সংবাদ শিরোনাম
৩২ মাস পর জেগে উঠলেন ফুটবলার নূরী  » «   ছেলের কাছে হেরে গেলেন মাশরাফী  » «   দেশে করোনায় নতুন করে কেউ আক্রান্ত হয়নি  » «   হোম কোয়ারেন্টাইনে যেভাবে কাটছে খালেদা জিয়ার সময়  » «   করোনা কেড়ে নিলো আরেক বাংলাদেশির প্রাণ  » «   সতর্কতামূলক নিশ্চিতে প্রশাসনকে সহায়তা দিতে সিলেটে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনীর ১৫টি দল  » «   জৈন্তাপুরে ইউপি সদস্য সহ ৬ জন আটক  » «   করোনা: বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা ২৭ হাজার ছাড়ালো  » «   ইতালিতে একদিনে রেকর্ড ৯৬৯ জনের মৃত্যু  » «   স্পেনে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৭৬৯ জনের মৃত্যু  » «   জগন্নাথপুরে করোনা সংক্রামন রোধে থানা পুলিশের টহল জোরদার  » «   জগন্নাথপুরে করোনা ভাইরাস আতংকে স্বাভাবিক জীবন যাত্রা ব্যাহত  » «   ভাটিবাংলা এলপিএস ফাউন্ডেশন  কর্তৃক  শ্রমজীবি মানুষের মধ্যে সাবান ও মাস্ক বিতরণ   » «   গোলাপগঞ্জে কোদাল ও দা দিয়ে কুপিয়ে বাবাকে হত্যা করলো নিজ ছেলে  » «   সিলেটে নিত্য প্রয়োজনীয় পন্যের দোকান ও ফার্মেসি ব্যতীত সকল দোকানপাট বন্ধ:রাস্তা ফাঁকা  » «  

করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ১১,৪০১ জন

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::মহামারী ঘোষিত নভেল করোনাভাইরাসে মৃত্যুর মিছিল থামছেই না। প্রতিদিনই বিশ্বজুড়ে শত শত মানুষের প্রাণ কাড়ছে এই ভাইরাসটি। আজ ২১ মার্চ, শনিবার পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১১ হাজার ৪০১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর ১৮৫টি দেশ ও অঞ্চলের ২ লাখ ৭৬ হাজার ৭ জন এতে আক্রান্ত হয়েছেন। চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন এদের মধ্যে ৯১ হাজার ৯৫২ জন ব্যক্তি।

সফটওয়্যার সল্যুশন কোম্পানি ‘ডারাক্সে’র পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘ওয়ার্ল্ডোমিটার’ সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ইতালিতে আরো ৬২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ৪ হাজার ৩২ জনে দাঁড়িয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যায় ভাইরাসটির শনাক্তস্থল চীনকে ছাড়িয়ে গেছে ইউরোপের দেশটি। চীনের মূল ভূখণ্ডে মারা গেছে ৩ হাজার ২৫৫ জন মানুষ।

ইতালিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা হয়েছে ৪৭ হাজার ২১ জন। ইতালির পর সবেচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে স্পেনে।  সেখানে ২১ হাজার ৫৭১ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে মারা গেছেন ১ হাজার ৯৩ জন।

মৃতের সংখ্যায় ইতালি ও চীনের পরের অবস্থানে আছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরান। সেখানে ১ হাজার ৪৩৩ জনের প্রাণ কেড়েছে ভাইরাসটি। দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ হাজার ৬৪৪ জন।

এদিকে ফ্রান্স এই ভাইরাসে মারা গেছে ৪৫০ জন। দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১২ হাজার ৬১২ জন। মৃতের সংখ্যায় পরের অবস্থানেই আছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সেখানে ২৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে আর আক্রান্ত হয়েছে ১৯ হাজার ৬৪৩ মানুষ।

আর যুক্তরাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ৯৮৩ এবং মৃত্যু ১৭৭। অপরদিকে জার্মানিতে মৃতের সংখ্যা তুলনামূলক কম হলেও আক্রান্তের সংখ্যা বেশি। সেখানে ১৯ হাজার ৮৪৮ আক্রান্ত হয়েছেন। যাদের ৬৮ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে মৃত্যুর হার ৩ দশমিক ৪ শতাংশ। মৃত্যুবরণকারীদের  মধ্যে ২১ দশমিক ৯ শতাংশ মানুষের বয়স ছিল ৮০ বছরের উপরে। ৪০ থেকে ৪৯ বছর বয়সীদের এই ভাইরাসে মৃত্যুর হার ০ দশমিক ৪ শতাংশ।

তবে নারীদের তুলনায় বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন পুরুষরা। পুরুষদের মৃত্যুর হার  ৪ দশমিক ৭ শতাংশ এবং নারীদের মৃত্যুর হার ২ দশমিক ৮ শতাংশ।

এদিকে প্রাণঘাতী এই নভেল করোনাভাইরাস থেকে তরুণরাও নিরাপদ নয় বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থাটির প্রধান ড. টেড্রস আধানম গেব্রেইয়সুস জেনেভায় এক সংবাদ সম্মেলনে এমন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন। তিনি এসময় তরুণদের শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানান।

এর আগে তিনি সরকারগুলো এই বৈশ্বিক মহামারী ঠেকাতে যথেষ্ট পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন। তিনি সরকারগুলোকে নিজ নিজ দেশের করোনাভাইরাস পরীক্ষার ব্যবস্থা আরো বাড়ানোর ওপর জোর দিয়েছেন।

বিশ্বজুড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় এ ভাইরাসে ৩০ হাজার ৯৩৮ জন আক্রান্ত হয়েছে। এ নিয়ে এ ভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৭৬ হাজার ৭ জনে দাঁড়িয়েছে।

বিশ্বজুড়ে বর্তমানে ১ লাখ ৭২ হাজার ৫৬১ জন আক্রান্ত রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের মধ্যে ১ লাখ ৬৪ হাজার ৭৯৬ জনের অবস্থা স্থিতিশীল অথবা উন্নতির দিকে রয়েছে। বাকি ৭ হাজার ৭৬৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.