সংবাদ শিরোনাম
৩২ মাস পর জেগে উঠলেন ফুটবলার নূরী  » «   ছেলের কাছে হেরে গেলেন মাশরাফী  » «   দেশে করোনায় নতুন করে কেউ আক্রান্ত হয়নি  » «   হোম কোয়ারেন্টাইনে যেভাবে কাটছে খালেদা জিয়ার সময়  » «   করোনা কেড়ে নিলো আরেক বাংলাদেশির প্রাণ  » «   সতর্কতামূলক নিশ্চিতে প্রশাসনকে সহায়তা দিতে সিলেটে মাঠে নেমেছে সেনাবাহিনীর ১৫টি দল  » «   জৈন্তাপুরে ইউপি সদস্য সহ ৬ জন আটক  » «   করোনা: বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা ২৭ হাজার ছাড়ালো  » «   ইতালিতে একদিনে রেকর্ড ৯৬৯ জনের মৃত্যু  » «   স্পেনে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৭৬৯ জনের মৃত্যু  » «   জগন্নাথপুরে করোনা সংক্রামন রোধে থানা পুলিশের টহল জোরদার  » «   জগন্নাথপুরে করোনা ভাইরাস আতংকে স্বাভাবিক জীবন যাত্রা ব্যাহত  » «   ভাটিবাংলা এলপিএস ফাউন্ডেশন  কর্তৃক  শ্রমজীবি মানুষের মধ্যে সাবান ও মাস্ক বিতরণ   » «   গোলাপগঞ্জে কোদাল ও দা দিয়ে কুপিয়ে বাবাকে হত্যা করলো নিজ ছেলে  » «   সিলেটে নিত্য প্রয়োজনীয় পন্যের দোকান ও ফার্মেসি ব্যতীত সকল দোকানপাট বন্ধ:রাস্তা ফাঁকা  » «  

জগন্নাথপুরে করোনা আংতকে পত্রিকা রাখছেন না গ্রাহকেরা

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি::সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় করোনা আংতকে পত্রিকা রাখছেন না গ্রাহকেরা গতকাল সোমবার উপজেলার সদরের বিভিন্ন ব্যাংকে পত্রিকা নিয়ে গেলে ব্যাংকে থাকা কর্মকর্তারা পত্রিকা রাখতে অনিহা প্রকাশ করেন। এছাড়াও রানীগঞ্জ বাজারের বিভিন্ন দোকানে পত্রিকা নিয়ে গেলে গ্রাহকরা পত্রিকা রাখবেনা না বলে জানান তারা।
জানা যায়, জগন্নাথপুরের হকার সমিতির সভাপতি নিকেশ বৈদ্য অনেক দিন ধরে উপজেলা সদর সহ আশে পাশের কয়েকটি বাজারের পত্রিকা বিক্রি করছেন। তার সাথে থাকা অনেকেই আবার কেউ কেউ পত্রিকা বিক্রির ব্যবসা ছেড়ে দিয়েছে। তবে সংবাদপত্রের ভালোবাসার টানে আজ পর্যন্ত প্রায় ২জন হকার রয়েছে। প্রতিদিনই কাক ডাকা ভোর হলেই ছুটে আসে হকাররা এজেন্ট অফিসের নিকট। সেখান থেকে পত্রিকা সংগ্রহ করে উপজেলা সদর সহ বিভিন্ন হাট-বাজার, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে সরকারি-বেসরকারি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে সারাদিন ঘুরে ঘুরে পত্রিকা বিক্রি করে।
জগন্নাথপুরের হকার সমিতির সভাপতি নিকেশ বৈদ্য জানান, ছোটবেলা থেকে পত্রিকা বিক্রি করছি। পত্রিকার হকাররা হচ্ছে পত্রিকার প্রাণ। সংবাদপত্রের ভালোবাসার টানে পত্রিকা বিক্রি করে কোনোরকম ডাল-ভাত খেয়ে জীবনপার করে যাচ্ছি। মনে অনেক ধরণের আশা-আকাঙ্খা থাকলেও দৈনিক অল্প আয়ের লোক হওয়ায় আমাদের স্বপ্নগুলো ফুটে উঠতে পারে না। আজ উপজেলা সদরে বিভিন্ন ব্যাংকে পত্রিকা নিয়ে গেলে ব্যাংক কর্মকর্তারা পত্রিকা রাখতে অনিহা প্রকাশ করেন। আমার প্রশ্ন হচ্ছে পত্রিকায় যদি ভাইরাস হয়? টাকায় কেন ভাইরাস হবে না। টাকা আমরা নেই পত্রিকা আমরা নেই না।

পোস্ট/এস এ/জি পি

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.