সংবাদ শিরোনাম
তাহিরপুর সীমান্তে ভারতীয় গোলকাঠ উদ্বার  » «   সিলেটে ৩ জন চিকিৎসকসহ নতুন করে ১৩ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত  » «   জেলা তথ্য অফিসের উপ পরিচালক মিলি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত  » «   খাদিমনগর ইউনিয়নে চুরি হওয়া গরুসহ দুই চোর আটক  » «   মেয়র আরিফের রোগমুক্তি কামনায় মহানগর  ব্যবসায়ী ঐক্য কল্যাণ পরিষদের দোয়া  » «   আল্লামা শফীর জানাজা সম্পন্ন, লাখো মানুষের ঢল  » «   মৃত ইডেন মহিলা কলেজের শিক্ষিকাকে বদলি  » «   সাবেক মেয়র কামরানের ছোট ভাই বখতিয়ার আহমদ কানিছ আর নেই  » «   যে কেউ পাবে না আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র  » «   ইউএনও ওয়াহিদা ও তার স্বামীকে বদলি  » «   দক্ষিণ সুরমায় নারীকে মারধরের অভিযোগে ট্রাভেলস ব্যবসায়ী গ্রেফতার  » «   দৌড়বিদ-সাইক্লিস্ট ও সাঁতারুদের পদচারণায় মুখরিত ওসমানীনগর  » «   মহানগর পুলিশের অভিযানে গণধর্ষণ মামলার দুই আসামি গ্রেপ্তার  » «   সিলেটে বঞ্চিত আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ মিছিল  » «   সিলেট জেলা আ.লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে ইমরান আহমদকে দেখতে চায় এলাকাবাসী  » «  

এবার মহিলার পর নগরীতে হোম কোয়রেন্টিনে থাকা এক বৃদ্ধার মৃত্যু

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::সিলেট নগরীতে হোম কোয়রেন্টিনে থাকা এক বৃদ্ধ মারা গেছেন। নগরীর হাউজিং এস্টেট এলাকার বাসিন্দা গিয়াস উদ্দিন (৬৫)নামের ওই বৃদ্ধ দেশে থাকলেও তার ছেলে সম্প্রতি যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফিরেছিলেন।

মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) রাত ৯টার নিজ বাসায় মারা যান গিয়াস উদ্দিন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গিয়াস উদ্দিন কিডনির জটিলতায় ভূগছিলেন। নিয়মিত ডায়ালিসিস করাতে হতো। গত ১৪ মার্চ যুক্তরাজ্য থেকে তার ছেলে দেশে ফেরেন। পরদিন গিয়াসউদ্দিনের শ্বাসকষ্ট শুরু হলে বাবাকে নিয়ে সিলেট কিডনী ফাউন্ডেশনে যান তার প্রবাসী ছেলে। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিস্তারিত শুনে গিয়াস উদ্দিনকে কোয়ারেন্টিনে রাখার পরামর্শ দেন।

সিলেট সিটি করপোরেশনের স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েস লোদী বলেন, সিটি করপোরেশনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা এসেও গিয়াস উদ্দিনকে কোয়ারেন্টিনে থাকার কথা বলেছিলেন।  বাড়িতেই মঙ্গলবার রাত ৯ টায় গিয়াস উদ্দিন মারা যান। তবে তিনি করোনাভাইরাস আক্রান্ত কী না তা নিশ্চিতের জন্য কোনো পরীক্ষা করানো হয়নি।

কয়েস লোদী বলেন, বিষয়টি আমি সিলেটের জেলা প্রশাসককে অবগত করেছি। জেলা প্রশাসক ও সিভিল সার্জন জনসমাগম না করে দ্রুত লাশ দাফনের ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলেছেন। পারিবারিকভাবে রাতেই নগরীর মানিক পীরের টিলায় তার দাফনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার (২১ মার্চ) সিলেটের শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে সন্দেহভাজন এক নারীর মৃত্যু হয়।

এর আগে গত শুক্রবার (২০ মার্চ) জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ওই নারী শহীদ শামসুদ্দীন হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হন। গত ৪ মার্চ তিনি যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফিরেছিলেন। গত রবিবার আইইডিসিআর থেকে লোকজন এসে তার রক্ত পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহের কথা ছিল।

যুক্তরাজ্য ফেরত ওই নারীর বাসা সিলেট নগরীর শামীমাবাদ আবাসিক এলাকায় ছিলো বলে জানা গেছে।এবং তার

গ্রামের বাড়ী প্রবাসী মহিলার(৬১) গ্রামের বাড়ি জগন্নাথ পুরের পাটলীতে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.