সংবাদ শিরোনাম
র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম স্ত্রীসহ করোনা আক্রান্ত  » «   করোনায় আক্রান্ত ছয় হাজার পুলিশ, মৃত্যু ১৯  » «   ভারতে ফের একদিনে রেকর্ড ৯,৯৭১ আক্রান্ত  » «   সিলেটে নতুন করোনায় আক্রান্ত আরো ৪ চিকিৎসক  » «   বালাগঞ্জে বজ্রপাতে নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু  » «   ধেয়ে আসছে তিন দৈত্যাকার গ্রহাণু  » «   অধ্যাপক গোলাম রহমানের পুরো পরিবার করোনা আক্রান্ত  » «   লকডাউনে হেয়ার কাট, জরিমানা দিতে হল নয় লাখ টাকা!  » «   নিষিদ্ধ হচ্ছে পুলিশের হাঁটু দিয়ে গলা চেপে ধরা  » «   ট্রাম্পকে হারাতে নির্বাচনী লড়াইয়ে মনোনয়ন পেলেন বাইডেন  » «   মার্কিন তরুণীকে পাকিস্তানি মন্ত্রীর ধর্ষণ, হাত তোলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   যুক্তরাজ্যে আটকা পড়া বাংলাদেশিদের ফেরাতে দ্বিতীয় বিশেষ ফ্লাইট  » «   অসুস্থ মাকে হাসপাতালের গেটে ফেলে ছেলে উধাও  » «   নাসিমের অবস্থা সংকটাপন্ন, মেডিকেল বোর্ড গঠন  » «   রবিবার থেকে নতুন নিয়মে লকডাউন  » «  

করোনা: ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানগুলো গ্রাহকদের ঋণের কিস্তি পরিশোধে চাপ দিতে পারবেনা

সিলেটপোস্ট ডেস্ক ::করোনাভাইরাসে তৈরি হওয়া সংকটের কারণে আগামী জুন পর্যন্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের গ্রাহকদের ঋণের কিস্তি পরিশোধে বাধ্য করতে পারবে না। তবে কোনো গ্রাহক স্বেচ্ছায় ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে চাইলে তা নিতে কোনো বাধা নেই।

মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটির (এমআরএ) সম্প্রতি এক সার্কুলারে বিষয়টি স্পষ্ট করেছে। সার্কুলারে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে কোনো ঋণগ্রহীতা আর্থিক অক্ষমতার কারণে কিস্তি দিতে না পারলেও আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত ওই গ্রাহককে খেলাপি দেখানো যাবে না অথবা ওই ঋণকে বকেয়া হিসেবে উল্লেখ করা যাবে না। এই সংকটময় সময়ে ঋণগ্রহীতাদের কিস্তি পরিশোধে বাধ্য করা যাবে না। তবে কোনো গ্রাহক স্বেচ্ছায় ঋণের কিস্তি পরিশোধে ইচ্ছুক হলে সেক্ষেত্রে কিস্তি গ্রহণে কোনো বাধা থাকবে না। নতুন ঋণ দেওয়ায় ক্ষেত্রে কোনো ধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়নি বলে সার্কুলারে উল্লেখ করা হয়েছে।

ক্ষুদ্রঋণ সংস্থাগুলোর কার্যক্রম : ক্রেডিট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ফোরাম (সিডিএফ) গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ক্ষুদ্র অর্থায়ন সংস্থাগুলো তাদের তিন কোটি সদস্যের পাশে এসে দাঁডিয়েছে। সংস্থাগুলো লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্ত দরিদ্র ও শ্রমজীবী মানুষদের নানাবিধ সহায়তা দিচ্ছে। সব ক্ষুদ্রঋণ সংস্থাই তাদের সাধ্যমতো সদস্য ও কর্মীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যেও মাস্ক, সাবান ও স্যানিটাইজার বিতরণ করছে। সচেতনতা বাড়াতে লিফলেট বিতরণ ও অডিও-ভিজুয়াল কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। গ্রামে-গঞ্জে মাইকিং করেও মানুষকে সচেতন করছে।

সর্বশেষ সংবাদ

Developed by:

.