্যোগে চলছে ৬ষ্ট আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা। গত ৭ মার্চ মেলা উদ্বোধনের পর থেকে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের সমাগম হয় মেলায়। প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেট অঞ্চলে বাণিজ্যমেয়ায় সাধারণ দর্শনার্থীদের পাশাপাশি প্রবাসীদের সমাগমই সাধারণত বেশি থাকে। এমতাবস্থায় বাণিজ্যমেলা লোকসমাগম নিয়ে শঙ্কিত সচেতন মহল।

কেবল তাই না, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের নির্দেশের পর সিলেটের শাহী ঈদগাহ ‘শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে’ বাণিজ্যমেলায় লোকসমাগম নিয়ে চলছে সমালোচনা। এ মেলায় লোকসমাগমের কারণে করোনাভাইরাস ছড়ানোর শঙ্কা আছে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

এ ব্যাপারে সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মণ্ডল বলেন, ‘লোকসমাগম যাতে না হয় তাতে নির্দেশনা আছে। কিন্তু বাণিজ্যমেলা লোকসমাগম হচ্ছে। এতে ঝুঁকি থাকে ঠিক। কিন্তু এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের সাথে আলাপ করাই সম্ভবত ভালো হবে। মেলার ব্যাপারে উনি সিদ্ধান্ত জানাতে পারবেন।’

তবে জেলা প্রশাসক বলেছেন ভিন্ন কথা। এ ব্যাপারে সিলেটের জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেন, আমরা সভায় বাণিজ্যমেলা সম্পর্কে আলোচনা করেছি। আপাতত মেলার আয়োজক কমিটিকে লোকসমাগম কম রাখতে নির্দেশ দিয়েছি। একই সাথে মেলার অনুমতি যেহেতু বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে দেয়া হয়েছে তাই মেলা বন্ধ করতে মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

সর্বশেষ সিলেটে ৬ষ্ট আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার আহবায়ক কমিটির সদস্য গফফার সিলেটপোস্টকে জানান,সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির গোলটেবিল বৈঠকে বসে সিদ্ধান্ত নিয়েছে চলিত মাসের ১৮ তারিখ পর্যন্ত মেলা চলবে এর পর বন্ধ হবে বলে জানান তিনি।